19.1 C
Toronto
বৃহস্পতিবার, মে ২৩, ২০২৪

সাবিনা ইয়াসমিনের গানের অনুষ্ঠানে তসলিমা নাসরিনকে আসতে নিষেধ!

সাবিনা ইয়াসমিনের গানের অনুষ্ঠানে তসলিমা নাসরিনকে আসতে নিষেধ!
<br >বাংলাদেশের নির্বাসিত লেখক তসলিমা নাসরিন

নিউইয়র্কের জ্যামাইকায় দ্য মেরি লুই একাডেমিতে গতকাল ১৫ জুলাই সন্ধ্যায় বাংলাদেশের অন্যতম সেরা সংগীতশিল্পী সাবিনা ইয়াসমিনের একক সঙ্গীতানুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। তবে তার সেই সঙ্গীতানুষ্ঠানকে ঘিরে প্রায় দু’সপ্তাহ আগে থেকেই নিউইয়র্ক প্রবাসীদের মাঝে ব্যাপক সাড়া পড়েছিল। অনুষ্ঠানস্থলে প্রবেশের জন্য সব টিকিট আগেই বিক্রি হয়েছিল বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছিল যুক্তরাষ্ট্রের বাংলা সংবাদমাধ্যম বাংলা প্রেস।

ওই অনুষ্ঠানে দর্শকের সারিতে বসে গান শুনতে চেয়েছিলেন বাংলাদেশের বিতর্কিত নির্বাসিত লেখক তসলিমা নাসরিন। কিন্তু তাকে অনুষ্ঠান দেখা তো দূরের কথা, ওই এলাকাতেই যেতে নিষেধ করা হয়। সম্প্রতি সেই তিক্ত অভিজ্ঞতা নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে শেয়ার করেছেন তসলিমা নাসরিন। ‘দৈনিক আমাদের সময়’র পাঠকদের জন্য তার সেই

- Advertisement -

পোস্টটি তুলে ধরা হলো-
তসলিমা নাসরিন

পোস্টে তসলিমা নাসরিন লিখেছেন, ‘নিউইয়র্কের জামাইকায় দ্য মেরি লুই একাডেমিতে বাংলাদেশের বিখ্যাত গায়িকা সাবিনা ইয়াসমিন গান গাইবেন ১৫ জুলাই সন্ধ্যায়। খবরটি আমাকে দিলেন একজন প্রবাসি বাঙালি। আমি ছোটবেলা থেকে সাবিনা ইয়াসমিনের গান শুনছি রেডিও, টেলিভিশনে, সিনেমায়। মঞ্চে তিনি গাইবেন আর দর্শকের সারিতে বসে তার গান শুনতে ভীষণ আগ্রহী আমি। আনন্দে লাফিয়ে উঠে টিকিট করতে চাইলাম।

বাঙালিটি বললেন, তিনি খবর নিয়ে আমাকে জানাবেন। ও মা, কিছুক্ষণ পর ফোন করে উনি বললেন, উনি বাঙালি আয়োজকদের বলেছিলেন আমি অনুষ্ঠান দেখব, আমি টিকিট করতে চাইছি, আয়োজকরা নাকি জানিয়ে দিয়েছেন আমি যেন জামাইকা এলাকাতেই না যাই, আমার কাছে টিকিট বিক্রি করা হবে না, আর টিকিট আমি কিনে ফেললেও আমাকে হলে ঢুকতে দেওয়া হবে না।

–কেন? কারণ কী?
–কারণ কী আপনি বোঝেন না?
–না আমি তো বুঝতে পারছি না।
–কারণ আপনি তসলিমা নাসরিন।’

জানা গেছে, ১৫ জুলাই জ্যামাইকার দ্য মেরি লুই একাডেমিতে যখন সাবিনা ইয়াসমিনের একক সঙ্গীতানুষ্ঠান শুরু হয়, তখন মিলনায়তনে দর্শকশ্রোতা ছিল কানায় কানায় পূর্ণ। সেদিন পুরনো দিনের গানে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে প্রবাসী দর্শক মাতিয়েছিলেন দেশের অন্যতম সেরা এই শিল্পী। নিউইয়র্কে প্রথমবারের মতো সাবিনা ইয়াসমিনের একক সঙ্গীতানুষ্ঠানের আয়োজন করেন নিউইয়র্কের পিজি গ্রুপ।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles