26.6 C
Toronto
রবিবার, জুলাই ২১, ২০২৪

জীবন থেকে নেয়া : অভিযোগ এবং উত্তর

জীবন থেকে নেয়া : অভিযোগ এবং উত্তর

ষ্টোর কীপারকে ঠিকই বদলী নিয়ে চলে যেতে হলো কিন্তু আমিও জানতাম যে সে আমাকে ঝামেলা করবে দূর থেকে। একদিন দুপুরে অফিসে পরিচালক স্বাস্থ্য, খুলনা অফিস থেকে একটি তদন্ত চিঠি হাতে এলো। চিঠিটির ইতিতে ছিলো অনেক গুলো বেনাম বা বানানো নাম যার প্রকৃত মালিক কে সত্যই খুঁজে পাওয়া কঠিন। ৮ টি অভিযোগ এবং অভিযোগগুলি পাঠানো হয়েছে তদানীনতন বিডিআর এর খুলনা অন্চলের সেক্টর কমান্ডার বরাবরে। সেখান থেকে স্বাস্খ্য পরিচালককে পাঠানো হয়েছে।

- Advertisement -

চিঠিতে বানানো আমার বিরুদ্ধে ৮টি অভিযোগের লিখিত উত্তর প্রস্তুত করে রাখতে বলা হয়েছে এবং একজন সিভিল সার্জন আসবেন তদন্তে যিনি সেখানে এক সময় সিভিল সার্জন ছিলেন। পর দিন সকালে আমি পরিচালক স্বাস্থ্য এর সাথে দেখা করলাম। তিনি হাসতে হাসতে বললেন-আপনার ঐ বয়সে ও রকম অভিযোগ আমি বহু পেয়েছি নিজের নামে। ভয় পাবেন না। যান উত্তর রেডি করে রাখেন। পর দিন তদন্ত হলো এবং রিপোর্ট দাখিল হলো-কোন অভিযোগের অস্তিত্ব পাওয়া যায় নাই।

ঢাকার নিপসমে এক বছরের ডিপ্লোমা কোর্স শেষ করে কর্মস্থলে ফিরে দেখি একই অভিযোগের উপর এন্টিকরাপশন বিভাগ থেকে তদন্ত হয়েছে। কোন সহকর্মী বাদ যায়নি জেরার কাছে এমন কি আমার ডা: স্ত্রীও। তদন্ত কর্মকর্তার কাছে তার বিবৃতি ছিলো-আরএমও এলে তাকে আযান দিয়ে দূর্নিতি করতে বলবো। জবাবে তদন্ত কর্মকর্তা বলেছেন তাকে-আপা মশার উপর রাগ করে মাশারীতে আগুন দিলে কার ক্ষতি?
কাজ করছি হঠাৎ একদিন অপেক্ষাকৃত তরুন এন্টিকরাপশন অফিসার অফিসে ঢুকে পরিচয় দিলেন।

তাকে বসতে বললাম কিন্তু তিনি মুহুর্তে উধাও হয়ে গেলেন। আবার এলেন-আচ্ছা হাসপাতালে, এই গ্রামে আপনার বিষয়ে জানার চেষ্টা করলাম কিন্তু কেউ মুখ খুলেনা, আপনার বিরুদ্ধে কেউ কথা বলেনা।
এবার আমারই অবাক হবার পালা।-আচ্ছা আপনার বিরুদ্ধে পূর্বের তদন্তের ফলাফল কি ? আমি কি বলবো সে কি আমার কথা বিশ্বাস করবে, ভাবলাম। তারপরও বললাম-সব ফলাফল জিরো অর্থাৎ শূন্য। তদন্ত কর্মকর্তা উঠে দাড়ালেন, বললেন-যাই, এই কথাটাই লিখে দেই।

ইনুভিক, কানাডা

- Advertisement -
পূর্ববর্তী খবর
পরবর্তী খবর

Related Articles

Latest Articles