ডেনমার্কে ছড়াচ্ছে নতুন ধরনের ‘ডেল্টা ভেরিয়েন্ট’

- Advertisement -

করোনাভাইরাসের ডেল্টা ভেরিয়েন্ট এখনো ডেনমার্কে সবচেয়ে সাধারণ ভাইরাসের রূপ। কিন্তু ডেল্টা ভেরিয়েন্টের একটি নতুন সংস্করণ ছড়িয়ে পড়তে শুরু করেছে বলে জানিয়েছে ডেনমার্কের স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। সপ্তাহে প্রায় দশটি আক্রান্তের ঘটনা নথিভুক্ত হচ্ছে এবং ডেল্টার এই নতুন ভেরিয়েন্টের প্রথম আক্রান্তের খবরটি ডেনমার্কে রিপোর্ট করা হয়েছিল গত ৪ আগস্ট।

- Advertisement -

ডেল্টার এই উপ-ভেরিয়েন্টটির নাম দেওয়া হয়েছে ’এওয়াই.৪.২’ (অণ.৪.২)। ডেনমার্কের স্বাস্থ্যমন্ত্রী ম্যাগনাস হিউনিকের এক বক্তব্যে জানান যে, যুক্তরাজ্যে অদ্যাবধি সংক্রমিতের মধ্যে অন্তত ১০ শতাংশ এই নতুন উপ-ভেরিয়েন্ট দ্বারা আক্রান্ত হয়েছে। ব্রিটিশ স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ জানায়, তাঁদের হাতে প্রমাণ রয়েছে, উপ-ভেরিয়েন্টটি আসল ডেল্টা ভেরিয়েন্টের চেয়ে কিছুটা বেশি সংক্রামক এবং ভয়াবহ।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী হিউনিক টুইটারের মাধ্যমে আশ্বস্ত করেন যে, নতুন এই ভেরিয়েন্ট বড় ধরনের কোনো চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়াবে না বলে তিনি আশা করছেন। তিনি বলেন, ‘এটি বাড়ছে না, তাই এখনই আমরা চিন্তিত নই। তবে এওয়াই.৪.২ দ্বারা সংক্রামণ এবং এর গতিবিধি উভয়ই আমরা নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছি’।

- Advertisement -

আরও পড়ুন : ৩৩ তলায় ঝুলে থাকা রংমিস্ত্রির দড়ি কেটে দিলেন নারী

- Advertisement -

গবেষণায় প্রমাণ পাওয়া গেছে যে, উপ-ভেরিয়েন্টটি আসল ডেল্টা ভেরিয়েন্টের তুলনায় বেশি সহজে ছড়িয়ে পড়ে এবং মূল ডেল্টা ভেরিয়েন্টের চেয়ে বেশি সংক্রামক এই নতুন রূপটি। ইউনিভার্সিটি কলেজ অব লন্ডনের জেনেটিক্স ইনস্টিটিউটের প্রধান ফ্রাঁসোয়া ব্যালোক্স এ প্রসঙ্গে বিবিসিকে বলেছেন যে, ’এওয়াই.৪.২ সম্ভবত মূল ডেল্টা ভেরিয়েন্টের তুলনায় প্রায় ১০ শতাংশ বেশি সংক্রামক। আমরা আলফা এবং ডেল্টার সময় যা দেখেছি, তার তুলনায় এটি কিছুই নয়। সে সময়ের অন্যান্য ভেরিয়েন্টের চেয়ে আলফা এবং ডেল্টা প্রায় ৫০ বা ৬০ শতাংশের বেশি সংক্রামক ছিল যা সামাল দেওয়া অত্যন্ত কষ্টকর হয়ে পড়েছিল’। তিনি আরো বলেন ’এটা ভালো যে আমরা সচেতন এবং অত্যন্ত স্বস্তিদায়ক যে, সন্দেহজনক সব কিছু নিরীক্ষণ করার জন্য যথেষ্ট সম্পদ এবং অবকাঠামো আমাদের হাতে রয়েছে’।

উপ-ভেরিয়েন্টটিকে অদ্যাবধি ‘উদ্বেগজনক ভেরিয়েন্ট’ হিসাবে বর্ণনা করা না হলেও এটাকে বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ একটি ভেরিয়েন্ট হিসেবে আমলে নিয়েছেন গবেষকরা। আর সে কারণে উদ্ভূত উপ-ভেরিয়েন্টকে অন্যান্য করোনাভাইরাসের মতো গ্রীক বর্ণমালার নামানুসারে নামকরণ করা হয়নি। এখনো পর্যন্ত এমন কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি যে, এওয়াই.৪.২ এর কারণে অন্যান্য রোগের উপসর্গ তৈরি করতে পারে বা সংক্রামিত ব্যক্তির জন্য মৃত্যুর ঝুঁকি বেশি হতে পারে।

২৯ অক্টোবর ডেনিশ পার্লামেন্টের সব দল নতুন এই করোনভাইরাসটির সংক্রমণের ব্যাপারে পুঙ্খানুপুঙ্খ পর্যালোচনা এবং আলোচনার জন্য জড়ো হয়েছে। সুইডেনে গত এক সপ্তাহে ৬ জন রোগীর দেহে ডেল্টার এই উপ-ভেরিয়েন্টের উপস্থিতি পাওয়া গেছে। স্ক্যান্ডিনেভিয়ার অন্যান্য দেশগুলোতেও ডেল্টার উপ-ভেরিয়েন্ট এওয়াই.৪.২ এর কয়েকটি মুষ্টিমেয় ঘটনার ব্যাপারে রিপোর্ট করা হয়েছে বলে জানায় দেশগুলোর স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles