-5.4 C
Toronto
বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারি ২৯, ২০২৪

জাষ্টিন ট্রুডোর ৯ দিনের ভ্যাকেশন

জাষ্টিন ট্রুডোর ৯ দিনের ভ্যাকেশন
প্রধানমন্ত্রী জাষ্টিন ট্রুডো

কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাষ্টিন ট্রুডো কিছুদিন আগে ৯ দিনের ভ্যাকেশনে গিয়ে উঠেছিলেন তার এক শুভাকাংখির ভিলায় বা রিসোর্টে। তার জন্যে তাকে কোন টাকা দিতে হয় নি। তবে যদি দিতে হতো তাহলে সেটার খরচ হতো ৮০ হাজার ডলার। কানাডার বিরোধী দলের নেতা পিয়ারে পলিভার সংসদে দাবী করলেন এই ভ্যাকেশনে ফ্রি থাকার ব্যবস্হা যারা করেছে তারা আবার ট্রুডো ফাউন্ডেশনের ডোনার। তারা প্রধানমন্ত্রীকে যেখানে ফ্রি থাকতে দিয়েছে সেখানে অন্য যে কেউ হলে তাকে ৮০ হাজার ডলার পে করতে হতো। যেহেতু তারা এরকম একটি উপহার প্রধানমন্ত্রীকে দিয়েছে, নিশ্চয়ই তারা ভবিষ্যতে প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে এর বিনিময়ে কিছু আদায় করার প্রত্যাশা করতেই পারে। কাজেই প্রধানমন্ত্রীর উচিত এই আশি হাজার ডলার ঐ হোটেল বা ভিলার মালিককে দিয়ে দেয়া। তিনি কি তা করবেন?

জবাবে প্রধানমন্ত্রী ট্রুডো বলেন, ঐ ভিলায় আমরা বহুবার গিয়েছি। থেকেছি। তারা আমাদের পারিবারিক বন্ধু। আমার বয়স যখন এক বছর তখন থেকেই আমরা সেখানে যাই। তবুও যেহেতু কথা উঠেছে, কানাডার এথিকস কমিশনকে আমরা সহযোগীতা করবো, তারা বিষয়টি খতিয়ে দেখুক যে এই ঘটনায় কোন আইন ভঙ্গ হয়েছে কিনা!

- Advertisement -

পাঠক পুরো ভিডিওটি দেখুন। একটি গনতান্ত্রিক দেশের জবাবদিহিতা কোন পর্যায়ে গেলে একজন প্রধানমন্ত্রীকেও এভাবে বার বার উঠে দাঁড়িয়ে জবাব দিতে হয়! আর এইসব দেশের এথিকস কমিশন, অডিটর জেনারেল কত শক্তিশালী তা যারা এখানকার ইতিহাস জানেন তারা ভাল করেই জানেন যে এদের সামান্য একটা অনিয়মের রিপোর্টে সরকারের পতন হয়ে যেতে পারে, রাজপথের কোন আন্দোলন দরকার হয় না।
কাজেই নির্বাচন কমিশন, এথিকস কমিশন, অডিটর জেনারেল, পিএসসি, দুদক ইত্যাদি প্রতিষ্ঠান যতদিন স্বাধীনভাবে কাজ করতে না পারবে ততদিন দেশে গনতন্ত্র প্রতিষ্ঠা হবে না। সে কারণেই দরকার কার্যকর ডায়লগ, গনতন্ত্রকে প্রাতিষ্ঠানিক রুপ দেবার ডায়লগ।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles