12.8 C
Toronto
মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২২

ভ্যাকসিনেটেড কানাডিয়ানরা কোয়ারেন্টিন ছাড়াই দেশে ফেরার সুযোগ পাচ্ছেন

- Advertisement -
মন্ত্রী মার্কো মেন্ডিসিনো

কানাডায় প্রবেশকারী ভ্রমণকারীরা তাদের ভ্যাকসিন গ্রহণের তথ্য যাতে জানাতে পারেন সেজন্য অ্যারাইভক্যান অ্যাপ চালু করেছে অটোয়া। অ্যাপটি ব্যবহার করে জুনের মাঝামাঝি সময় থেকে পুরোপুরি ভ্যাকসিনেটেড কানাডিয়ানরা কোয়ারেন্টিন ছাড়াই দেশে ফেরার সুযোগ পাচ্ছেন। তবে আনুষ্ঠানিক ডিজিটাল পাসপোর্টে প্রদেশ ও আঞ্চলিক কর্তৃপক্ষগুলোর সরবরাহকৃত উপাত্ত ব্যবহার করা হবে।

প্রিমিয়ারদের কাছে তিন দফায় বিষয়টি তোলা হয়েছে বলে জানান আন্তঃসরকার বিষয়ক মন্ত্রী ডমিনিক লাব্লাঁ। তিনি বলেন, প্রদেশ ও অঅঞ্চলগুলোর সঙ্গে আমাদের খুবই সহযোগিতা ও গঠনমূলক আলোচনা হয়েছে। কানাডিয়ানদের ভ্যাকসিনেশন সংক্রান্ত উপাত্ত যাতে আমরা নিরাপদে পেতে পারি সে ব্যাপারে তারা আমাদেরকে আশ্বস্ত করেছেন। জাতীয় সরকার হিসেবে এরপর আমাদের দায়িত্ব হলো আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত সনদ কানাডিয়ানদের সরবরাহ করা।

এর প্রেক্ষিতে ভ্যাকসিন ডোজ যারা সম্পন্ন করেছেন আন্তর্জাতিক ভ্রমণের প্রয়োজনে শিগগিরই তারা ভ্যাকসিন সনদ পাবেন বলে জানিয়েছেন কানাডার অভিবাসন বিষয়ক মন্ত্রী মার্কো মেন্ডিসিনো। ফলের শুরুর দিকে ভ্যাকসিনেশনের পক্ষে নথিপত্র প্রস্তুত হয়ে যাবে এবং এটা হবে ডিজিটাল। তবে কেউ চাইলে কাগুজে প্রমাণপত্রও নিতে পারবেন। এটা অভ্যন্তরীণ প্রয়োজনের জন্য না হলেও কোনো প্রদেশ চাইলে সে উদ্দেশেও ব্যবহার করা যেতে পারে।

এই সনদে সংশ্লিষ্ট গ্রহীতা কি ধরনের ভ্যাকসিন নিয়েছেন, কোন তারিখে এবং কোথায় দেওয়া হয়েছে সে সংক্রান্ত উপাত্ত থাকবে বলে জানান মেন্ডিসিনো। তিনি বলেন, গত কয়েক মাসে যেসব কানাডিয়ান ভ্যাকসিন নিয়েছেন তাদেরকে আমি ধন্যবাদ দিতে চাই। যত বেশি সংখ্যক মানুষ ভ্যাকসিন নিচ্ছেন ততই তারা মহামারি পরবর্তী জীবন নিয়ে পরিকল্পনা করতে পারছেন। নিরাপদে ভ্রমণের পরিকল্পনাও করতে পারছেন তারা।

ভ্যাকসিন পাসপোর্ট নিয়ে খুব বেশি কথাবার্তা চললেও এটি একেবারে নতুন, এমন নয়। যেসব দেশে ইয়েলো ফিভারের প্রকোপ বেশি যেসব দেশে ভ্রমণকারীদের যাওয়া ও যেসব দেশের ভ্রমণকারীদের অন্য দেশ ভ্রমণের ক্ষেত্রে ভ্যাকসিন সনদ কয়েক বছর ধরেই ব্যবহৃত হয়ে আসছে। কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন পাসপোর্টের বিস্তৃতি এর চেয়ে অনেক বেশি।

বিশ্বের অনেক দেশই ভ্রমণের ক্ষেত্রে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন গ্রহণ বাধ্যতামূলক করেছে। নিজস্ব ভ্যাকসিন পাসপোর্টও চালু করেছে অনেক দেশ। ইউরোপীয় ইউনিয়নের গ্রিন পাসের মতো বেশিরভাগ ভ্যাকসিন পাসপোর্টই ডিজিটাল। তবে জাপান জুলাইয়ের শেষ দিকে কাগুজে ভ্যাকসিন পাসপোর্টের প্রচলন শুরু করেছে।

Related Articles

Latest Articles