4.3 C
Toronto
রবিবার, এপ্রিল ২১, ২০২৪

উইন্ডসরে বহুজাতিক মাতৃভাষা উৎসব

উইন্ডসরে বহুজাতিক মাতৃভাষা উৎসব
কানাডার উইন্ডসর শহরের বাংলাদেশি অলাভজনক সংস্থা হারমনি কালচারাল রিসার্চ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ ফোরাম তৃতীয়বারের মতো আয়োজন করতে যাচ্ছে বহুজাতিক মাতৃভাষা উৎসব

কানাডার উইন্ডসর শহরের বাংলাদেশি অলাভজনক সংস্থা হারমনি কালচারাল রিসার্চ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ ফোরাম তৃতীয়বারের মতো আয়োজন করতে যাচ্ছে বহুজাতিক মাতৃভাষা উৎসব (মাল্টিন্যাশনাল মাদার ল্যাঙ্গুয়েজ ফেস্ট—এমএমএলএফ ২০২৩)।

উল্লেখ্য, ইউনেসকো স্বীকৃত আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসকে বিশ্বের দরবারে পৌঁছে দিতেই ২০১৯ সালে প্রথমবারের মতো হারমনি আয়োজন করে বহুজাতিক মাতৃভাষা উৎসব। ঠিক তার পরের বছর ২০২০ সালের ফেবুয়ারী মাসে ঠিক Covid-19 মহামারীর পূর্বে দ্বিতীয়বারের মতো আয়োজন করে এই উৎসব যেখানে ৩২টি দেশের শিল্পীরা ৩৪টি ভাষায় তাঁদের নিজস্ব সংস্কৃতি পরিবেশন করেন।

- Advertisement -

এবার হারমনি কালচারাল রিসার্চ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ ফোরাম দুই বছর বিরতির পর ১৮ই ফেব্রুয়ারি উইন্ডসর শহরের কাবোটো ক্লাবে তৃতীয়বারের মতো আয়োজন করতে যাচ্ছে এ উৎসব। এতে ২৮টিরও বেশি দেশের শিল্পীরা তাঁদের নিজস্ব সংস্কৃতি পরিবেশন করবেন। অনুষ্ঠানটির টাইটেল স্পনসর হিসেবে থাকবেন উইন্ডসর শহরের স্থানীয় বাংলাদেশী রিয়ালটোর জনাব রনি হায়দার।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন উইন্ডসর শহরের মেয়র ড্রিউ ডিল্কেন্স। বিশেষ অতিথি থাকবেন লিবারেল পার্টির সাংসদ এরেক কুসমিয়েরচেক এমপি, এনডিপি পার্টির সাংসদ ব্রায়ান মেসি এমপি, পুলিশপ্রধান জেসন বেল্লাইরে ও ফায়ার চিফ স্টিফেন লাফোরেট।

কানাডায় বাংলাদেশি কোনো অলাভজনক সংগঠনের অনেক দেশের সমন্বয়ে আয়োজিত এই উৎসব দৃষ্টান্তমূলক এক অনুষ্ঠান, যা বাংলাদেশিদের জন্য গর্বের। এর আগে হারমনি আমেরিকা ও কানাডার বিভিন্ন শহরে মঞ্চনাটক ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজন করে। উইন্ডসর শহরের স্থানীয় বাংলাদেশী শিল্পীরাই হারমনির মূল চালিকা শক্তি।

বাংলা সংস্কৃতিকে বিশ্বের মানচিত্রে উচ্চস্থানে নেয়ার পাশাপাশি হারমনি চ্যারিটি, নারীর অধিকার বাস্তবায়ন, নতুন অধিবাসীদের সহযোগিতা, পরিবেশ সচেতনতা ও যুব উন্নয়নে অন্যতম ভূমিকা পালন করে আসছে।

বর্তমানে হারমনির পরিচালক হিসেবে নিয়োজিত আছেন মুস্তাফিজুর রহমান, ড. ওমর ফারুক, খালেক জামান, ড. মোন্তাজির রহমান ও মুনতাসির নাসির সৈকত। ২০২১ সালে হারমোনির অন্যতম পরিচালক মো. আবদুল কাইয়ুম করোনা ভাইরাস এ আক্রান্ত হয়ে বাংলাদেশে ইন্তেকাল করেন।

- Advertisement -
পূর্ববর্তী খবর
পরবর্তী খবর

Related Articles

Latest Articles