গভীর নীলনকশা বাস্তবায়ন করছে সরকার: রিজভী

- Advertisement -

রুহুল কবির রিজভী

এই সরকার একটা গভীর নীলনকশা বাস্তবায়ন করছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। বুধবার সকালে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে মিলাদ মাহফিলপূর্ব এক আলোচনা সভায় রিজভী এসব কথা বলেন। বিএনপির উদ্যোগে এ দোয়া মিলাদের আয়োজন করা হয়।

তিনি বলেন, সয়াবিন তেলের দাম একলাফে ৭ টাকা বাড়িয়েছে। শুধু তাই নয়, চালের দাম, ডালের দাম, মোটা দানা মশুরের ডালের দাম, চিকন দানা মশুরের ডালের দাম সব হু হু করে মানে আকাশ ছুঁই ছুঁই করছে। উদ্দেশ্য একটাই- সরকারের সিন্ডিকেট তারা তাদের পকেট ফুলাবে, পকেট ফুলিয়ে তারা একেবারে মোটাসোটা হতে থাকবে এবং এদের এই মোটাসোটা হওয়ার মধ্যদিয়ে সরকারের ময়ুরের সিংহাসন টিকে থাকবে। এটাই হচ্ছে সরকারের অভিপপ্রায়, এটাই হচ্ছে তাদের ইচ্ছ্, এটাই হলো তাদের রাজনৈতিক অপকৌশল, সরকারের অপকৌশল।

- Advertisement -

সারাদেশের পূজামণ্ডপে সংঘটিত হামলার ঘটনার প্রসঙ্গ তুলে রুহুল কবির রিজভী বলেন, এই ব্যবসায়িক সিন্ডিকেটকে সুযোগ করে দেয়ার জন্য জনগণের দৃষ্টি চৌহমুনীতে, জনগণের দৃষ্টি হাজীগঞ্জে, জনগণের দৃষ্টি হবিগঞ্জে-নবীগঞ্জে, জনগনের দৃষ্টি চট্টগ্রামে, জনগণের দৃষ্টি পীরগঞ্জে নিয়ে গেছেন। আর ওবায়দুল কাদেরের মতো আরো তাদের মন্ত্রী-নেতারা যারা আছেন তাদেরকে তিনি বলেছেন, তোমরা এটার (সাম্প্রদায়িক ঘটনাবলী) ওপর ব্যস্ত রাখো জনগণকে। আর সেই কাজটা তারা অত্যন্ত নিষ্ঠার সাথে করছে।

মহানবী হয়রত মুহাম্মদ (সা.) এর জীবনাদর্শ থেকে শিক্ষা গ্রহণের আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, আজকের গুম-খুনের এই রাজনীতি, আজকের এই মিথ্যাচারের রাজনীতিতে পরিবর্তন ঘটাতে হবে রসুল (সা.) আদর্শ দ্বারা। এই সরকার বেশিদিন টিকতে পারবে না। তার আর্দশের কাছে, ন্যায়ের কাছে, ইনসাফের কাছে, সুশাসনের নীতির কাছে কখনোই জুলুমকারী টিকে থাকতে পারে না, কখনোই টিকে থাকতে পারবে না।

- Advertisement -

জাতীয়তাবাদী উলামা দলের আহবায়ক শাহ নেসারুল হকের সভাপতিত্বে ও মাওলানা সেলিম রেজা সঞ্চালনায় মিলাদ মাহফিলপূর্ব আলোচনা সভায় বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আবদুস সালাম, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খায়রুল কবির খোকন, কেন্দ্রীয় নেতা মীর সরফত আলী সপু, রফিকুল ইসলাম, শামীমুর রহমান শামীম আবদুল খালেক, উলামা দলের অধ্যক্ষ নজরুল ইসলাম তালুকদার, অ্যাডভোকেট আবুল হোসাইন, মাওলানা আলমগীর হোসেন প্রমুখ বক্তব্য দেন।

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles