2.7 C
Toronto
সোমবার, ফেব্রুয়ারী ৬, ২০২৩

মেসির গায়ের সেই বিশতের দাম কত?

মেসির গায়ের সেই বিশতের দাম কত?
ছবি সংগৃহীত

ফ্রান্সকে হারিয়ে ৩৬ বছর পর বিশ্বকাপের শিরোপা জেতে লিওনেল মেসির আর্জেন্টিনা। ম্যাচের পর পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে মেসির গায়ে কালো পোশাক দেখে অনেককেই অবাক করে দিয়েছিল। ট্রফি তুলে দেওয়ার আগ মুহূর্তে মেসিকে যেই কালো পোশাকটি পরানো হয়েছিল সেটা আরবে ‘বিশত’ নামে পরিচিত। ঐতিহ্যবাহী এই পোশাকটি মেসিকে পরিয়ে দেন কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল থানি।

বিশত এক ধরনের ঐতিহ্যবাহী পোশাক। উপসাগরীয় অঞ্চলে এই বিশেষ পোশাক পরিধান করা হয়। এটি এমন একটি পোশাক, যা কয়েক শতাব্দী ধরে আরব অঞ্চলে বিশেষ অনুষ্ঠানে পরিধান করা হয়ে আসছে। পোশাকটিকে প্রশংসা বা সম্মানের চিহ্ন হিসাবে দেখা হয়। এছাড়া খ্রিস্টানদের মতে, প্রাচীন এ পোষাক যীশু খ্রিস্ট পড়েছিলেন। লেভান্টের পবিত্র ভূমির বাসিন্দারাও, বিশত পড়তেন।

- Advertisement -

বিয়ে, ঈদ, জুমা, জানাজা ও অন্যান্য বিশেষ উৎসবেও বিশত পরিধান করা হয়। এ ছাড়াও রাজা, ইমাম, যাজক, উপজাতি প্রধান, উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা এ পোষাক পরিধান করেন। এটি একটি মর্যাদাপূর্ণ পোশাক, যা পশ্চিমা বিশ্বে ব্ল্যাক-টাই টাক্সিডোর মতো বলে ধরা হয়।

অনেকের মনেই প্রশ্ন জাগতে পারে, ‘বিশত’ নামে এই পোশাকটির দাম কত? এর উত্তর দিয়েছেন কাতারে ‘বিশত’ প্রস্তুতকারী শীর্ষ পাঁচ প্রতিষ্ঠানের একটির মালিক আল–সালেম। কয়েক দিন আগে আল–সালেমের দোকান থেকেই মেসির জন্য বিশত কিনে নিয়ে যান বিশ্বকাপ আয়োজকেরা।

আল সালেম বলেন, আমাদের বলা হয়েছিল যেন হালকা এবং স্বচ্ছ ফেব্রিকের বিশত দিই। শীতকালে এমন পোশাক চাওয়ায় অবাক হয়েছিলাম। এখন মনে হচ্ছে তারা চেয়েছিলেন ভেতরের জার্সি যেন ঢাকা না পড়ে।

তিনি জানান, মেসির গায়ে যে বিশতটি পরিয়ে দেওয়া হয়, সেটির দাম ২ হাজার ২০০ মার্কিন ডলার। বাংলাদেশি টাকায় ২ লাখ ৩০ হাজারের বেশি। এটি জাপান থেকে আনা নাজাফি কটন আর জার্মানি থেকে আনা স্বর্ণের থ্রেড দিয়ে বানানো। বানাতে সময় লাগে এক সপ্তাহ।

আল–সালেম জানান, রোববার রাতের ফাইনালে মেসির গায়ে বিশত দেখে আর্জেন্টাইন দর্শকদের মধ্যে পোশাকটি কেনার আগ্রহ তুঙ্গে ওঠে।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles