রেস্তোরাঁ মালিকদের অনেকেই হতাশ

- Advertisement -

কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনেশন সনদ প্রদর্শন সাপেক্ষে কিছু ভেন্যুকে শতভাগ ধারণক্ষমতা নিয়ে খোলার অনুমতির কথা শুক্রবার ঘোষণা করে অন্টারিও সরকার

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আলেক্সান্দ্রা হিলকেন বলেছেন, রেস্তোরাঁ, বার এবং অন্যান্য খাদ্য ও পানীয় বিক্রয়কারী প্রতিষ্ঠানগুলোতে ধারণক্ষমতার ধরাবাধা কোনো সীমা নেই। শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখা সম্ভব এমন ধারণক্ষমতা নিয়ে কার্যক্রম পরিচালনা করতে পারে তারা। এটা করার কারণ, ভেন্যুগুলো সংক্রমণের উচ্চ ঝুঁকিতে রয়েছে। চিফ মেডিকেল উপাত্তগুলো সার্বক্ষণিক পর্যবেক্ষণে রাখবেন এবং মূল্যায়ন করে দেখবেন ভ্যাকসিন সনদ প্রদর্শন সাপেক্ষে কখন অন্যান্য ভেন্যুর উপর আরোপিত ধারণক্ষমতার সীমা প্রত্যাহার করা যায়।

অন্টারিওর যেসব ভেন্যুর ওপর থেকে ধারণক্ষমতার সীমা প্রত্যাহার করা হয়েছে রেস্তোরাঁ ও বার তার মধ্যে নেই। এতে হতাশা প্রকাশ করেছেন রেস্তোরাঁ মালিকদের অনেকেই।

- Advertisement -

গ্রেটার টরন্টো এরিয়াতে একাধিক রেস্তোরাঁর মালিক টিনো বিয়ানচি। তিনি বলেন, অবস্থা দেখে মনে হচ্ছে প্রদেশ তাদেরকে লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত করেছে। এটা অন্যায্য। পুরো লকডাউনের সময়জুড়ে আমাদেরকে রোলারকোস্টারের মধ্য দিয়ে যেতে হয়েছে। আর এখন অন্য ভেন্যুগুলোকে শতভাগ ধারণক্ষমতা নিয়ে খোলার অনুমতি দেওয়াটা অন্যায্য বলেই মনে হচ্ছে।

কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনেশন সনদ প্রদর্শন সাপেক্ষে কিছু ভেন্যুকে শতভাগ ধারণক্ষমতা নিয়ে খোলার অনুমতির কথা শুক্রবার ঘোষণা করে অন্টারিও সরকার। ক্রীড়া ও ফিটনেস কেন্দ্র, সিনেমা, থিয়েটার ও কনসার্ট ভেন্যু, হর্স ও কার রেসিং ট্র্যাক এবং চলচ্চিত্র ও টিভি অনুষ্ঠান নির্মাণ ভেন্যু এর মধ্যে অন্যতম। সভা ও অনুষ্ঠান স্পেসও এর আওতায় রয়েছে। তবে ইনডোরের ধারণক্ষমতা সীমিতই রাখা হয়েছে এবং সেখানে শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে।

প্রদেশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, এসব ভেন্যুতে মাস্ক পরিধান, স্ক্রিনিং ও কনটাক্ট ট্রেসিংয়ের সুবিধার্থে তথ্য সংগ্রহের কাজ চলবে। তবে কিছু ব্যতিক্রম হিসেবে শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখার প্রয়োজন পড়বে না।

এমন সময় ধারণক্ষমতার সীমা প্রত্যাহার করা হলো যখন টরন্টো র‌্যাপ্টরস ও টরন্টো ম্যাপল লিফস তাদের মৌসুম শুরু করতে প্রস্তুত। এর ফলে স্কশিয়া ব্যাংক এরিয়াতে মহামারি শুরু হওয়ার পর প্রথমবারের মতো দর্শকে ঠাসা ভেন্যুতে খেলার সুযোগ পাবে তারা।

বিয়ানচি বলেন, কোনো ভেন্যুতে ২০ হাজার মানুষ ঠাসাঠাসি করে বসতে পারবে এটা অন্যায্য। বড় করপোরেশন ও বিগ বক্স স্টোরগুলো তাদের পূর্ণ ধারণক্ষমতা নিয়ে খোলার সুযোগ পেলেও ক্ষুদ্র ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলো তা পাবে না। এটা পুরোপুরি অন্যায় মনে হচ্ছে। সময় এসেছে রেস্তোরাঁগুলোকে তাদের শতভাগ ধারণক্ষমতা নিয়ে কার্যক্রম পরিচালনার সুযোগ দেওয়া। কারণ, মহামারি থেকে ঘুরে দাঁড়াতে শুরু করেছে তারা।

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles