4.6 C
Toronto
সোমবার, ডিসেম্বর ৫, ২০২২

মাংস খাওয়া পুরুষের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কে ‘না’!

মাংস খাওয়া পুরুষের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কে ‘না’!
প্রতীকী ছবি

উষ্ণায়ন এবং জলবায়ু পরিবর্তন থেকে পৃথিবীকে বাঁচাতে নারীদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানাল যুক্তরাস্ট্রভিত্তিক ‘পিপল ফর দ্য ইথিকাল ট্রিটমেন্ট অব অ্যানিম্যালস (পেটা) নামের একটি প্রতিষ্ঠান। প্রাণি অধিকার আদায়ের উদ্দেশে আন্দোলনকারী অলাভজনক এ প্রতিষ্ঠানটি নারীদের প্রতি অনুরোধ জানিয়ে বলেছে, ‘আপনার পুরুষ সঙ্গী মাংস খেলে তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করবেন না।’

সম্প্রতি নিউজ ইউকের মালিকানাধীন ব্রিটিশ ডিজিটাল রেডিও স্টেশন টাইমস রেডিওকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এমন আহ্বান জানান পেটা’র কর্মকর্তা ড. ক্যারিস বেনেট। এর পক্ষে তার দাবি, জলবায়ু বিপর্যয়ের জন্য নারীদের তুলনায় বেশি দায়ী পুরুষরা। সাম্প্রতিক এক সমীক্ষার রিপোর্ট তুলে ধরে তিনি বলেন, পুরুষরা নারীদের তুলনায় বেশি মাংস খান। যার প্রভাব সরাসরি পরিবেশের ওপর পড়ে। এ কারণেই বিশ্বকে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব থেকে রক্ষায় নারীদের উচিত ‘মাংস খাওয়া পুরুষের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক না করা’।

- Advertisement -

পেটা প্রকাশিত এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘পুরুষদের খাদ্যাভাসের কারণেই ৪১ শতাংশ অতিরিক্ত গ্রিন হাউস গ্যাস সৃষ্টি হয়। যে সব পুরুষ বিয়ারের সঙ্গে মাংস পুড়িয়ে খান, তারা শুধু পশুদেরই নয়, পরিবেশেরও ব্যাপক ক্ষতি করছেন।’

টাইমস রেডিওকে দেয়া সাক্ষাৎকারে ড. বেনেটের দাবি, ডায়েট পার্থক্যের কারণেই নারীদের তুলনায় বেশি কার্বন তৈরি করেন পুরুষরা। এ খাদ্যাভাসে পরিবর্তনের জন্যই নারীদের সাহায্য চেয়েছেন তিনি।

এদিকে পেটা’র এমন আহ্বানের জেরে বিতর্কও শুরু হয়েছে বিভিন্ন মহলে। বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যমে ‘শারীরিক সম্পর্ক কোনো হাতিয়ার নয়’ বলে মন্তব্য করেছেন অনেকে। কেউ কেউ আবার পেটা-কে ‘ভণ্ড’ বলেও আক্রমণ করেছেন।

দাবানল, অতিবৃষ্টি, বন্যাসহ নানা প্রাকৃতিক দুর্যোগে বিপর্যস্ত পৃথিবীর বিভিন্ন অঞ্চল। বিজ্ঞানীরা বলছেন, ক্রমশই দৃশ্যমান হচ্ছে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব।

সূত্র: এই সময়

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles