23.2 C
Toronto
শনিবার, জুন ২২, ২০২৪

‘মাথায় তিনটি সেলাই’- কি সামান্য কিছু!

‘মাথায় তিনটি সেলাই’- কি সামান্য কিছু!

ছাদখোলা বাসে বিজয়ীর বেশে রাজধানী শহরে নেমে মাথায় আঘাত পেয়েছেন ফুটবলার ঋতুপর্ণা চাকমা। পত্রিকাগুলো বলছে- তার মাথায় তিনটি সেলাই লেগেছে। ‘মাথায় তিনটি সেলাই’- কি সামান্য কিছু হতে পারে? ঋতুপর্ণা হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়ে বাফুফে অফিসে গিয়েছেন বিজয় উপভোগ করেছেন। বিজয়ের আবেগ আর উচ্ছ্বাসে ঋতুপর্ণা নিজেও হয়তো আঘাতের তীব্রতাকে ঝেড়ে ফেলেছিলেন।

- Advertisement -

ঋতুপর্ণা কীভাবে আঘাত পেলেন! পত্রিকার খবর থেকেই উদ্ধৃত করি। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বাফুফের (ঐ) কর্মকর্তা বলেন, ‘ফ্লাইওভারে ব্যানারের কাঠের কোনা বা ধাতব কিছু একটা ঋতুর কপালে লাগে। এতে তিনি বেশ আঘাতপ্রাপ্ত হন। কপাল থেকে তার রক্ত ঝরতে থাকে। এরপর গাড়ি থামিয়ে তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়। তার কপালে তিনটি সেলাই লেগেছে।’

এই তো হচ্ছে ঢাকা শহর। যে শহরে এখানে সেখানে, ফ্লাইওভারে, ঝুলতে তাকা নানা ব্যানার, ফেস্টুন, সাইনবোর্ড। ব্যানারের কাঠের কোনা বা ধাতব কিছুতে আহত হন বিজয়ী ফুটবলারও।

ও আচ্ছা, ফ্লাইওভারে ওই ব্যানারটা কাদের ছিল! কোনো কোম্পানির? কোনো রাজনৈতিক দলের? ব্যানারটা ওই পথে যাতায়াতকারীদের জন্য ঝুঁকিমুক্ত কী না- তা নিশ্চিত করার কোনো কর্তৃপক্ষ কি আছেন! ওই ব্যানারটা কি এখনো সেখানে আছে! কোনো সংবাদকর্মী সেদিকে নজর দেয়ার সম্ভবত সময় পাননি। কিন্তু নজর দেয়া দরকার ছিল।

নাগরিকদের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ কিছু তো কোনো পাবলিক প্লেসে থাকতে পারে না। সেটা ব্যানারই হোক বা অন্য কিছু।

লেখক: কানাডা প্রবাসী সাংবাদিক

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles