16.8 C
Toronto
মঙ্গলবার, মে ২৪, ২০২২

কোকেন খুঁজতে আমার যৌনাঙ্গে আঙুল ঢুকিয়ে দেয় জনি: অ্যাম্বার

- Advertisement -
কোকেন খুঁজতে আমার যৌনাঙ্গে আঙুল ঢুকিয়ে দেয় জনি: অ্যাম্বার
ছবি সংগৃহীত

অল্প দিনের দাম্পত্য। তাতেই অনেকখানি গার্হস্থ্য সহিংসতার ভাগ। মানহানির মামলার শুনানিতে হলিউড তারকা জনি ডেপ ও অ্যাম্বার হার্ডের সংসারের গোপন কাহিনি শুনে তাজ্জব আদালতও। বুধবারের শুনানিতে আদালতে এক ভয়ঙ্কর ঘটনার কথা তুলে ধরে কাঁদতে কাঁদতেই অ্যাম্বার জানিয়েছেন, তার পক্ষে দিনের পর দিন এত অত্যাচার সহ্য করে বিয়ে টিকিয়ে রাখা সম্ভব ছিল না।

২০১৮ সালের ডিসেম্বরে ওয়াশিংটন পোস্টে লেখা এক লেখায় নিজেকে গার্হস্থ্য হিংসার শিকার বলে দাবি করায় অ্যাম্বারের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করেন জনি। ৫ কোটি ডলার ক্ষতিপূরণও দাবি করেন। কিন্তু ওই লেখায় অ্যাম্বার জনি ডেপের নাম নেননি। এরপর প্রাক্তন স্বামীকে মিথ্যাবাদী বলে দাবি করে পাল্টা ১০ কোটি ডলার ক্ষতিপূরণ চেয়েছেন অ্যাম্বারও।

- Advertisement -

আদালতেই ফাঁস হয়েছে, অ্যাম্বারকে রীতিমতো মারধর করতেন জনি। একাধিকবার সপাটে চড়ও মেরেছেন অভিনেত্রীকে। পাল্টা আঘাত করেছেন অ্যাম্বারও। কিন্তু সাম্প্রতিক শুনানি প্রকাশ্যে আনল আরও ভয়ানক তথ্য। কাঁদতে কাঁদতে অ্যাম্বার জানালেন, তার যৌনাঙ্গে আঙুল ঢুকিয়ে যন্ত্রণা দিতেও দ্বিধা করেননি জনি!

ঠিক কী ঘটেছিল জনি-অ্যাম্বারের মধ্যে?

ঘটনার বিবরণ দিতে শুরু করে আদালতেই কান্নায় ভেঙে পড়েন অ্যাম্বার। শেষে তার পক্ষের সাক্ষী ফরেন্সিক সাইকোলজিস্ট ডন হিউগস খুলে বলেন পুরো ঘটনা। তিনিই জানান, মত্ত অবস্থায় পাগলের মতো কোকেন খুঁজছিলেন জনি। তখনই অ্যাম্বারের উপরে চড়াও হন। একটানে অ্যাম্বারের গাউন ছিঁড়ে মাদকের খোঁজে সরাসরি স্ত্রীর যৌনাঙ্গে আঙুল ঢুকিয়ে দেন হলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা! জনির ধারণা হয়েছিল, ওইখানেই কোকেন লুকিয়ে রেখেছেন অ্যাম্বার! যন্ত্রণায় ছটফট করছিলেন অভিনেত্রী। তবু জনির কোনও অনুশোচনা ছিল না বলেই দাবি অ্যাম্বারের।

২০১৫ সালে বিয়ে হয় জনি (৫৮) এবং অ্যাম্বারের (৩৬)। গার্হস্থ্য হিংসা, তুমুল অশান্তির দাম্পত্য পেরিয়ে ২০১৭ সালে বিবাহ বিচ্ছেদ। সম্প্রতি এক মানহানির মামলায় বেরিয়ে আসছে সেই সংসারের লুকোনো কাহিনি!

অ্যাম্বার জানান, ‘সে ছিল আমার জীবনের ভালোবাসা। কিন্তু বিয়ের পর থেকেই সে আমাকে সন্দেহ করতে শুরু করে। সে ভাবত আমি আমার সব পুরুষ বন্ধুর সঙ্গেই বিছানায় যাই। এমনকি আমি যখন প্রমাণ করতাম আমি এর সঙ্গে বিছানায় যাইনি বা ওর সঙ্গেও বিছানায় যাইনি। তখন সে বলতো আমি হয়তো অন্য কারো সঙ্গে বিছানায় যাই’।

তিনবার অস্কার পুরস্কারের জন্য মনোনীত জনি ডেপ এবং অ্যাম্বার হার্ড ২০০৯ সালে ‘দ্য রাম ডায়েরি’ ছবির সেটে পরস্পরের প্রেমে পড়েন। এরপর ২০১৫ সালের ফেব্রুয়ারিতে বিয়ে করেন। এর দুই বছর পরে তাদের বিবাহবিচ্ছেদ হয়ে যায়।

২০১৮ সালের ডিসেম্বরে অ্যাম্বার ওয়াশিংটন পোস্টে লেখা এক মতামত কলামে দাবি করেন তিনি স্বামীর হাতে নির্যাতনের শিকার হয়েছেন।

২০২০ সালে নভেম্বের তাকে ‘বউ পেটানো’ নায়ক বলায় জনি ডেপ ব্রিটেনের দ্য সান পত্রিকার বিরুদ্ধেও মামলা করেছিলেন। তবে সেই মামলায় হেরে যান জনি।

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles