21.7 C
Toronto
সোমবার, মে ২৯, ২০২৩

ফাঁসি এড়াতে ড্রাইভারের ছদ্মবেশে ২০ বছর, করেছেন বিয়েও

ফাঁসি এড়াতে ড্রাইভারের ছদ্মবেশে ২০ বছর, করেছেন বিয়েও - the Bengali Times

চট্টগ্রামের লোহাগাড়ায় আলোচিত ব্যবসায়ী জানে আলম হত্যা মামলার মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ২০ বছর ধরে পলাতক আসামি জসিম উদ্দিনকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)। এত বছর ধরে তিনি চালকের ছদ্মবেশে চট্টগ্রামের বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে বেড়িয়েছেন।
বৃহস্পতিবার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে চট্টগ্রাম নগরীর বন্দর থানার নিমতলা এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

- Advertisement -

শুক্রবার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন র‍্যাব-৭ এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মো. নুরুল আবছার।

তিনি বলেন, ২০০২ সালের ৩০ মার্চ পূর্বশত্রুতার জেরে জানে আলমকে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় নিহতের বড় ছেলে মো. তজবিরুল আলম বাদী হয়ে লোহাগাড়া থানায় ২১ জনকে আসামি করে মামলা করেন। জসিম উদ্দিন অন্যতম প্রধান আসামি। ২০০৭ সালের ২৪ জুলাই এ মামলায় ১২ জনকে মৃত্যুদণ্ড এবং ৮ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয় আদালত। পরে আসামিরা উচ্চ আদালতে আপিল করে। আপিলে জসিম উদ্দিনসহ ১০ জনকে মৃত্যুদণ্ড, দুইজনকে যাবজ্জীবন এবং বাকিদের খালাস দেওয়া হয়।

র‍্যাব কর্মকর্তা মো. নুরুল আবছার বলেন, জানে আলমকে হত্যার পর পরই জসিম উদ্দিন নগরীর কালুরঘাট এলাকায় বসবাস করে তিন বছর ধরে গাড়ি চালান। লোহাগাড়ায় নিজের পৈতৃক আবাস ছেড়ে এখানেই বসবাস শুরু করেন। একপর্যায়ে বোয়ালখালীতে বিয়েও করেন। এরপর নগরীর ডেবারপাড় বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস করেন ও গাড়িচালক হিসেবে পেশা অব্যাহত রাখেন। সেখান থেকে চলে এসে ফকিরহাটে বসবাস করেন সাত বছর। এই সময়েও তিনি গাড়িচালক হিসেবে কাজ করেন। এরপর নগরীর বন্দর এলাকায় বাসা নিয়ে গ্রেফতারের আগ পর্যন্ত বসবাস করে আসছিলেন। সবশেষ তিনি ট্রাকচালক হিসেবে কাজ করতেন।

তিনি আরো বলেন, ২০ বছর জসিম ট্রাকচালকের পেশায় নিজেকে আত্মগোপন করে রেখেছিল। ট্রাকচালকের লাইসেন্স ও অন্যান্য কাগজপত্র তৈরিতে তিনি ভুয়া জাতীয় পরিচয়পত্র ব্যবহার করতেন। জসিম তার পরিবার-পরিজন ও আত্মীয়-স্বজনের সঙ্গে সম্পূর্ণ যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন রাখে। যার কারণে তাকে কোনোভাবেই ব্যবসায়ী জানে আলমের হত্যা মামলার আসামি বলে শনাক্ত করা যাচ্ছিল না।

এ র‍্যাব কর্মকর্তা বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জসিম চট্টগ্রামের লোহাগড়ায় আলোচিত ও চাঞ্চল্যকর ব্যবসায়ী জানে আলম হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি বলে স্বীকার করেছেন।

এর আগে ২৭ জানুয়ারি একই মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত য়ারেক আসামি সৈয়দ আহম্মেদকে গ্রেফতার করে র‍্যাব।

সূত্র: ডেইলি বাংলাদেশ

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles