-4.6 C
Toronto
বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী ২৭, ২০২২

বিলি আইলিশের পর্নো আসক্তি, দোষ কি মা-বাবার!

- Advertisement -
বিলি আইলিশের অল্প বয়সে পর্নো দেখার বাজে অভিজ্ঞতার জন্য সাবেক পর্নো তারকা মেটল্যান্ড ওয়ার্ড গায়িকার মা-বাবাকে দায়ী করেছেন

বিলি আইলিশের অল্প বয়সে পর্নো দেখার বাজে অভিজ্ঞতার জন্য সাবেক পর্নো তারকা মেটল্যান্ড ওয়ার্ড গায়িকার মা-বাবাকে দায়ী করেছেন। এ মাসের শুরুর দিকে ২০ বছর বয়সী বিলি একটি রেডিও শোতে জানান, তিনি মাত্র ১১ বছর বয়সে পর্ন দেখা শুরু করেন এবং এটি তাঁর স্বাভাবিক ও যৌন জীবনকে মারাত্মকভাবে প্রভাবিত করে। আর ছোট্টবেলার সেই ভয়ানক অভিজ্ঞতার ফলে তাঁর ‘মস্তিষ্ক ধ্বংস’ হয় এবং এ কারণে এখন তিনি নিজের ওপর ক্ষুব্ধ ও বিরক্ত।

এর আগে তিনি সাবেক পর্নো তারকা র‌্যান্ডি স্পিয়ার্স বিলিকে সমর্থন করেন। তবে এবার মেটল্যান্ড গায়িকার মা-বাবার দিকে আঙুল তোলেন। অনেকে বলছেন, সাবেক এই পর্নো তারকা পর্নশিল্পের পক্ষে অবস্থান নিচ্ছেন।

- Advertisement -

তিনি টিএমজেডকে বলেন, “কেন সে ১১ বছর বয়সে ‘হিংসাত্মক’ পর্নো দেখছিল? কে তার ওপর নজর রাখছিল? তার জীবনে কি মা-বাবার কোনো অনুশাসন নেই? তার মা-বাবাকে দোষ দেওয়া উচিত। একটি শিশুর সেই বয়সে কখনোই পর্নো দেখা উচিত নয়।”

সাবেক বয় মিটস ওয়ার্ল্ড তারকা মেটল্যান্ড বলেন, ‘পর্নো মানুষের জন্য যৌনশিক্ষামূলক কিছু নয়। এটি প্রাপ্তবয়স্কদের বিনোদন। আমরা যা করি, তা পাগলামি। আমি মনে করি পর্নো এবং যৌনতা সম্পর্কে এ ধরনের মূল্যায়ন করার জন্য সে যথেষ্ট কম বয়সী।’

পর্ন বিলির মস্তিষ্ককে ‘ধ্বংস’ করে দিয়েছে—এ ব্যাপারে তাঁর মন্তব্য জানতে চাইলে মেটল্যান্ড বলেন, ‘আমি বলতে পারি না যে পর্নোশিল্প তার মস্তিষ্ককে ধ্বংস করেছে। প্রশ্ন হলো, অত অল্প বয়সে ওই ধরনের পরিস্থিতি সামলানোর জন্য সে যথেষ্ট সক্ষম ছিল কি না।’

উল্লেখ্য, সাম্প্রতিক সময়ের সেনসেশনাল মিউজিক্যাল ট্যালেন্ট বিলি আইলিশ হাওয়ার্ড স্টার্নের একটি সাক্ষাৎকারে পর্ন সম্পর্কে তাঁর চিন্তাভাবনা তুলে ধরেছিলেন। সেখানে তিনি বলেন,’ একজন নারী হিসেবে আমি মনে করি, পর্নো একটি অপমানজনক বিষয়। আমি অনেক পর্ন দেখতাম। সত্যি কথা বলতে, আমি ১১ বছর বয়সে পর্ন দেখা শুরু করি। আমি মনে করি, এটি সত্যিই আমার মস্তিষ্ককে ধ্বংস করে দিয়েছে। আমি এত বেশি পর্নো দেখেছি যে আমি অবিশ্বাস্য রকম বিধ্বস্ত বোধ করছি।’

তিনি স্মরণ করেন, কিভাবে তিনি প্রথম কয়েকবার সেক্স করেছিলেন। তিনি বলেন, ‘সেসব মোটেও ভালো ছিল না। এটি ঘটেছিল কারণ আমি ভেবেছিলাম যে এটির প্রতি আমার আকৃষ্ট হওয়ার কথা ছিল।’ বিলিও বিশ্বাস করেন, প্রাপ্তবয়স্কদের বিষয়বস্তু তাঁর ঘুমের ব্যাঘাত এবং দুঃস্বপ্নের অভিজ্ঞতার জন্য দায়ী।

তাঁর এই মন্তব্যগুলোর প্রসঙ্গ তুলে আরেক সাবেক পর্নো অভিনেতা ও পরিচালক র‌্যান্ডি স্পিয়ার্স সম্প্রতি টিএমজেডকে বলেন, ছোট মস্তিষ্কের হার্ডকোর পর্নো হজম করার ক্ষমতা থাকে না। এটা বেশ ঘৃণ্য জিনিস। তারা অত অল্প বয়সে এটা মেনে নেবে না যে এক নারী একাধিক পুরুষের সঙ্গে কিছু একটা করছে, যা অস্বাভাবিক।

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles