4.2 C
Toronto
শনিবার, অক্টোবর ২৩, ২০২১

নেগেটিভ চিন্তাকে পজেটিভ চিন্তা দিয়ে প্রতিস্থাপন

পজেটিভ চিন্তা দিয়ে প্রতিস্থাপন

আপনার পরিচিত কারো আনন্দ বা সুখ দেখে আপনার মনে যদি এক ধরনের জ্বলুনি বা হিংসা হয় তাহলে বুঝতে হবে আপনার মধ্যে সমস্যা আছে।

এই রোগ একটি মারাত্নক রোগ। আপনার অনেক গুলি অশান্তির অন্যতম কারন এই রোগ। যতদিন আপনার এই রোগ সারাতে না পারবেন ততদিন আপনার এই কঠিন অশান্তি মন থেকে যাবে না।

আপনি নিজের মনেই প্রশ্ন করে দেখতে পারেন আপনার এই ধরনের জ্বলুনির অস্তিত্ব আপনার মনে আছে কিনা। নিজেই নিজেকে প্রশ্ন করে দেখতে পারেন আপনি কারো আনন্দ বা সুখে জ্বালা অনুভব করেন কিনা। প্রশ্নের উত্তর ‘হ্যা’ হলে আপনার মধ্যে বড় ধরনের সমস্যা আছে।

এই ধরনের রোগ প্রকৃত অর্থে ভালো ফলাফল নিয়ে আসে না কখনই। এটি নিজের অশান্তির যেমন কারন হয় তেমনি অন্যের ক্ষতিরও কারন হয়।

প্রকৃত অর্থে অন্যের আনন্দ এবং সুখে আপনারও আনন্দ হবার কথা। অন্যের আনন্দে আপনিও আনন্দিত হলে বুঝবেন আপনার মনে এই রোগের অস্তিত্ব নেই। এমনটি হলে আপনি একটি বড় ধরনের অশান্তি থেকে মুক্তি পাবেন।

যদি কারো এই রোগ হয়ে থাকে তবে তার থেকে মুক্তির উপায় কি?

মুক্তির উপায় হচ্ছে, নিজের মনে যে নেগেটিভ অনুভূতি আছে তাকে পজেটিভ অনুভূতি দিয়ে প্রতিস্থাপন করার চেষ্টা করতে হবে। নিজেকেই বার বার বলতে হবে আমি অন্যের আনন্দে আনন্দিত হবো, অন্যের সুখে আমিও ভালো বোধ করবো। নিজেকেই বুঝাতে হবে, অন্যের আনন্দে হিংসা বোধ আখেরে কোন ভালো ফলাফল বয়ে আনবে না বরং অনেক ক্ষতির কারন হতে পারে। এর কারনে অন্যের সংগে সম্পর্কের অবনতি হওয়া ছাড়াও যে কোন সম্পর্ক বজায় রাখার ক্ষেত্রে বড় ধরনের বাধা হয়ে দেখা দিতে পারে।

আমার মধ্যেও যদি এর অস্তিত্ব থেকে থাকে তবে আমি বুঝবো আমার মধ্যেও সমস্যা আছে। আমি নিজেই নিজেকে প্রশ্ন করে জানার চেষ্টা করবো, এতে আমার লাভ কি? আমি জানি এর উত্তর আবশ্যই আসবে, এতে এক বিন্দু পরিমান লাভ নেই বরং ক্ষতি।

কথায় আছে না,

“মনে হিংসার চাষ

অশান্তি বার মাস”

আমার মতে মানুষ চেষ্টা করলে এর থেকে বের হয়ে আসতে পারে। মন্দকে ভালো দিয়ে, নেগেটিভ চিন্তাকে পজেটিভ চিন্তা দিয়ে প্রতিস্থাপন করা সম্ভব।

টরন্টো, কানাডা

- Advertisement - Visit the MDN site

Related Articles

- Advertisement - Visit the MDN site

Latest Articles