25.1 C
Toronto
শনিবার, জুন ২৫, ২০২২

‘কাঁচা বাদাম’ খ্যাত ভুবন কিডন্যাপের ভয়ে থানায়

- Advertisement -
‘কাঁচা বাদাম’ খ্যাত ভুবন কিডন্যাপের ভয়ে থানায় - The Bengali Times
সেলিব্রেটি না হলেও রীতিমতো ‘ভাইরাল সেলিব্রেটি’ ভুবন বাদ্যকর

সেলিব্রেটি না হলেও রীতিমতো ‘ভাইরাল সেলিব্রেটি’ ভুবন বাদ্যকর। তার সৃষ্টি গান যে এখন বাঙালির মুখে মুখে। তার গাওয়া গানের নাম ‘কাঁচা বাদাম’।

ভুবন বাদাম বিক্রি করেন, ভাজা বাদাম নয়, কাঁচা বাদাম। ভাজা বাদামের অপকারিতা আর কাঁচা বাদামের উপকারিতা নিয়ে একটি গান বেঁধেছেন তিনি। এই গানের কথা যুক্ত হয়েছে টাকা ছাড়াও কিসের বিনিময়ে বাদাম বিক্রি করেন, যেমন ভাঙা মোবাইল, সিটি গোল্ডের পুরনো জিনিস, মাথার চুল ইত্যাদি। গানের কথায় এসব আর অদ্ভুত সুর তরুণরা ইন্টারনেটে পাওয়া মাত্রই লুফে নেয়।

এতে নতুন বিড়ম্বনায় পড়েছেন ভুবন বাদ্যকর। বীরভূমের দুবরাজপুর ব্লকের অন্তর্গত লক্ষ্মীনারায়ণপুর পঞ্চায়েতের কুড়ালজুড়ি গ্রামের বাসিন্দা তিনি। এখন প্রতিনিয়ত অসংখ্য ভক্ত, ইউটিউবার আসছে তার কাছে। তুলতে চাইছে ছবি। জানতে চাইছে তার সম্পর্কে। ‘খ্যাতির বিড়ম্বনায়’ পড়ে এবার হেলমেট মাথায় দিয়ে থানায় উপস্থিন ভুবন বাদ্যকর। এমনটাই জানিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম আনন্দ বাজার।

আনন্দ বাজার বলছে, থানায় পুলিশের কাছে অভিযোগ করতে যান ভুবন। ভুবনের অভিযোগ, এই গান নেচে-গেয়ে অনেকেই লক্ষ লক্ষ রোজগার করে ফেলছেন। কিন্তু তাঁর হাত খালি। তাই নিয়ে দুবরাজপুর থানায় নালিশ জানালেন ‘বাদাম-গান’-এর স্রষ্টা ভুবন।

ভুবনের দাবি, তাঁর গান ইতিমধ্যেই ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। নেটমাধ্যমে সেই গান আপলোড করে প্রচুর টাকা রোজগার করছেন অনেকে। সে কারণেই পুলিশের দ্বারস্থ তিনি। ভুবন বলেন, ‘‘গানটি ভাইরাল হওয়ার পর প্রচুর মানুষ বাড়িতে ভিড় করছেন। সকলেই আমার গান ভিডিয়ো করতে চান। তার পর সেই গান নেটমাধ্যমে ছেড়ে অনেক টাকা আয়ও করছেন। অথচ আমার হাত খালি।’’ ইউটিউবে তাঁর গানের স্বত্ব ‘সংরক্ষিত’ হিসাবে দেখাচ্ছে। অথচ ভুবন বলছেন, ‘‘আমার কোনও ইউটিউব অ্যাকাউন্টই নেই!’’ ভুবনের দাবি, পুলিশ-প্রশাসন তদন্ত করে প্রাপ্য টাকা তাঁকে পাইয়ে দিক।

অন্য দিকে, গান জনপ্রিয় হওয়ায় রীতিমতো খ্যাতির বিড়ম্বনায় পড়ে গিয়েছেন বাদাম বিক্রেতা ভুবন। রাতারাতি তারকার মর্যাদা পাচ্ছেন। রাস্তায় বেরোলেই অনেকেই ছুটে এসে ছবি তোলার আবদার করছেন। তাতেই বেজায় ভয় পেয়ে গিয়েছেন ভুবন। এই কারণে শুক্রবার থানায় যাওয়ার সময় মাথায় হেলমেট পরে বাড়ি থেকে বেরোন তিনি। যাতে কেউ চিনতে না পারেন। ভুবনের সন্দেহ, কেউ তাঁকে অপহরণ করতে পারে। থানায় পৌঁছেও জনপ্রিয়তার মাসুল গুনতে হয়েছে তাঁকে। সেখানেও অনেকেই ভুবনকে চিনতে পেরে ছবি তোলার আবদার করেন। হাসিমুখে অবশ্য সে আবদার মেটান ভুবন বাদ্যকর।

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles