প্রেমিককে বাড়িতে ডেকে এনে খুন!

- Advertisement -
ছবি সংগ্রহ

প্রেমিককে বাড়িতে ডেকে এনে রড দিয়ে পিটিয়ে খুন করার অভিযোগ উঠেছে প্রেমিকার বাড়ির লোকেদের বিরুদ্ধে। খুনের ঘটনায় মূল অভিযুক্ত প্রেমিকার বাবা সঞ্জয় মণ্ডল সহ তার পরিবারের লোকেদের বিরুদ্ধে পুলিশে অভিযোগ জানিয়েছে মৃতের পরিবার। যদিও ঘটনার পর থেকেই পলাতক অভিযুক্ত প্রেমিকার পরিবার।

ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিমবঙ্গের ইংরেজবাজার থানার নরহাটটা গ্রাম পঞ্চায়েতের লক্ষ্মীপুর গ্রামে।

- Advertisement -

জানা গেছে, সোমবার (২২ নভেম্বর) রাতে ওই যুবককে ফোন করে ডাকেন প্রেমিকার বাবা সঞ্জয় মন্ডল। এরপর মঙ্গলবার সকালে মৃতের বাড়ি থেকে ৩ কিলোমিটার দূরে একটি আম বাগানের পরিত্যক্ত জায়গায় ওই যুবকের মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয় কিছু মানুষ। পরে পুলিশ এসে মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মালদা মেডিকেল কলেজে পাঠায়।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃত যুবকের নাম টোটন মন্ডল (২১)। প্রতিবেশী এক যুবতীর সাথে গত চার বছর আগে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন টোটন। গ্রামের অধিকাংশ মানুষই তাদের সম্পর্কের কথা জানত। তবে এই সম্পর্ক মেনে নেয়নি মেয়ের বাবা সঞ্জয় মন্ডল। মেয়ের বাড়িতে বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর থেকেই ওই তরুণীর পরিবারের লোকেরা টোটনকে প্রাণে মারার হুমকি দিতে থাকে বলে অভিযোগ। প্রেমিকার বাড়ির পক্ষ থেকে খুনের হুমকি পেয়ে একমাস আগে থানায় একটি অভিযোগও দায়ের করেছিলেন টোটন।

- Advertisement -

অভিযোগ করেছিলেন যে গত কয়েকদিন ধরে লাগাতার টোটনকে মেয়ের বাবা সহ পরিবারের লোকেরা প্রাণে মারার হুমকি দিয়ে আসছিল। সেইজন্য ভয়ে বাড়ি ছাড়াও ছিল টোটন।
মৃতের পরিবার জানিয়েছে, সোমবার গভীর রাতে প্রেমিকার বাবা টোটনকে তাদের বাড়িতে ডেকে পাঠান। তারপর থেকেই টোটনের মোবাইল ফোন বন্ধ। মঙ্গলবার (২৩ নভেম্বর) সকালে গ্রামের একটি আম বাগানের জঙ্গল থেকে দেহ উদ্ধার হয়। দেহে একাধিক আঘাতের চিহ্ন ছিল। গলায় ফাঁস দেওয়া অবস্থায় ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়। মৃত যুবকের পরিবারের অভিযোগ, যুবতীর বাড়ির লোকেরা টোটনকে পিটিয়ে খুন করে আমবাগানে ঝুলিয়ে দিয়েছিল। এই ঘটনায় দেহ উদ্ধারের পর তদন্তে নেমেছে ইংরেজবাজার থানার পুলিশ।

- Advertisement -

সূত্র: জি২৪ ঘণ্টা।

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles