22.1 C
Toronto
সোমবার, মে ২০, ২০২৪

অমিত শাহ হবেন প্রধানমন্ত্রী, জেলে যাবেন মমতা : কেজরিওয়াল

অমিত শাহ হবেন প্রধানমন্ত্রী, জেলে যাবেন মমতা : কেজরিওয়াল
বক্তব্য দেন অরবিন্দ কেজরিওয়াল

তৃতীয়বারের জন্য প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নরেন্দ্র মোদি ক্ষমতায় এলে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মতো বিরোধী নেতানেত্রীরা জেলে যাবেন। শুধু বিরোধী নেতৃত্ব নয়, নিজের দলের যোগী আদিত্যনাথের মতো নেতাকেও শেষ করে দেবেন মোদি-শাহ জুটি।

দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল এসব কথা বলেছেন। দিল্লির মুখ্যমন্ত্রীর অভিমত, হয়ত বিজেপি জয় পেতে পারে। তবে বিজেপি জিতলেও মোদি হবেন এক বছরের প্রধানমন্ত্রী। পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হবেন অমিত শাহ। মোদি যে ভোট চাইছেন তা অমিত শাহর জন্য।

- Advertisement -

তিহার জেল থেকে অন্তর্বর্তী জামিনে মুক্তি পেয়েছেন অরবিন্দ কেজরিওয়াল। ১ জুন ভোট শেষ হলেই ২ জুন তাকে জেলে ফিরে যেতে হবে। তবে তার আগে শনিবার স্ত্রী সুনীতা কেজরিওয়ালকে নিয়ে প্রথম প্রচারে বের হন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী। এ দিন সকালে দিল্লির কনাট প্লেসের হনুমান মন্দির, তারপর নবগ্রহ মন্দিরে পূজা দিয়ে একটি রোড শো করেন। তারপর একটি সংবাদ সম্মেলনে এসব মন্তব্য করেছেন কেজরিওয়াল।

দিল্লির মুখ্যমন্ত্রীর দাবি, বিজেপি এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি কেবল বিরোধী নেতৃত্বকে জেলে ভরবেন তাই নয়, নিজের দলের নেতাদেরও শেষ করে দেবেন। তার দাবি, ভোট শেষ হলেই তার দলের উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ, আসামের হিমন্ত বিশ্বশর্মার মতো নেতাদের ধুলোয় মিশিয়ে দেবেন মোদি। এমন মিশন তৈরি করেছে। সেই মিশনের নাম ‘ওয়ান নেশন ওয়ান লিডার’(এক দেশ এক নেতা)।

কেজরিওয়ালের দাবি, মোদি এক দেশ, এক নেতা অভিযান শুরু করেছেন। আর সে কারণে যোগী আদিত্যনাথের মতো নেতারও রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ শেষ হতে চলেছে। দলের প্রবীণ নেতা লালকৃষ্ণ আদবানি, মুরলিমনোহর জোশি, শিবরাজ সিং চৌহান, বসুন্ধরা রাজে, মনোহরলাল খট্টর, রমন সিংকে তিনি (মোদি) শেষ করে দিয়েছেন। এরপরের পালা যোগীদের। মোদি ক্ষমতায় এলে, দুই মাসের মধ্যে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী বদল করে দেবেন।

তিনি বলেন, শুধু নিজের দলের মুখ্যমন্ত্রী নয়, সব বিরোধী দলনেতা যেমন পশ্চিমবঙ্গের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, তামিলনাড়ুর এমকে স্ট্যালিন, বিহারের তেজস্বী যাদব, কেরালার পিনারাই বিজয়ন, মহারাষ্ট্রের উদ্ধব ঠাকরের মতো বিরোধী নেতাদের জেলে ভরা শুরু হবে। ওরা (বিজেপি) ক্ষমতায় এলে কোনো বিরোধী দলের নেতা জেলের বাইরে থাকবেন না। জেলে ভরে সকলকে শেষ করে দেবেন মোদি।

মোদি-শাহ জুটিকে আক্রমণ করে কেজরিওয়াল আরও বলেন, আপনারা দেখেছেন কীভাবে এই দুজন বিজেপির ভেতরেই একনায়কতন্ত্র গড়ে তুলেছেন। ভোটের আগে নিজেদেরই কতজন মুখ্যমন্ত্রীর চেয়ার কেড়ে নিয়েছেন। যাতে তারা আর কোনোদিন উড়তে না পারেন, তার জন্য তাদের ডানা ছেঁটে ফেলা হয়েছে।

সাংবাদিকদের উদ্দেশে কেজরিওয়াল বলেন, আপনারা ভাবছেন বিজেপি বিরোধী ইন্ডিয়া জোটের প্রধানমন্ত্রী কে হবেন? কিন্তু আমার প্রশ্ন, বিজেপির প্রধানমন্ত্রী কে হবেন? তার দাবি, বিজেপি এবার সরকার গঠন করলেও আগামী বছর অবসর নেবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। কারণ আগামী বছর মোদির ৭৫ বছর বয়স হয়ে যাবে। বিজেপির নিয়ম অনুযায়ী, কারও ৭৫ বছর বয়স হয়ে গেলে তিনি দল থেকে অবসর নেন।

যে কারণে একই নিয়মে লালকৃষ্ণ আদবানি, মুরলি মনোহর যোশী, সুমিত্রা মহাজন, যশবন্ত সিনহা সবাই অবসর নিয়েছেন। আগামী বছর ১৭ সেপ্টেম্বর মোদিও অবসর নেবেন। তখন কে হবেন প্রধানমন্ত্রী? এ বিষয়ে কেজরিওয়ালের অভিমত, আমি নিশ্চিত এরপর অমিত শাহকে প্রধানমন্ত্রী করা হবে। সুতরাং, মোদি নিজের জন্য নয়, অমিত শাহের জন্য এবার ভোট চাইছেন।

জেলে থাকলেও মুখ্যমন্ত্রী পদ থেকে ইস্তফা না দেওয়ার যুক্তি হিসেবে কেজরিওয়াল বলেন, আমাকে চক্রান্ত করে ফাঁসিয়ে জেলে ভরা হয়েছে। এই কারণেই আমি পদত্যাগ করিনি। আমি মুখ্যমন্ত্রী বা প্রধানমন্ত্রী হতে আসিনি। আসলে ওরা জানে আম আদমি পার্টিকে কোনোদিন হারাতে পারবে না। তাই ষড়যন্ত্র করা হয়েছে। কিন্তু আমরা ওদের ফাঁদে পা দিইনি। তাই আজ ভগবানের আশীর্বাদে আপনাদের সামনে বসে আছি।

দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী আরও বলেন, আমাদের দেশ অনেক প্রাচীন। যখনই কোনো একনায়ক ভারত দখলের চেষ্টা করেছে, তখনই দেশবাসী তার মূল উপড়ে ফেলেছে। আজ ফের একজন (মোদি) গণতন্ত্রকে শেষ করতে চাইছেন। আমি তাই ১৪০ কোটি মানুষের কাছে ভোট ভিক্ষা করতে এসেছি।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles