13.7 C
Toronto
মঙ্গলবার, এপ্রিল ১৬, ২০২৪

কেউই বেঁচে রইলো না প্রবাসী মোবারকের পরিবারের

কেউই বেঁচে রইলো না প্রবাসী মোবারকের পরিবারের
সংগৃহীত ছবি

রাজধানীর বেইলি রোডের ছয়তলা ভবনে অন্যদের মতোই খেতে এসেছিলেন ইতালি প্রবাসী সৈয়দ মোবারক হোসেন। সঙ্গে এসেছিল তার পরিবারের অন্য সদস্যরাও। কিন্তু সুস্থ শরীরে ফিরতে পারেনি তারা। আগুন কেড়ে নিয়েছে তার পরিবারের সবার প্রাণ। মারা গেছেন ৫ জন।

নিহতরা হলেন— সৈয়দ মোবারক (৪২), তার স্ত্রী স্বপ্না (৩৮), মেয়ে সৈয়দা তাশফি (১৭), মেয়ে সৈয়দা নূর (১৫) ও ছেলে সৈয়দ আব্দুল্লাহ।

- Advertisement -

বেইলি রোডের আগুনে নিভল দুই বুয়েট শিক্ষার্থীর প্রাণবেইলি রোডের আগুনে নিভল দুই বুয়েট শিক্ষার্থীর প্রাণ

মাসখানেক আগে ইতালি থেকে দেশে এসেছিলেন প্রবাসী সৈয়দ মোবারক হোসেন। ইতালিতে ব্যবসা করতেন তিনি। স্থায়ীভাবে থাকার সুযোগ পেয়েছেন। স্ত্রী ও সন্তানদের সেখানে নিয়ে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। ভিসাও হয়ে গিয়েছিল সবার। এক মাসের মধ্যে ইতালি যাওয়ার কথা ছিল মোবারকের। কিন্তু আগুন তার সেই স্বপ্ন নিভিয়ে দিলো।

প্রবাসী মোবারকের গ্রামের বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার শাহবাজপুর গ্রামে। তিনি ঢাকার মগবাজার এলাকায় থাকতেন।

আগুনে পুড়ে মুহূর্তেই শেষ পরিবারগুলোআগুনে পুড়ে মুহূর্তেই শেষ পরিবারগুলো
প্রবাসী মোবারকসহ তার পরিবারের পাঁচজন নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মোবারকের চাচাতো ভাই সৈয়দ ফয়সাল। তিনি বলেন, রাত ৮টার দিকে সৈয়দ মোবারক তার স্ত্রী স্বপ্নাসহ ছেলেমেয়েদের নিয়ে বাসা থেকে বের হন। সেই সময় জানিয়েছিলেন তারা ‘কাচ্চি ভাই’ নামের একটি রেস্টুরেন্টে খেতে যাচ্ছেন। তারা সেখানে পৌঁছানও। কিন্তু আগুন লাগার পর থেকে তাদের খোঁজ মিলছিল না। এতে তারা সবাই মারা যান বলে ধারণা তার। পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে তাদের লাশ মেলে। তিনি আরও বলেন, মোবারকের এক মাসের মধ্যে ইতালি যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু তার আর যাওয়া হলো না।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles