7.8 C
Toronto
বুধবার, এপ্রিল ১৭, ২০২৪

ছোট্ট ভুলে নাকচ হয়ে গেল ৯ কোটি টাকার বিমার দাবি!

ছোট্ট ভুলে নাকচ হয়ে গেল ৯ কোটি টাকার বিমার দাবি!

সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হওয়ায় সাড়ে ৬ লাখ পাউন্ডের (বাংলাদেশি মুদ্রায় ৯ কোটি ৫ লাখ টাকা) বিমার দাবি করেছিলেন আয়ারল্যান্ডের এক নারী। সেটা পেয়ে যাওয়ার বেশ ভালো সম্ভাবনাও ছিল তার। তবে এর মধ্যে এমন একটি কাণ্ড ঘটে গেল যাতে পুরো বিষয়টাই কেচে গিয়েছে।

- Advertisement -

ক্রিসমাস ট্রি-নিক্ষেপ প্রতিযোগিতায় জয়ী হওয়ার পর কামিলা গ্রাবস্কা নামের ওই নারীর ছবি ছাপা হয়েছিল। আর ওই ছবির কারণেই আয়ারল্যান্ডে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হওয়া ওই নারীর ৬ লাখ ৫০ হাজার ডলারের বিমা দাবি আমলে না নেয়ার সিদ্ধান্ত নেন আইরিশ আদালত।

৩৬ বছর বয়স্ক কামিলা গ্রাবস্কা একটি বিমা কোম্পানির বিরুদ্ধে মামলা করেন। তিনি বলেন, তার পিঠে এবং ঘাড়ে আঘাতের কারণে পাঁচ বছরের বেশি সময় ধরে কাজ করতে বা সন্তানদের সঙ্গে খেলাধুলা করতে পারছেন না। তিনি দাবি করেন, ২০১৭ সালে তিনি যে গাড়িতে ভ্রমণ করছিলেন সেটিকে পেছন থেকে ধাক্কা দেওয়ার পরে তার এ সমস্যা দেখা দেয়।

তবে লিমেরিকের হাইকোর্টের এক বিচারক তার দাবিটি নাকচ করে দিয়েছেন। কারণ সম্প্রতি আলোর মুখ দেখা একটি আলোকচিত্রে গ্রাবস্কাকে ২০১৮ সালের জানুয়ারির এক অনুষ্ঠানে একটি ৫ ফুট লম্বা স্প্রুস গাছকে ছুড়ে মারতে দেখা যায়।

ছবিটি একটি জাতীয় সংবাদপত্রে প্রকাশিত হয়েছিল। ওই সময়ই গ্রাবস্কা দাবি করছিলেন, তিনি এখনো তার আঘাতের কারণে ভুগছেন। ছবিটিতে যে চিত্র ফুটে উঠেছে তার কারণে ওই নারীর দাবি খারিজ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া সহজ হয় বিচারপতি কারমেল স্টুয়ার্টের জন্য।

কামিলা গ্রাবস্কা ২০১৮ কো ক্লেয়ারের এনিসোয় ক্রিসমাস গাছ ছুড়ে মারার প্রতিযোগিতায় নারীদের বিভাগে বিজয়ী হন। আইরিশ ইন্ডিপেনডেন্ট পত্রিকা জানিয়েছে বিচারক আদালতে বলেন, ‘এটি একটি খুব বড়, প্রাকৃতিক ক্রিসমাস ট্রি এবং জিনিসটি খুব সাবলীলভাবে নিক্ষেপ করা করা হয়েছিল।’

‘আমার ধারণা দাবিগুলো সম্পূর্ণরূপে অতিরঞ্জিত ছিল বলে উপসংহারে পৌঁছাতে পেরেছি। সেই ভিত্তিতে, আমি দাবি খারিজ করার প্রস্তাব করছি।’ বলেন বিচারক।

আদালতকে আগে বলা হয়েছিল যে দুই সন্তানের জননী ওই নারী কো ক্লেয়ার ক্রিসমাস ট্রি-নিক্ষেপ প্রতিযোগিতায় জয়ী হওয়ার কয়েক দিন পরে চিকিৎসকদের সঙ্গে কথা বলেছিলেন।

কামিলা গ্রাবস্কা দাবি করেন, তার পক্ষে ভারী ব্যাগ তোলা কষ্টকর হয়ে পড়েছে। গ্রাবস্কা তার চাকরি ছেড়ে দেন এবং অসুস্থজনিত কারণে এটি ছাড়ায় অর্থ পান।

অতীত এবং ভবিষ্যতের উপার্জন করতে না পারার জন্য ক্ষতিপূরণ চেয়ে বিমা কোম্পানির বিরুদ্ধে আইনি লড়াইয়ে নামেন তিনি। গ্রাবস্কা বলেন, মাঝে মাঝে অর্ধেক দিন পর্যন্ত বিছানা ছেড়ে উঠতে পারেন না তিনি। স্বামীকে তার ওষুধ আনতে হয়।

তবে কামিলা গ্রাবস্কা আঘাতের বিষয়ে মিথ্যা দাবির বিষয়টি অস্বীকার করে আদালতকে বলেন তিনি ‘একটি স্বাভাবিক জীবনযাপন করার চেষ্টা করছেন’। ছবিতে খুশি দেখালেও এখনো ব্যথায় ভুগছেন।

আদালত ক্রিসমাস ট্রি প্রতিযোগিতার ছবি ছাড়াও একটি পার্কে নিজের কুকুরকে এক ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে প্রশিক্ষণ দেওয়ার একটি ভিডিও দেখেন।

বিচারক শেষ পর্যন্ত তার মামলা খারিজ করে দেন। রায়ে বলা হয়, সংঘর্ষের পরে গ্রাবস্কার আচরণ তার আঘাতের বিষয়ে করা দাবির সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়।

সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles