20.9 C
Toronto
মঙ্গলবার, জুলাই ১৬, ২০২৪

হাঁটতে হাঁটতে সময়

হাঁটতে হাঁটতে সময়

সকালের নামাজ পড়ে প্রতিদিন হাটতে বের হই। গরম, শরৎ বা বসন্তের সময় বাইরেই যাই, তবে ঠান্ডায় যখন বাইরে যাওয়া যায় না তখন এপার্টমেন্টের নিচে জিমেই যেতে হয়।

- Advertisement -

ওখানে বিল্ডিংয়ের অনেকের সাথেই দেখা হয়, মাঝে মাঝে কথা হয়। নিচের ছবির ভদ্রমহিলা প্রতিদিনিই আসেন এবং খুব সকালে। হাই-হেলো হলেও বেশি কথা হয় না, কিন্তু আজকে বেশ কিছু কথা হলো। আমরা আমাদের পেশা, পরিবার, শখ, সংস্কৃতি ইত্যাদি নিয়ে কথা বলি। আমি মনে করেছিলাম আমি উনার থেকে অনেক ব্যস্ত, কিন্তু দেখা গেলো Retired হওয়া সত্ত্বেও উনি আমার থেকেও অনেক ব্যস্ত, এবং উনার এই ব্যস্ততা উনি নিজেই বেছে নিয়েছেন, এবং সে জন্য উনি সুখী, বললেন।

উনার বয়স ৭৭ এ চলেছে। ওই একই গতিতে পুরা এক ঘন্টা হাঁটেন।

হাঁটার পরে যান চার্চে, তারপর যান ভোলেনটারি করতে। তার পর বাসায় ফিরে খাবার দাবার প্রস্তুত, বিকালে আবার নাতনিকে স্কুল থেকে আনা, মাঝেমাঝে লেখালেখি করেন, সপ্তাহে দুইদিন একটি Salvation Armyতে ভলান্টারী করেন। উনার স্বামী অসুস্থ, তাকে উনিই দেখাশোনা করেন, মাঝে মাঝে ডাক্তারের এপয়েন্টমেন্ট নিয়ে যান। তার খাওয়া-দাওয়া ওষুধপত্র উনিই দেখেন। শুধু পড়া লেখার সময় চশমা ব্যবহার ছাড়া তেমন কোনো কঠিন শাররীক সমস্যা নেই। ৬৫ বছর চাকরি করেছেন বেসরকারি একটি প্রতিষ্ঠানে। লালনপালন করেছেন ৩ টি সন্তানকে।

আমি জিজ্ঞেস করেছিলাম প্রতিদিন সকালে উঠতে কষ্ট হয় না? উনি বলেছিলেন কষ্ট হয় বৈকি, কিন্তু সেই কষ্টর থেকে সুস্থ আছি এইটা বেশি ভালো। বয়সজনিত টুকিটাকি কিছু সমস্যা থাকলেও বড়সড় তেমন কিছু নেই, কিন্তু আমার বয়োসী অনেকেরই অনেক সমস্যা আছে এবং তাদের দৈনন্দিন জীবন অনেক কষ্টের, উনি বলেন।
উনার ইনকামের কথা বললে, বললেন পেনশনের টাকা দিয়ে চেক টূ চেক চলে যায়, তবে ইদানিং একটু টানাটানি হয় তবে কমপ্লেইন নেই।

” I am doing my part, the Almighty will decide where will I go” এভাবেই কথা শেষ হলো। বেশ Inspired হলাম।
ছবি তুলতে চাইলে বললেন, ফেস না নিয়ে পাস্ থেকে তোলো। সেভাবেই তুলেছি।
আসলে “শরীরে নাম মহাশয়, যাহা সাহাবা তাহাই সহিবে” .এই রকমইতো? মুরুব্বিরা বলতেন। ঠিকই বলতেন, তবে

শরীর জাস্ট একটা Instrument মাত্র, আপনি চাইলে ব্যবহার হবে, না চাইলে ব্যবহার হবে না। তাই প্রথম কাজ হলো মনকে ট্রেইন করা, তারপর আপনার Instrument চেক করে তাকে যেভাবে চাঁন সেভাবে ব্যবহার করতে পারেন। আমরা সব সময় ঠিক সেটা করি না, মনে চলে ডান দিকে আর আমরা শরীরকে চালাই বাম দিকে।
অনেক অনেক ভাবে পরীক্ষিত, আপনি রেগুলার সকালে উঠলে, কিছুটা হালকা শরীর চর্চা এবং আপনার পছন্দমতো কিছুটা Spiritual Practice করলে আপনি অনেক অসুখ-বিসুখ থেকে দূরে থাকবেন এবং আপনার মন অনেক ভালো থাকবে, দিনভর ভালো Energy পাবেন।

স্কারবোরো, কানাডা

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles