16.1 C
Toronto
বৃহস্পতিবার, মে ২৩, ২০২৪

চুরির টাকা এক যুগ পর ফেরত, ক্ষমা প্রার্থনা

চুরির টাকা এক যুগ পর ফেরত, ক্ষমা প্রার্থনা
প্রতীকী ছবি

এক যুগেরও বেশি সময় আগে দোকান থেকে চুরি করা টাকা গোপনে টাকার মালিককে ফেরত দিয়েছেন এক ব্যক্তি। একটি খামে ভরে চুরির ৩ হাজার টাকা ও একটি চিরকুট লিখে রেখে যান দোকানের শাটারের নিচে। নিজের পরিচয় গোপন রেখে চিরকুটের মাধ্যমে ক্ষমাও চান ওই ব্যক্তি।

বুধবার সকালে মধুখালী উপজেলার বাঙ্গাবাড়িয়া বাজারে পোলট্রি ব্যবসায়ী কাইয়ুম মল্লিক তাঁর দোকান খুলেই একটি খাম দেখতে পান। খামটি খুলতেই হতবাক হয়ে যান। ভেতরে একটি চিরকুট ও তিন হাজার টাকা পান তিনি।

- Advertisement -

কাইয়ুম মল্লিক বলেন, সকালে দোকান খুলে শাটারের পাশেই দেখেন একটি খাম পড়ে আছে। উঠিয়ে দেখেন খামের মধ্যে চিরকুট ও তিন হাজার টাকা। চিরকুটটি পড়ে ওই মহান ব্যক্তিকে সঙ্গে সঙ্গে মাফ করে দিয়েছেন।

কাইয়ুম জানান, চিরকুটে লেখা– ‘আমি প্রায় ১২ বছর আগে আপনার দোকান থেকে টাকা চুরি করেছিলাম। টাকার পরিমাণ প্রায় ৩ থেকে ৪ হাজার টাকার মতো। আমি আসলে গরিব। শয়তানের আসওয়াসাই হোক আর নিজের অভাবের কারণেই হোক, চুরি করার কারণে আমি ভুল স্বীকার করছি। আসলে আমি বিষয়টি নিয়ে লজ্জিত এবং অনুতপ্ত। আমি এর জন্য ক্ষমা চাইছি। যেহেতু আপনি নামাজ-কালাম পড়েন। আপনি অব্যশই জানেন যে, এ টাকার দাবি থাকলে আল্লাহ তাঁকে ক্ষমা করবেন না। ১২-১৩ বছর পর আপনাকে সামান্য টাকাটা দিয়ে আমি আপনার কাছে ক্ষমা চাচ্ছি। জানি এই সামান্য টাকায় আপনার কিছুই হবে না। তাও এই টাকাটা গ্রহণ করে আমাকে আল্লার ওয়াস্তে মাফ করে দিন। এই আশায় আপনাকে ৩ হাজার টাকা পাঠালাম। দয়া করে এটি নিয়ে ক্ষমা করে দিন।’

কাইয়ুম বলেন, তিনি দীর্ঘদিন ধরে বাঙ্গাবাড়িয়া বাজারে পোলট্রি ব্যবসা করছেন। এমন মহৎ মনের মানুষ তিনি পাননি।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles