সারার ধারণা ছিল, ‘সাইফ খারাপ মানুষ এবং অমৃতা পর্নো বানান’

- Advertisement -
ফাইল ছবি

তারকাদের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে মানুষের আগ্রহের শেষ নেই। বড়পর্দায় তাদের কাজের উপস্থাপনাও মানুষকে প্রভাবিত করে। যেমন বর্তমান বলিউড ক্রেজ সারা আলি খানই ছোটবেলায় তার তারকা মা-বাবাকে ‘খারাপ মানুষ’ ভাবতেন। তিনি জানিয়েছেন, বাবা সাইফ আলি খানের সিনেমা দেখে তাকে খারাপ মানুষ ও মা অমৃতা সিংয়ের সিনেমা দেখে মনে হয়েছিলো তিনি পর্ন বানান।

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে এমনটাই জানিয়েছেন সারা। তিনি বলেন, ‘ওমকারা’ ছবিতে ‘ল্যাংড়া ত্যাগী’ চরিত্রে সাইফকে দেখে ছোট্ট সারা বেশ ভয় পেয়ে গিয়েছিলেন। মনে হয়েছিল, তার বাবা কেবল খারাপ শব্দই ব্যবহার করেন। অন্য দিকে ‘কলিযুগ’ ছবিতে নিজের মা-কে অভিনয় করতে দেখে তার ধারণা হয়েছিল, অমৃতা পর্ন বানানোর পেশার সঙ্গে যুক্ত। কারণ সেই ছবিতে অন্তরঙ্গ দৃশ্যের আধিক্য ছিল।

- Advertisement -

ঘটনাচক্রে সেই দু’টি ছবির জন্য সইফ এবং অমৃতা সেরা অভিনেতা-অভিনেত্রী হিসেবে মনোনীত হন। বিষয়টি নিয়ে সাইফ-কন্যা জানান, ‘আমি অবাক হয়েছিলাম তাদের পুরস্কার পাওয়ার কথা শুনে। ভেবেছিলাম, কেন ওই সবের জন্য সেরার তালিকায় নাম লেখা হল তাদের?’

উল্লেখ্য, ১৯৯১ সালে বয়সে ১২ বছরের বড় অমৃতা সিংকে একপ্রকার পরিবারের অমতে গিয়েই বিয়ে করেছিলেন সাইফ আলি খান। সেই সংসারে ১৯৯৫ সালে জন্ম হয় তাদের মেয়ে সারার, ২০০১ সালে জন্ম হয় ইব্রাহিম আলি খানের। পরে ২০০৪ সালে সাইফ-অমৃতার বিচ্ছেদ হয়। তাদের বিচ্ছেদের ১৭ বছর পার হয়ে গেছে। সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা।

- Advertisement -

 

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles