15.9 C
Toronto
শুক্রবার, মে ২৪, ২০২৪

কেন প্রকাশ্যে আসছেন না পপি?

কেন প্রকাশ্যে আসছেন না পপি?
চিত্রনায়িকা পপি

পরিচিতজনদের কাছে দারুণ আড্ডাবাজ হিসেবে পরিচিত ছিলেন চিত্রনায়িকা পপি। যেখানেই থাকতেন, চারপাশ জমিয়ে রাখতেন। ঢালিউডের খোলা মনের এ মানুষটি নেই কোনো শুটিংয়ে। গত তিন বছরে নেই কোনো নতুন সিনেমার খবরেও।

আড়ালে যাওয়ার কদিন পর গুঞ্জন ওঠে, বিয়ে করে তিনি সংসারী হয়েছেন। তার মা হওয়ার খবরও এসেছে। এরপরও তাকে ক্যামেরার সামনে পাওয়া যায়নি। তাকে জড়িয়ে রহস্যে জট বাঁধছে।

- Advertisement -

সবশেষ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ভোটের আগে পপির ৫ মিনিট ৩৪ সেকেন্ডের একটি ভিডিও চলচ্চিত্র শিল্পীদের বিভিন্ন গ্রুপে ছড়িয়ে পড়ে।

পপি সেই ভিডিওতে বলেছিলেন, ভেবেছিলাম আর কখনোই ক্যামেরার সামনে আসব না। কিন্তু একজন শিল্পী হিসেবে এবং নিজের কিছু দায়বদ্ধতার জায়গা থেকে আজকে কিছু কথা না বললেই নয়। দীর্ঘ ২৬ বছর ইন্ডাস্ট্রিতে সুনামের সঙ্গে কাজ করার চেষ্টা করেছি। তিনবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছি।

এ সময় আবেগ তাড়িত চিত্রনায়িকা পপি বলেন, আজকে অনেক কষ্ট নিয়ে কথাগুলো বলছি, আজ আমি কোথায়! আমি আছি আপনাদের মাঝেই, হয়তো ভাগ্যে থাকলে আবারও ফিরব।

পপি ভিডিও বার্তায় জানিয়েছিলেন, শিল্পী সমিতির একটিমাত্র লোকের কারণে, তার পলিটিক্স এবং তার অনেক রকম অসহযোগিতার কারণে তাকে বারবার অপমানিত হতে হয়েছে। শুধু তাকে নয়, রিয়াজ, ফেরদৌস, পূর্ণিমা, নিপুণও অপমানিত হয়েছেন।

ভিডিও বার্তায় পপি বলেছিলেন, তাদের ব্যবহার করে এই চেয়ারে ওই লোক বসেছেন—সেখানে বসে বিভিন্ন অপকর্মের চেষ্টা করেছেন। কিন্তু তারা গুটিকয় তাতে সায় দেননি। যার কারণে তিনি ভিকটিম। তার মতো শিল্পীকে সদস্য পদ বাতিলের চিঠি দেওয়া হয়। এসব কারণে চলচ্চিত্র থেকে নিজেকে গুটিয়ে নিয়েছেন।

আড়ালে যাওয়ার আগে পপি ২০২০ সালের ২৩ অক্টোবর ‘ধোঁয়া’ নামের একটি সিনেমায় অভিনয়ের জন্য চুক্তিবদ্ধ হন। প্রযোজকের কাছ থেকে সাইনিং মানি হিসেবে নেন এক লাখ টাকা। পরের বছরের মার্চে ছবির শুটিং শুরুর কথা ছিল। তবে কাজ শুরুর আগে চুক্তির খবরটি মিডিয়াতে প্রকাশ না করার অনুরোধ করেন পপি।

হঠাৎ আড়ালে চলে যান পপি। এর পর থেকে কোথাও তাকে পাওয়া যায়নি। দীর্ঘদিন ধরে ব্যবহার করা মুঠোফোন-হোয়াটসঅ্যাপও বন্ধ রেখেছেন এই ঢালিউড অভিনেত্রী।

ঢালিউড তারকা মৌসুমীর ফুফাতো বোন পপি, ওমর সানীর শ্যালিকা। মৌসুমীর পরিবারও কিছু জানে না কোথায় আছেন তিনি। তাদের সঙ্গেও যোগাযোগ নেই। এদিকে পপির ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত একজন নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, ‘পপি আসলে এখন মিডিয়ার সামনে আসতে চাইছে না। সে তার মতো করে ভালো আছে।’

আরেকজন জানান, সংসার নিয়ে শান্তিতে আছেন পপি। তাকে খোঁজার চেষ্টা করে কোনো লাভ নেই। তার কাছে ইন্ডাস্ট্রির সবার মুঠোফোন নম্বর আছে। সময় হলে তিনি নিজেই প্রকাশ্যে আসবেন।

পপি প্রসঙ্গে তার আরেক ঘনিষ্ঠজন বলেন, ‘আমার সঙ্গে তার হঠাৎ কথা হয়। কিন্তু কী করছে, কোথায় আছে—এসবের কিছুই জানতে চাই না। আমি মনে করি, প্রত্যেক মানুষের প্রাইভেসির প্রতি আমাদের সবার শ্রদ্ধা থাকা উচিত। কথা হলে শুধু এটুকু জিজ্ঞেস করি, কেমন আছে। সে–ও জানায়, বেশ ভালো আছে। আসলে তার ভালো থাকাটাই আমাদের কাছে সবচেয়ে জরুরি। যেখানে থাকুক ভালো থাকুক। তার জন্য সব সময় শুভকামনা।’

এদিকে পপির আড়াল থাকার কারণে আটকে আছে কয়েকটি সিনেমা। এর মধ্যে রয়েছে- রাজু আলীম ও মাসুমা তানি পরিচালিত ‘ভালোবাসার প্রজাপতি’ ও আরিফুর জামান আরিফের ‘কাঠগড়ায় শরৎচন্দ্র’ সিনেমা দুটি। মুক্তির অপেক্ষায় আছে সাদেক সিদ্দিকী পরিচালিত ‘ডাইরেক্ট অ্যাটাক’ সিনেমাটি।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles