প্রথম প্রেমিকের সঙ্গে প্রতারণা করেছিলেন আনুষা

- Advertisement -
অভিনেত্রী আনুষা দাণ্ডেকর

জীবনের ভয়ঙ্কর ও কঠিনতম অভিজ্ঞতা নিয়ে এবার ইনস্টাগ্রামে সোজাসাপ্টা উত্তর দিলেন অভিনেত্রী আনুষা দাণ্ডেকর। শেয়ার করেছেন জীবনের আরো নানান ঘটনা। ইনস্টাগ্রামে অনুরাগীদের প্রশ্নেরও উত্তর দিয়েছেন অনুষা।

এক ভক্ত আনুষাকে প্রশ্ন করেন, তিনি কখনো কারো সঙ্গে প্রতারণা করেছেন কি না? জবাবে আনুষা স্বীকার করে বলেন, ‘আমার বয়স বছর ২০ ছিল। আমি ভেঙে গিয়েছিলাম, বিভ্রান্ত হয়ে পড়েছিলাম। নিজেকে খুঁজে বের করার চেষ্টা করেছিলাম। কোনো অজুহাত নয়, শুধু ঘটে গিয়েছিল। আমি অবিলম্বে সেই ব্যক্তিকে জানিয়েছিলাম, সেখানেই সব শেষ করেছিলাম। তার পরও আমরা সেরা বন্ধু ছিলাম এবং আজও বন্ধু।’

- Advertisement -

নিজের সাম্প্রতিক সম্পর্ক নিয়েও মুখ খুলেছেন আনুষা। তিনি লিখেছেন, ‘একা, সেক্সি এবং স্বাধীন। টাকা উপার্জন করছি শুধু!’ এমনকি নিজের জীবনের বেশ কিছু আদর্শ চিন্তাভাবনার কথা উল্লেখ করে তিনি লিখেছেন, যথেষ্ট সাহসী তিনি এবং নিজের সিদ্ধান্তে স্থির। নিজেকে ভালোবাসেন। সেই সঙ্গে এড়িয়ে চলেন, ‘কারসাজি’, ‘মিথ্যে সাজা’, ‘খারাপ জীবনযাপন’ এবং ‘গসিপ’- এসব।

‘সবচেয়ে বেদনাদায়ক অভিজ্ঞতা’ সম্পর্কে কথা বলতে গিয়ে আনুষা বলেন, ‘আমার ১৬ বছর বয়স থেকেই বুকের ওপর অল্প-বিস্তর লাম্প (মাংসপিণ্ড) ছিল। আমি ভাগ্যবান সেইটা আমার নজরে এসেছিল। অস্ট্রেলিয়ার এক স্কুলে সেগুলো শেখানো হতো। যে কারণে আমি খুব কৃতজ্ঞ! সব স্কুলেরই এমন শেখানো উচিত’।

- Advertisement -

তিনি আরো বলেন, অস্ত্রোপচারের পর অনেকগুলো লাম্প সরিয়ে ফেলতে সক্ষম হয়। কিন্তু পরে একটা বায়োপসি করে দেখতে পান, আরো বড় একটা লাম্প পাওয়া গেছে তার শরীরে। সেই বায়োপসি করতে গিয়ে দারুণ ব্যথাও পেয়েছিলেন তিনি। সে সময় ক্ষণিকের জন্য অভিনেত্রীর মা দূরে ছিলেন। সেখানে উপস্থিত এক পুরুষ নার্স নাকি অানুষার হাত ধরে বলেন, তিনি ঠিক হয়ে যাবেন। আনুষা অবশ্য পরে সুস্থ হয়ে উঠেছিলেন বলে জানান।

- Advertisement -

আনুশা এমটিভির জন্য হাউস অব স্টাইল, টিন ডিভা এবং লাভ স্কুলসহ বেশ কয়েকটি শো হোস্ট করেছেন। তিনি বিরুদ্ধ এবং অ্যান্টনি কৌন হ্যায়-এর মতো ছবিতে অভিনয় করেছেন।

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles