26.4 C
Toronto
মঙ্গলবার, মে ২১, ২০২৪

১৯ বছরের সম্পর্ক, স্বামীকে ডিভোর্স দিচ্ছেন ফিনল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী

১৯ বছরের সম্পর্ক, স্বামীকে ডিভোর্স দিচ্ছেন ফিনল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী
সানা মারিন ও মার্কোস রাইকোনেন ছবি সংগৃহীত

বিশ্বের সবচেয়ে সুখী দেশ ফিনল্যান্ড। কিন্তু সে দেশের প্রধানমন্ত্রী সানা মারিনের ঘরেই বেজে উঠেছে দুঃখের সুর। স্বামী মার্কোস রাইকোনেনকে ডিভোর্স দিচ্ছেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী তার ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট থেকে বিবাহবিচ্ছেদের এ খবর পোস্ট করেছেন। সিএনএনের এক প্রতিবেদনে জানা যায়, সানা মারিনের স্বামী মার্কোস রাইকোনেন একজন ব্যবসায়ী। তিনি একজন ফুটবলার ছিলেন।

- Advertisement -

প্রধানমন্ত্রী সানা তার ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে লিখেছেন, ‘আমাদের ১৯ বছরের সম্পর্কে ছেদ হতে যাচ্ছে। আমাদের বিবাহবিচ্ছেদ হলেও আমরা এখনও পরস্পরের ভালো বন্ধু। আমাদের একমাত্র মেয়েকে আমরা দুজনই সমান ভালোবাসি। বিবাহবিচ্ছেদের পরও আমরা একসঙ্গে পরিবারের সদস্যদের মতোই সমায় কাটাব।’

২০২০ সালে আনুষ্ঠানিকভাবে বিয়ে করলেও গত ১৯ বছর ধরে লিভ ইনে আছেন ফিনল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী সানা মারিন ও তার স্বামী মার্কোস রাইকোনেন।

মাত্র ৩৪ বছর বয়সে বিশ্বের কনিষ্ঠতম প্রধানমন্ত্রী হিসাবে কাজ শুরু করেছিলেন সানা মারিন। কিন্তু গত এপ্রিলে অনুণ্ঠিত নির্বাচনে ডানপন্থীদের কাছে পরাজিত হন তিনি।

বর্তমানে তিনি কেয়ার টেকার সরকারের প্রধানের দায়িত্ব পাল করছেন। নতুন সরকার গঠিত হলেই তিনি পদত্যাগ করবেন।

গত বছর একটি পার্টিতে অংশ নিয়ে নাচগান ও মদ্যপান করার ভিডিও ফাঁস হওয়ার পর বিরোধীদের রোষানলে পড়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী সানা। এমনকি মাদক পরীক্ষাও করাতে হয়েছিল তাকে।

তবে এসবের পরও একটি জরিপে সানা মারিন ফিনল্যান্ডে শতাব্দীর সবচেয়ে জনপ্রিয় প্রধানমন্ত্রী হিসেবে স্থান পেয়েছেন।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles