৫ কারণে আলোচিত-সমালোচিত পরীমনি

- Advertisement -

আলোচনা-সমালোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে সব সময়ই থাকেন ঢাকাই চলচ্চিত্রের নায়িকা পরীমনি। মিডিয়াপাড়া থেকে অফিস কিংবা চায়ের দোকান, পরীমনি ইস্যুতে নিত্য নতুন খবরে এখন সরগরম সর্বত্রই।

- Advertisement -

২০১৫ সালে ‘ভালোবাসা সীমাহীন’ সিনেমার মধ্য দিয়ে বড়পর্দায় অভিষেক হয় তার। এরপর একের পর এক সিনেমা করে চলেছেন তিনি। তবে সিনেমার চেয়েও ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে তিনি বেশি আলোচিত ও সমালোচিত হয়েছেন। সেসবের কিছু জেনে নেয়া যাক-

পরীমনির বিয়ে
পরীমনির নানা শামসুল হক গাজী জানান, পরীমনি এ পর্যন্ত চারটি বিয়ে করেছেন। প্রথম বিয়ে হয় বরিশালে থাকা খালাতো ভাই ইসমাইল হোসেনের সঙ্গে। সেখানে দুই বছরের দাম্পত্য জীবনের পর বিচ্ছেদ হয়। এরপর কেশবপুরের ফুটবলার ফেরদৌস কবীর সৌরভ ২০১২ সালের ২৮ এপ্রিল তাকে বিয়ে করেন বলে জানা যায়।

- Advertisement -

এর মধ্যে ২০১৯ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি বেশ ঢাকঢোল পিটিয়ে এক বিনোদন সাংবাদিকের সঙ্গে আংটি বদল করে সংসার পাতেন তিনি। পরের বছর ভালোবাসা দিবসে ভেঙে যায় সেই সম্পর্ক। ২০২০ সালে তিন টাকা কাবিনে পরীমনি বিয়ে করেন নির্মাতা কামরুজ্জামান রনিকে। একই বছর তাদের বিচ্ছেদ হয়।

- Advertisement -

পরিচালকের সঙ্গে দীর্ঘদিন বসবাস
২০১৪ সালের দিকে পরীমনির সঙ্গে পরিচয় হয় কথিত প্রযোজক নজরুল ইসলাম রাজের। এরপর রাজই প্রযোজক হয়ে শাহ আলম মণ্ডলের পরিচালনায় নির্মাণ করেন ‘ভালোবাসা সীমাহীন’ নামের একটি ছবি। ছবিতে নায়ক ছিলেন জায়েদ খান। এটিই পরীর মুক্তিপ্রাপ্ত প্রথম ছবি।

সে সময়ই সিনেমাপাড়ায় তাকে নিয়ে ঘটে যায় হুলুস্থুল কাণ্ড। প্রথম ছবি মুক্তির আগেই ১৯টি ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হন পরী। এরপর থেকেই শুরু হয় তার বেপরোয়া জীবন। নজরুলের সঙ্গে একই ফ্ল্যাটে দীর্ঘদিন বসবাস করেন। বিভিন্ন গণমাধ্যমের খবরে জানা যায়, সেখানে প্রভাবশালীদের যাতায়াত ছিল।

আরও পড়ুন : মাদক মামলায় তথ্য লুকোতে হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট ডিলিট করেছেন অনন্যা পাণ্ডে!

ধর্ষণ-হত্যাচেষ্টার অভিযোগ
গত ১৪ জুন ধর্ষণ-হত্যাচেষ্টার অভিযোগে ব্যবসায়ী নাসির উদ্দিন ও তার বন্ধু অমির নাম উল্লেখ করে এবং চারজনকে অজ্ঞাত আসামি করে পরীমনি সাভার থানায় মামলা করেন। এরপর বিষয়টি নিয়ে তৎপর হয় পুলিশ। এরপর তা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও ব্যাপক চর্চা হয়।

ওই সময় পরীমনি লেখেন, ‘আমি শারীরিক নির্যাতনের শিকার হয়েছি। আমাকে রেইপ এবং হত্যা করার চেষ্টা করা হয়েছে। আমি এর বিচার চাই।’

মাদককাণ্ডে পরীমনি
কিছুদিন আগেই মাদককাণ্ডে জড়িয়ে জেলে যান পরীমনি। মাদককাণ্ডে পরীমনির গাড়ি, মোবাইল, ল্যাপটপসহ ১৬টি আলামত জব্দ করা হয়। ২৬ দিন পর কাশিমপুর মহিলা কারাগার থেকে জামিনে মুক্তি পান এই চিত্রনায়িকা।

গত ৪ আগস্ট রাতে প্রায় ৪ ঘণ্টার অভিযান শেষে বনানীর বাসা থেকে পরীমণি ও তার সহযোগী দীপুকে আটক করে র‍্যাব। এলিট বাহিনী জানায়, এ সময় বিভিন্ন ধরনের মাদক পাওয়া গেছে। পরদিন মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে পরীমণি ও তার সহযোগীর বিরুদ্ধে বনানী থানায় মামলা হয়।

তারকা হোটেলে জন্মদিন
করোনাকালেও পাঁচ তারকা হোটেলে নিজের জন্মদিন উদযাপন করে আলোচনার জন্ম দেন তিনি। গতবছর রাজধানীর শাহবাগের একটি পাঁচতারকা হোটেলে জমকালো আয়োজেন পরী পালন করেন তার জন্মদিন। এবারও রাজধানীর রেডিসন ব্লু ওয়াটার গার্ডেন হোটেলে বসবে পরীর জন্মদিনের পার্টি। আগেই তিনি জানিয়েছেন, এবার কেবল প্রকৃত আপন ও কাছের মানুষদের নিমন্ত্রণ দেবেন।

এরই মধ্যে অতিথিদের কাছে পাঠানো হয়েছে নিমন্ত্রণ কার্ড। সেই কার্ডেই দেখা গেল একটি বিশেষ বার্তা। পরী লিখেছেন, ‘বিশুদ্ধ আত্মা নিয়ে আমার কাছে এসো এবং সারাজীবন আমার সঙ্গে ওড়ো’।

সূত্র : নতুন সময়

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles