নাটক-সিরিয়ালের দৃশ্যে চুম্বন ও আলিঙ্গন নিষিদ্ধ

- Advertisement -

ছবি সংগ্রহ

পাকিস্তানের সংস্কৃতির সঙ্গে মানানসই নয় ছোটপর্দায় এমন দৃশ্য দেখানো থেকে বিরত থাকতে বলা হয়েছে। পাকিস্তানের টেলিভিশনের সম্প্রচার নিয়ন্ত্রক সংগঠন, ‘পাকিস্তান ইলেকট্রনিক মিডিয়া রেগুলেটরি অথোরিটি'(পেমরা) এই মর্মে একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে। বিজ্ঞপ্তিটিকে ফতোয়া হিসেবে ধরে নেওয়াই ভালো। ‘পেমরা’র নির্দেশিকা অনুযায়ী, টেলিভিশনে চুম্বন তো নয়ই, নিষিদ্ধ হল আলিঙ্গনের দৃশ্যও। অশোভন পোশাক, শয্যাদৃশ্য, বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক, সংবেদনশীল বা বিতর্কিত প্লট ও অপ্রয়োজনীয় দৃশ্য যা অত্যন্ত অস্বস্তিকর সেগুলি আর ছোটপর্দায় দেখানো যাবে না।

পাকিস্তান ইলেকট্রনিক মিডিয়া রেগুলেটরি অথোরিটির বক্তব্য, ছোটপর্দার সিরিয়ালে পাকিস্তানি সমাজের সঠিক ছবি ফুটে উঠছে না। তা বিবেচনা করেই পাকিস্তানি সংস্কৃতির পরিপন্থী দৃশ্য বাদ রাখাতে বলা হয়েছে। ‘পেমরা’র পক্ষ থেকে সমস্ত টিভি চ্যানেলকে বলা হয়েছে, এ বার থেকে কোনও নাটকের সম্প্রচারের আগে তা ইন-হাউস মনিটরিং কমিটিকে দিয়ে পর্যালোচনা করিয়ে নিতে হবে।

- Advertisement -

ছোটপর্দার উপর এমন নিষেধাজ্ঞা নেমে আসায় স্বাভাবিক ভাবেই প্রতিবাদ শুরু হয়েছে। পাকিস্তানের মানবাধিকার কর্মী রিমা ওমের কটাক্ষ, ‘আমাদের সংস্কৃতিতে বিবাহিত যুগলের ঘনিষ্ঠতা নাকি বেমানান। আসলে আমাদের সংস্কৃতি হল নিয়ন্ত্রণ, নির্যাতন, হিংসা।’

এর আগে ইরানেও ছোটপর্দায় পুরুষ-মহিলার ঘনিষ্ঠ দৃশ্য সেন্সর করা হয়েছে। ফতোয়া জারি হয়েছে মেয়েদের পিজ্জা কিংবা স্যান্ডউইচ খাওয়ার উপরেও। পুরুষদের খাবার পরিবেশন-সহ একাধিক দৃশ্যও ইরানে দেখানো যাবে না। মহিলাদের লাল রঙের পানীয় সেবনের দৃশ্যও আপত্তি জানানো হয়েছে। প্রায় একই পথে হাঁটল পাকিস্তান।

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles