6 C
Toronto
বুধবার, ফেব্রুয়ারী ৮, ২০২৩

বিলাসবহুল হোটেলে ২৯ লাখ টাকা বকেয়া রেখে পালালেন তিনি

বিলাসবহুল হোটেলে ২৯ লাখ টাকা বকেয়া রেখে পালালেন তিনি
<br >ছবি সংগৃহীত

আবুধাবির রাজকীয় পরিবারে কাজ করতেন-এই পরিচয় দিয়ে ভারতের দিল্লির এক পাঁচ তারকা হোটেলে রুম ভাড়া নেন। সেখানে ছিলেন চার মাস ধরে। কিন্তু বাংলাদেশি মুদ্রায় ২৯ লাখ টাকার বেশি বিল পরিশোধ না করেই পালিয়ে গেছেন।

গত শনিবার দিল্লির লীলা প্যালেস হোটেল ম্যানেজমেন্ট মোহাম্মদ শরিফ নামের ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে চুরি ও প্রতারণার অভিযোগ দায়ের করেছে। এমন অভিযোগে দিল্লির পুলিশ অভিযুক্ত ব্যক্তিকে খুঁজছে বলে এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

- Advertisement -

খবরে বলা হয়েছে, গত বছরে আগস্টের ১ তারিখে ৪২৭ নম্বর রুমে উঠে শরিফ। এরপর গত ২০ নভেম্বর বিল পরিশোধ না করেই চম্পট দেয়। ওই হোটেলের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে, শরিফ রূপার পাত্র ও মুক্তার ট্রেসহ বেশ কিছু জিনিস চুরি করেছে।

আগস্টে ওই হোটেলে রুম নেওয়ার সময় শরিফ স্টাফদের বলেন, তিনি সংযুক্ত আরব আমিরাতের বাসিন্দা এবং আবুধাবির রাজকীয় পরিবার শেখ ফালাহ বিন জায়েদ আল নাহিয়ানের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করেন।

শরিফ আরও বলেছিলেন, তিনি শেখের সঙ্গে ব্যক্তিগতভাবে কাজ করেন এবং ব্যবসায়িক কাজে ভারতে এসেছেন। তিনি এসব বলার সময় বিজনেজ কার্ড, সংযুক্ত আরব আমিরাতের বাসিন্দার কার্ড ও অন্যান্য নথি দেখান। স্টাফদের বিশ্বাস অর্জন করতে তিনি হোটেল স্টাফদের আমিরাতের গল্প নিয়মিত শোনাতেন।

পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, তারা তদন্ত করে দেখেছে শরিফের এসব নথি ভুয়া। এনডিটিভি বলছে, চার মাসে শরিফের হোটেলে বিল হয়েছে ভারতীয় মুদ্রায় ৩৫ লাখ টাকা, এরমধ্যে সাড়ে ১১ লাখ টাকা পরিশোধ করে সে পালিয়ে গেছে। এছাড়া পালানোর দিন শরিফ ২০ লাখের একটি চেক স্টাফদের দেয়।

দিল্লি পুলিশ এ ঘটনার তদন্ত করছে।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles