জামায়াতকে ছাড়তে বিএনপির ভয়, আপস করবে না আ. লীগ

- Advertisement -

ফাইল ছবি

বিএনপি ছেড়ে দিলে স্বাধীনতা বিরোধী জামায়াতকে আওয়ামী লীগ দলে ভেড়াতে পারে এমন শঙ্কার কথা বলছেন দলটির অন্যতম ভাইস চেয়ারম্যান মেজর অবসরপ্রাপ্ত হাফিজ উদ্দীন আহমদ। তবে বিষয়টিকে হাস্যকর মনে করছে আওয়ামী লীগ। যুদ্ধাপরাধে দায়ী জামায়াতকে সঙ্গে নিয়ে রাজনীতিতে আপস নয় বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছে আওয়ামী লীগ।

মহান মুক্তিযুদ্ধের বিরোধিতা করে নিষিদ্ধ হলেও ক্ষমতার পালাবদলে জামায়াতে ইসলাম সুযোগ পায় রাজনীতির। আর ২০০১ সালে চার দলীয় জোটে অংশ নিয়ে বিএনপির সঙ্গে ক্ষমতার ভাগ পায় যুদ্ধাপরাধের জন্য দায়ী দলটি। ২০০৮ এর নির্বাচনের মাধ্যমে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এলে নিজেদের নির্বাচনী ইশতেহার বাস্তবায়নে শুরু করে যুদ্ধাপরাধের বিচার।

- Advertisement -

আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের রায়ে যুদ্ধাপরাধে দায়ী হয় জামায়াত। নির্বাচন কমিশনের খাতায় বাতিল হয় নিবন্ধন। সেই থেকে বিএনপির ঘাড়ে চেপেই রাজনীতির মাঠে দলটি। যুদ্ধাপরাধেরে দায়ে অভিযুক্ত দলটিকে নিয়ে পথ চলায় কম সমালোচনায় পড়তে হয়নি বিএনপিকে। তবে গেল কয়েক বছরে দলটি জামায়াতের ইস্যুতে কখনোই স্পষ্ট করে কিছু বলেনি বিএনপি।

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ বলছেন, এ মুহূর্তে দলটি বিএনপির জন্য গুরুত্বপূর্ণ কোনো সহযোগী না মানলেও ছেড়ে দিলে, রাজনীতির হিসাবটা কী হবে-এই শঙ্কা থেকেই সিদ্ধান্ত নিতে পারছেন না তারা।

- Advertisement -

মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ বলেন, জামায়াত এমন কোনো শক্তিশালী দল নয় যে তারা বাংলাদেশের ভাগ্য নির্ধারণ করতে পারবে। সে শক্তি তাদের নেই। বিএনপি যদি জামায়াতকে ত্যাগ করে তবে দেখা যাবে মহানন্দে আওয়ামী তাদের গ্রহণ করছে- সেটা আমাদের জন্য বিব্রতকর।
তিনি আরও বলেন, আওয়ামী লীগ যদি স্পষ্ট করে বলে দেয় আমরা জামায়াতকে নেব না। তাহলে বিএনপি এ বিষয়ে চিন্তা ভাবনা করবে।

- Advertisement -

তবে এমন সম্ভাবনা উড়িয়ে দিয়ে আওয়ামী লীগ বলছে, স্বাধীনতার চেতনার প্রশ্নে আপস করব না।

জামায়াতের বিষয়ে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব আলম হানিফ বলেন, আওয়ামী লীগের সঙ্গে কখনো জামায়াতের সম্পর্ক হওয়ার সুযোগ নেই। কোনো কালে আওয়ামী লীগের জামায়াতের সম্পর্ক ছিল না। বিএনপি এ ধরনের কথা বলে তাদের সঙ্গে জামায়াতের সম্পর্ক সেটা জায়েজ করার জন্য এ ধরনের কথা বলেন।

বিএনপি পাকিস্তানি দোসর জামায়াতকে ছাড়তে পারবে না বলেই এমন টালবাহানা করছে বলেও জানায় আওয়ামী লীগ।

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles