5.2 C
Toronto
মঙ্গলবার, নভেম্বর ২৯, ২০২২

‘পাপের প্রায়শ্চিত্ত করেছি, আমার সন্তানকে খেয়াল রেখো’

‘পাপের প্রায়শ্চিত্ত করেছি, আমার সন্তানকে খেয়াল রেখো’
শিপা তালুকদার ও রিপন দাস

সিলেট নগরীর পাঠানটুলা এলাকার একটি ভাড়া বাসা থেকে স্বামী-স্ত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ রোববার দুপুরে নগরীর পাঠানটুলার পল্লবী সি ব্লকের ২৫ নম্বর ধীরেন্দ্র দের বাড়ি থেকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

এ সময় ওই বাসা থেকে একটি চিরকুট উদ্ধারের কথা জানায় পুলিশ। চিরকুট লেখা আছে, ‘আমার পাপের প্রায়শ্চিত্ত করেছি, তোমরা আমার সন্তানকে খেয়াল রেখো।’ এই দম্পতির দুই বছর বয়সী একটি শিশু সন্তান রয়েছে।

- Advertisement -

মৃতরা হলেন শিপা তালুকদার সুনামগঞ্জ সদরের মনপুর ইউনিয়নের ফন্দিয়া গ্রামের নির্ণয় তালুকদারের মেয়ে ও রিপন দাস জামালগঞ্জ উপজেলার ফেনারবাগ ইউনিয়নের রাজাবাজ গ্রামের সুভাষ দাসের ছেলে ।

তবে এই চিরকুটটি রিপন নাকি শিপা লিখেছেন, তা নিশ্চিত হতে পারেনি পুলিশ। আর কোনো ‘পাপের’ কথা এখানে লিখা হয়েছে, তা নিয়ে ধোঁয়াশায় আছে তারা।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সকালে ঘরের ভেতর থেকে তাদের ছোট্ট মেয়ের কান্নার শব্দ শুনে ডাকাডাকি করেন বাসার অন্যরা। অনেক ডাকাডাকি করার পরও ভেতর থেকে দরজা না খোলায় তারা পুলিশে খবর দেন। পরে বেলা ১১টার দিকে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে ঝুলন্ত অবস্থায় আলাদা দুই কক্ষ থেকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করে।

স্বজনদের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, রাতে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। সকাল ৯টার দিকে ঘরের ভেতর থেকে মেয়ের কান্না শুনতে পান। পারিবারিক কলহের কারণেই ঘটনাটি ঘটেছে বলে ধারণা করছেন তারা। তাদের মৃত্যু হয়েছে তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

জালালাবাদ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাজমুল হুদা খান বলেন, ‘সকাল ১১টার দিকে আমরা খবর পাই। তারপর ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ দুটি উদ্ধার করা হয়। ঠিক কী কারণে এই ঘটনা ঘটেছে, তা এখনো জানা যায়নি। তবে প্রাথমিকভাবে পারিবারিক কলহের তথ্য জানা গেছে। মরদেহগুলো ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles