7.9 C
Toronto
শনিবার, নভেম্বর ২৬, ২০২২

বুবলীকেও গ্রহণ করবেন না শাকিব!

বুবলীকেও গ্রহণ করবেন না শাকিব!
শবনম ইয়াসমিন বুবলী ও শাকিব খান

অপুর সঙ্গে শাকিবের বিচ্ছেদ হয়ে গেছে। এরপর প্রকাশ পায় বুবলীর সঙ্গে বিয়ে ও সন্তান শেহজাদ খান বীরের খবর। চলচ্চিত্রপাড়ায় শাকিব খান ও বুবলীর বর্তমান সম্পর্কের অবস্থা নিয়ে বিশ্লেষণ করা হচ্ছে। কিছুদিন আগেও একটি গণমাধ্যম স্পষ্ট জানিয়ে দেয়, শাকিব-বুবলীর বিচ্ছেদ হয়েছে।

কয়েক দিন পরেই বুবলী সেটার প্রতিক্রিয়া দেখান আরেক গণমাধ্যমে। সরাসরি না বললেও বুবলী সেখানে নানাভাবেই বলেন যে শাকিবের সঙ্গে তাঁর এখনো সম্পর্ক রয়েছে।

- Advertisement -

তবে সাম্প্রতিক সময়ে শাকিব খান যা বলছেন, তার একটি অর্থ দাঁড়ায়―বুবলীর সঙ্গে যদি বিচ্ছেদ না-ও হয়ে থাকে, তবু সম্পর্ক রাখবেন না শাকিব খান! তাঁর ওই বক্তব্যের কোনো বিকল্প হতেই পারে না। এ ছাড়া শাকিব যে নিউ ইয়র্ক থেকে দেশে ফেরার সময় বলেছিলেন, ‘এবার আর গোপনে নয়, আয়োজন করে পরিবারের পছন্দে বিয়ে করবেন। ’ অর্থাৎ বুবলীকে নিয়ে শাকিবের দীর্ঘ পরিকল্পনা যে নেই তা স্পষ্ট। এ ছাড়া অপুর মতোই বুবলীর প্রতিও শাকিব নাখোশ। কারণ যেভাবে সন্তান ও বিয়ের খবর প্রকাশ করেছেন বুবলী, সেটা শাকিবের পছন্দ নয়।

শাকিব খান বলছেন, ‘প্রেম, বিয়ে, সন্তান―প্রত্যেক মানুষের একান্তই ব্যক্তিগত বিষয়। এগুলো ঢাকঢোল পিটিয়ে প্রচার করার বিষয় নয়। আর আমি আমার পারসোনাল লাইফকে পাবলিকের সামনে আনতে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করি না। আমার ইচ্ছা ছিল সময়মতো সুন্দর আয়োজনের মাধ্যমে ঘটা করে বিষয়টি সবাইকে জানিয়ে সবার সঙ্গে একত্রে আনন্দ করব। কিন্তু অপু বা বুবলী কেউই আমাকে সেই সুযোগ দেয়নি। ’

বুবলী বা অপু কারো সঙ্গেই ভবিষ্যতে সম্পর্ক রাখবেন না এটা সরাসরি না বললেও স্পষ্ট করে দিয়ে শাকিব বললেন, ‘আমার অপছন্দের এমন কাজ করে সবার কাছে আমাকে ছোট করার পরও কি তাদের সঙ্গে সম্পর্ক রাখা যায়? আমার সঙ্গে বিয়ে ও সন্তান নিয়ে তাদের মনে যখন এমনই উচ্ছ্বাস ছিল, তখন তারা বিয়ে বা সন্তান জন্মের পরপরই সবাইকে বিষয়টি কেন জানাল না? কোথায়, আমি তো তাদের মুখ বন্ধ করে রাখিনি! প্রকাশই যদি করতে হলো তাহলে এত দেরিতে কেন? তাহলে কি তারা আমার শত্রুদের সঙ্গে হাত মিলিয়ে আমাকে অপমান আর ধ্বংস করতে চেয়েছিল?’

২০১৭ সালের এপ্রিলে শবনম বুবলীর সঙ্গে শাকিব ঘরোয়া পরিবেশে একটি ছবি তোলেন। ছবিটিতে ‘ফ্যামিলি টাইম’ ক্যাপশন লিখে নিজের সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে প্রকাশ করেন বুবলী। এর পরই শাকিব খান-অপুর বিবাহ ও সন্তানের খবর প্রকাশ্যে আসে। আসে বলতে অপু বিশ্বাসই দীর্ঘদিন গোপনে থাকা বিয়ে ও সন্তানের বিষয়টি খোলাসা করেন। নিউজ টুয়েন্টিফোর চ্যানেলে এসে লাইভে শাকিবের সঙ্গে নিজের সম্পর্কের কথা, সন্তানের কথা বলতে বাধ্য হন অপু বিশ্বাস।

২০১৮ সালের ১২ মার্চ শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসের বিবাহবিচ্ছেদ হয়। এরপর দুজনের পথ বেঁকে যায়। দুজনই নতুন করে নিজেদের দিকে মনোযোগী হন।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles