3.5 C
Toronto
বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ৮, ২০২২

যেভাবে ইরানের বিক্ষোভ দমনের ভিডিওর সত্যতা উন্মোচন করল বিবিসি

যেভাবে ইরানের বিক্ষোভ দমনের ভিডিওর সত্যতা উন্মোচন করল বিবিসি

একজন নারীকে টেনে-হিচড়ে নিয়ে যাচ্ছে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর মহিলা বিশেষ দল। একটি পিক-আপ ট্রাক থেকে গুলি করছে নিরাপত্তা বাহিনী। আটক বিক্ষোভকারীদের বাসে তুলে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। নিরাপত্তা বাহিনী মুহূর্মুহূ বন্দুকের গুলি চালাচ্ছে, আর তা থেকে বাঁচতে মাথা ও শরীর নিচু করে চিৎকার করছে লোকজন। এমন দৃশ্য দেখা যায় ইরানিদের শেয়ার করা বিভিন্ন ভিডিওতে। মর্মান্তিক এসব ঘটনার সত্যতা যাচাই করেছেন বিবিসির সাংবাদিকরা।

- Advertisement -

তথ্যের প্রবাহ সীমিত ও নিয়ন্ত্রণ করতে ইন্টারনেট সেবা ব্যাহত করছে ইরানি কর্তৃপক্ষ। তারপরও সেখানকার মানুষ মেসেজিং অ্যাপের মাধ্যমে সারাদেশ থেকে প্রতিবাদের ভিডিও বিবিসি ফার্সিতে পাঠাচ্ছে। সোশ্যাল মিডিয়াতেও ভিডিওগুলো ঘন ঘন পোস্ট করা হচ্ছে।

কোনও প্রতিবেদনে একটি ভিডিও ব্যবহার করার আগে সাংবাদিকদের নিশ্চিত করতে হয় এটি কোথায় এবং কখন ধারণ করা হয়েছে।
এ ধরনের ভিডিওর সত্যতা যাচাই করার বিভিন্ন উপায় রয়েছে। ফুটেজের ল্যান্ডমার্ক ও চিহ্নগুলো সনাক্ত করে এবং স্যাটেলাইট চিত্র, রাস্তার-স্তরের ফটো ও পূর্ববর্তী ফুটেজগুলো পরীক্ষা করে ফুটেজের অবস্থান চিহ্নিত করা যায়। সেই সঙ্গে আবহাওয়ার প্রতিবেদন, সূর্যের অবস্থান এবং সূর্যের তৈরি করা ছায়ার কোণগুলো সময় নিশ্চিত করতে ব্যবহার করা হয়।

শুক্রবার বিবিসির সাংবাদিকসহ বেশ কয়েকজন ওইসব ভিডিওর সত্যতা যাচাইয়ে নেমেছিলেন।

এরপর বিবিসি ফার্সি একটি ভিডিও টুইটারে পোস্ট করে। সেই ভিডিওতে দেখা যায়, নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা একটি ভবনের বাইরে রয়েছেন। এরপর বিক্ষোভকারীদের ওপর তারা গুলি বর্ষণ করছেন। ওই ভিডিও ধারণ করার সময় এক ব্যক্তি বলছেন, এটি (ইরানের) পূর্বাঞ্চলের শহর নিশাবুরের ঘটনা।

স্যাটেলাইট থেকে ধারণ করা ছবির সঙ্গে ওই ভিডিতে দেখা স্থানের মিল রয়েছে। এমনকি নিরাপত্তা বাহিনী ঠিক কোন স্থান থেকে গুলি চালিয়েছে, সেটাও নিশ্চিত হওয়া গেছে।

আরেক ভিডিওতে দেখা যায়, ইরানের কুর্দিস্তান প্রদেশের বুকান শহর থেকে বিক্ষোভকারীদের ধরে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা পিক-আপে করে বিক্ষোভকারীদের তুলে নিয়ে যাচ্ছে।

সূত্র: বিবিসি

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles