4.5 C
Toronto
সোমবার, ডিসেম্বর ৫, ২০২২

‘ধাক্কা দিলি ক্যান’ বলে ঝগড়া বাধিয়ে সর্বস্ব লুট করেন তারা

‘ধাক্কা দিলি ক্যান’ বলে ঝগড়া বাধিয়ে সর্বস্ব লুট করেন তারা

রাজধানীর বিভিন্ন সড়কে প্রকাশ্যেই ইচ্ছাকৃতভাবে পথচারীদের সঙ্গে ‘ঝামেলা’ বাধিয়ে মারধরের পর সবকিছু কেড়ে নেয় একটি প্রতারক চক্র। তারা রাতে পথচারী কিংবা গাড়িচালকদের সঙ্গে পরিকল্পিতভাবে হট্টগোল করেন। এরপর কৌশলে তাদের টাকা-পয়সা, মোবাইল, ল্যাপটপ ছিনিয়ে পালিয়ে যান।

- Advertisement -

বিদ্যুৎ বিপর্যয়ের কারণে গতকাল মঙ্গলবার রাতে রাজধানী যখন অন্ধকারে ডুবে ছিল, তখনই ‘ঝামেলা’ সৃষ্টি করে পথচারীদের আটকে ছিনতাইকালে ওই চক্রের দুই সদস্যকে গ্রেপ্তার করে উত্তরা পশ্চিম থানা পুলিশ। উত্তরা পশ্চিম থানার ১৩ নম্বর সেক্টরের ১৩ নম্বর রোড থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। তারা হলেন মো. আল রাজু ও সুমন খান।

বিদ্যুতের পূর্বাঞ্চলীয় গ্রিড ফেল করায় ঢাকাসহ অনেক জেলায় বিদ্যুৎ বিপর্যয় ঘটে গতকাল। বিকেল থেকে রাত পর্যন্ত দীর্ঘ সময় ছিল না বিদ্যুৎ। সন্ধ্যার পর জ্বলেনি সড়কবাতিও। এমন পরিস্থিতির সুযোগ নিতে ছিনতাইকারীরা নেমে পড়েন রাস্তায়। বসে থাকেনি আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরাও।

আরও পড়ুন :: কোটি টাকা আত্মসাৎ মামলায় কারাগারে সাবেক ব্যাংক কর্মকর্তা

উত্তরা পশ্চিম থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীন বলেন, ‘ইচ্ছাকৃতভাবে ঝগড়া লাগিয়ে ছিনতাই করা হয় বলে স্থানীয়দের কাছে গ্রেপ্তাররা “গ্যাঞ্জাম পার্টি” নামেই পরিচিত। গ্রেপ্তার আল রাজু ও সুমন খানের বিরুদ্ধে এর আগে একই অভিযোগে দুটি মামলা রয়েছে। গ্রেপ্তার হয়েছেন, জেলও খেটেছেন তারা। জামিনে বেরিয়ে ফের তারা জড়িয়ে পড়েন অভিনব এই প্রতারণায়। গ্রেপ্তার রাজু রাজধানীর তুরাগ থানার ভাবনারটেক এলাকার নুর আলমের ছেলে। তিনি একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। সুমন পিরোজপুরের কাউখালী উপজেলার রুস্তম আলী খানের ছেলে। গ্যাঞ্জাম পার্টির হোতা রাজুর ৮-১০ জনের একটি গ্রুপ রয়েছে। তারা রাতে উত্তরাসহ ঢাকার বিভিন্ন এলাকায় আড্ডা দেন। কোনো পথচারীকে একা পেলে তার সাথে একজন পরিকল্পিতভাবে ধাক্কা খেয়ে “এই আমারে ধাক্কা দিলি ক্যান” বলে ঝগড়া লাগিয়ে দেয়। এ সময় বাকিরাও আশপাশ থেকে এসে তাকে মারধর শুরু করে। এরপর তার কাছে থাকা টাকা-পয়সা ও মোবাইল হাতিয়ে পালিয়ে যায়।’

ওসি আরও বলেন, ‘কোনো গাড়িচালককে একা দেখলেও এ গ্রুপের কেউ একজন ইচ্ছাকৃতভাবে গাড়ির সাথে ধাক্কা খেয়ে “আমাকে গাড়ি দিয়ে ধাক্কা দিলি ক্যান” বলে ঝগড়া লাগিয়ে দেয়। এরপর মারধর করে সব হাতিয়ে নেয়। মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১১টায় একই কায়দায় রাজু ও সুমন ঝগড়া লাগায় লুৎফুর রহমান নামে স্থানীয় এক ব্যক্তির সঙ্গে। লুৎফুর রহমান রাত সাড়ে ১১টায় তার প্রাইভেট কার চালিয়ে আসছিলেন। হঠাৎ তার গাড়ির সামনে এসে রাজু বলে ওঠেন, “আমাকে গাড়ি দিয়ে ধাক্কা দিলি ক্যান”। এ সময় তারা লুৎফুরকে মারধর করে টাকা, মোবাইল ছিনিয়ে নিতে চাইলে তিনি চিৎকার শুরু করেন। এ সময় পুলিশের টহল টিম তার চিৎকার শুনে ঘটনাস্থলে যায় ও দুজনকে আটক করে।

এদিকে, গতকাল অন্ধকারাচ্ছন্ন রাতে মাত্র তিন ঘণ্টায় ধারাবাহিক অভিযান চালিয়ে ছিনতাইকারী চক্রের মূলহোতাসহ ২৪ জনকে আটক করে র‌্যাব-৩। তারা হলেন মো. রাজন, বিল্লাল হোসেন, হৃদয় হোসেন, জসমত, এনামুল হক, রানা, সুজন, শাহীন, বিল্লাল হোসেন, হৃদয়, মোবারক হোসেন, জনি, আবু বক্কর সিদ্দিক, মিলন চন্দ্র মন্ডল, সুজন, রিপন, আমান হোসেন, শরিফ উদ্দিন, রনি, আরিফ হোসেন, ইদ্রিস, নুর উদ্দিন, সোহেল ও মো. আলামিন।

গতকাল সন্ধ্যা ৬টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত রাজধানীর শাহজাহানপুর, মতিঝিল, পল্টন ও যাত্রাবাড়ী এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। এ সময় তাদের কাছ থেকে বিষাক্ত মলম, সুইচ গিয়ার, কাটার, ব্লেড, কাঁচি, চাকু, ক্ষুরসহ বিভিন্ন দেশীয় অস্ত্র জব্দ করা হয়।

র‌্যাব-৩-এর অধিনায়ক লে. কর্নেল আরিফ মহিউদ্দিন আহমেদ বলেন, মঙ্গলবার রাতে রাজধানীর শাহজাহানপুর, মতিঝিল, পল্টন ও যাত্রাবাড়ী এলাকায় অভিযান চালিয়ে ২৪ জন ছিনতাইকারীকে আটক করা হয়েছে। আসামিরা নিয়মিতভাবে এসব এলাকায় ছিনতাই কারে আসছিল। গতরাতে বিদ্যুৎ না থাকায় সুযোগ গ্রহণ করে সংঘবদ্ধভাবে বড় ধরনের ছিনতাইয়ের পরিকল্পনা করছিল। আসামিদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

সূত্র : আমাদের সময়

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles