0.3 C
Toronto
মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ৫, ২০২৩

সাফজয়ী ডিফেন্ডার মাসুরা সাতক্ষীরায়, খেললেন চ্যারিটি ম্যাচ

সাফজয়ী ডিফেন্ডার মাসুরা সাতক্ষীরায়, খেললেন চ্যারিটি ম্যাচ

সাফ জয়ের পর প্রথমবারের মতো সাতক্ষীরায় এলেন নারী ফুটবল দলের অন্যতম ডিফেন্ডার মাসুরা পারভীন।

- Advertisement -

বৃহস্পতিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) ভোরে ছুটিতে তিনি সাতক্ষীরার বিনেরপোতার বাড়িতে ফেরেন। বিকেলে তিনি শ্যামনগরের নকীপুর সরকারি পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের মাঠে শ্যামনগর ফুটবল একাডেমি বনাম খুলনা ফুটবল একাডেমি মহিলা চ্যারিটি ফুটবল ম্যাচে শ্যামনগরের পক্ষে অংশ নেন। ম্যাচে শ্যামনগর ফুটবল একাডেমি খুলনা ফুটবল একাডেমিকে ২-১ গোলে পরাজিত করে।

এর আগে তাকে শ্যামনগর ফুটবল একাডেমির পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা জানানো হয়। তবে মাসুরাকে সংবর্ধনা দেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে জেলা প্রশাসনসহ বিভিন্ন সংগঠন।

বৃহস্পতিবার সাতক্ষীরা সদর উপজেলার বিনেরপোতায় মাসুরাদের বাড়িতে গেলে দেখা যায়, মাসুরা তার মা ফাতেমা খাতুনের সাথে খোশ গল্পে ব্যস্ত। পাশেই ছিলো তার মেজ বোন।

সাফজয়ী ডিফেন্ডার মাসুরা সাতক্ষীরায়, খেললেন চ্যারিটি ম্যাচ
সাতক্ষীরার বিনেরপোতার বাড়িতে মাসুরা ও তার মেজ বোন

মা বলেন, আমরা গরীব মানুষ। ছোটবেলা থেকে মাসুরার খেলাধুলার প্রতি আগ্রহ দেখে আমি তাকে খেলা চালিয়ে যেতে বলেছিলাম। অনেকেই অনেক কথা বলতেন। মেয়ে হয়ে কেন ফুটবল খেলবে। তবে সব বাধা অতিক্রম করে তাকে খেলা চালিয়ে যেতে আমি তাকে উৎসাহ দিতাম।

তিনি আরও বলেন, মেজ মেয়ের বিয়ে হয়ে গেছে বলে আমি মাঝে মাঝে তাকে বিয়ের কথা বলি। তবে বিয়েতে সে সায় দেয়না। ফুটবলই ওর ধ্যান-জ্ঞান।

মাসুরার স্থানীয় কোচ প্রয়াত আকবার আলীর স্ত্রী রেহেনা আক্তার বলেন, পিটিআই মাঠে সাবিনাসহ অন্যান্য খেলোয়াড়রা ফুটবল খেলতো। সে সময় তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী মাসুরা ওই মাঠে বসে খেলা দেখতো। মাঝে মাঝে বল মাঠের বাইরে গেলে মাসুরা তা কুড়িয়ে আনতো। ফুটবলের প্রতি আগ্রহ দেখে আমার স্বামী আকবার আলী তাকে তার মা-বাবার কাছ থেকে নিয়ে যান। সেই থেকে মাসুরা তার স্বামীর প্রত্যক্ষ তত্ত্বাবধানে খেলতে খেলতে আজ এ পর্যন্ত।

মাসুরার বাবা রজব আলীর নিজস্ব জায়গা-জমি নেই। থাকেন বিনেরপোতায় সড়ক ও জনপদ বিভাগের জায়গায়।

সাফজয়ী ডিফেন্ডার মাসুরা সাতক্ষীরায়, খেললেন চ্যারিটি ম্যাচ

রজব আলী বলেন, অসুস্থতার জন্য এখন কাজ করতে পারিনা। সড়ক ও জনপদ বিভাগের জায়গায় থাকি। সরকারিভাবে একটি ঘর পেলে খুবই উপকৃত হতাম।

মাসুরা জানান, সাতক্ষীরার মানুষের ভালোবাসা পেয়ে উচ্ছ্বসিত তিনি। সাফ জয়ের পরে ফুটবলকে নিয়ে উন্মাদনার জন্য দেশবাসিকেও ধন্যবাদ জানান মসুরা।

সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক (ডিসি) মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির বলেন, আগামী রোববার জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে মাসুরা পারভীনকে সংবর্ধনা দেওয়া হবে। আর সুবিধাজনক সময়ে জেলা ক্রীড়া সংস্থার পক্ষ থেকে সাবিনা খাতুন ও মাসুরা পারভীনকে সংবর্ধনা দেওয়া হবে।

তবে শ্যামনগরে মহিলা চ্যারিটি ম্যাচে মাসুরাকে পেয়ে সাতক্ষীরা-৪ আসনের সংসদ সদস্য এসএম জগলুল হায়দার বলেন, মাসুরা আমাদের সাতক্ষীরার গর্ব। মসুরা ও সাবিনা আমাদের দেশকে বিশ্বের দরবারে নতুন পরিচিতি এনে দিয়েছে।

সূত্র : রাইজিং বিডি

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles