15.5 C
Toronto
শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ৩০, ২০২২

দুর্দান্ত ডিসপ্লের সঙ্গে দারুন পারফরম্যান্স নিয়ে সস্তায় Redmi 11 Prime 5G

- Advertisement -

15,000 টাকার কম দামে ভালো স্মার্টফোন লঞ্চ বন্ধ হয়েছে বহুদিন। আগে এই দামে Redmi Note সিরিজের ফোনগুলি বিক্রি হলেও এখন সেই ফোনের দাম অনেকটা বেড়েছে। ফলে 10,000-15,000 টাকা বাজেটের স্মার্টফোন বাজারে এক শূন্যতার সৃষ্টি হয়েছে। আর এই দামেই সম্প্রতি লঞ্চ হয়েছে Redmi 11 Prime 5G। কম দামে 5G সাপোর্ট সহ মোবাইলের বাজারে এটাই সেরা? পড়ুন রিভিউ

​Redmi 11 Prime 5G Review: ডিজাইন ও ডিসপ্লে
Redmi ব্র্যান্ডের অন্যান্য ফোনের থেকে এই ফোনের ডিজাইনে খুব বেশি পার্থক্য দেখা যায়নি। থাকছে প্লাস্টিক ব্যাক। ফোনের পিছনে রয়েছে 2টি ক্যামেরা। 50 MP প্রাইমারি ক্যামেরার সঙ্গে রয়েছে 2 MP ডেপ্ত সেন্সর। এই ফোনে হেডফোন জ্যাক ও ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর থাকছে। দ্রুত কাজ করবে এই ফোনের ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর।

Redmi 11 Prime 5G -তে রয়েছে 6.58 ইঞ্চি FHD+ LCD ডিসপ্লে। এই ডিসপ্লেতে 90 Hz রিফ্রেশ রেট থাকছে। দিনের আলোতে এই হাই রিফ্রেশ রেট ডিসপ্লে ব্যবহারে সমস্যা হবে না। FHD+ রেসোলিউশনের এই ডিসপ্লেতে Facebook, YouTube, Netflix ভিডিয়ো দেখতে কোন সমস্যা হবে না।

​Redmi 11 Prime 5G: পারফরম্যান্স
এই ফোন থেকে খুব বেশি পারফরম্যান্সের প্রত্যাশা ছিল না। যদিও Asphalt 9 -এর মতো হাই গ্রাফিক্স গেম মসৃণভাবে চলেছে। মাল্টিটাস্কিংয়েও কোন সমস্যা হয়নি। যদিও প্রিমিয়াম সেগমেন্টের ফোনের সঙ্গে এই ফোনের পারফরম্যান্সের তুলনা কলতে হতাশ হতে হবে। সস্তার এই ফোনে 5G কানেক্টিভিটির সঙ্গে পাবেন ভালো পারফরম্যান্স।

SA ও NSA 5G কানেক্টিভিটি সাপোর্ট থাকছে এই ফোনে। NSA বিভাগে n1 n3, n40, n78 ব্যান্ড সাপোর্ট থাকছে। অন্যদিকে SA বিভাগে থাকবে n1, n3, n5, n8, n28, n40 ও n78 5G ব্যান্ড সাপোর্ট। কোম্পানির তরফ থেকে জানানো হয়েছে 5G পরিষেবা শুরু হলে দেশের প্রায় সব সার্কেলে 5G সাপোর্ট পাওয়া যাবে এই ফোনে।

​Redmi 11 Prime 5G: ব্যাটারি
এই ফোনে রয়েছে 5,000 mAh ব্যাটারি। এক চার্জে খুব সহজে এক দিন চলবে এই ফোন। যদিও এই ফোনে 22.5 W চার্জার দিয়েছে বেজিংয়ের সংস্থাটি। ফোনটি সম্পূর্ণ চার্জ হতে 2 ঘণ্টার বেশি সময় লাগবে।

​Redmi 11 Prime 5G: ক্যামেরা
Redmi 11 Prime 5G -তে রয়েছে 50 MP প্রাইমারি ক্যামেরা। দিনের আলোতে এই ক্যামেরায় দুর্দান্ত ছবি উঠবে। কিন্তু ঘরে ভিতরে এই ফোনের ক্যামেরায় তোলা ছবি ভালো পছন্দ হয়নি আমাদের। সেই ছবিগুলিতে অতিরিক্ত স্যাচুরেশন চোখে পড়েছে। এছাড়াও খামতি ছিল ডিটেলে। কম আলোতে এই ফোনের ছবি আরও খারাপ হবে। নাইট মোড থাকলেও সেখানে খুব ভালো ছবি উঠবে না। উজ্জ্বল আলোতে পোট্রেট মোডে ভালো ছবি উঠেছে।

​Redmi 11 Prime 5G: কেনা উচিত?
5G ফোন কেনার পরিকল্পনা থাকলে ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট ফাঁকা না করে কিনতে পারেন এই ফোন। এখন Redmi 11 Prime 5G কিনলে তা অনায়াসে আগামী 2-3 বছর ব্যবহার করা যাবে। এই ফোনের ক্যামেরা ছাড়া আর কোন ফিচার ব্যবহারে আমাদের খুব বেশি সমস্যা হয়নি। যদিও সস্তার এই 5G ফোন কোন দুর্দান্ত ফিচার পাবেন না। কম খরচে 5G ফোন কেনার পরিকল্পনা থাকলে এই ফোন কেনার কথা ভেবে দেখতে পারেন। যদিও এখনই 5G ফোনের প্রয়োজন না হলে অপেক্ষা করতে পারেন আরও কয়েক মাস।

Redmi 11 Prime 5G Unboxing, First Impressions, Specifications

Related Articles

Latest Articles