10.1 C
Toronto
বুধবার, অক্টোবর ৫, ২০২২

ছাত্রদল নেতা এখন ছাত্রলীগ সভাপতি

- Advertisement -

ছাত্রদল নেতা এখন ছাত্রলীগ সভাপতি

রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাকিবুল ইসলাম রানা মাত্র দুই বছর আগেও জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের নেতা ছিলেন। ছাত্রদলের পদ ত্যাগ না করেই হয়েছেন জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি। বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও রাজশাহীর সাবেক মেয়র মিজানুর রহমান মিনুর সঙ্গে ছাত্রলীগ নেতা রানার আগের একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ঘুরে বেড়াচ্ছে। এ নিয়ে রাজশাহীতে আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের মাঝে তোলপাড় চলছে। ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবিতে প্রধানমন্ত্রী বরাবর অভিযোগ দিয়েছেন। তবে ছাত্রলীগ সভাপতির দাবি, তার বিরুদ্ধে পরিকল্পিত ষড়যন্ত্রের অংশ হিসাবে এসব ছড়ানো হচ্ছে। তিনি কোনো দিন ছাত্রদল করেননি। সব অভিযোগ মিথ্যা।

অভিযোগ উঠেছে, সাকিবুল ইসলাম রানা ছাত্রাবস্থায় রাজশাহী কলেজের মুসলিম ছাত্রাবাস শাখা ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক ছিলেন। ওই সময়ে ছাত্রদলের মহানগর কমিটির দলীয় প্যাডে ঘোষিত মুসলিম ছাত্রাবাসের কমিটির একটি কপিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। অভিযোগকারীরা আরও বলছেন, রানা ২০২০ সাল পর্যন্ত ছাত্রদলের রাজনীতিতে সক্রিয় ছিলেন। ছাত্রদলের নথিপত্রে ও ছবিতে এর প্রমাণ আছে।

জানা গেছে, ২৪ ফেব্রুয়ারি রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগের ৩০ সদস্যের কমিটি ঘোষণা করেন ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য। তাতে পরবর্তী এক বছরের জন্য সাকিবুল ইসলাম রানাকে সভাপতি ও জাকির হোসেন অমিকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়। কমিটি ঘোষণার সময়েই জেলা ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা বিভিন্নভাবে এর প্রতিবাদ করেছিলেন।

দলীয় নেতাকর্মীরা অভিযোগে আরও জানান, ২০১৬ সালের ১ ডিসেম্বর ছাত্রদল রাজশাহী কলেজ শাখার তৎকালীন সভাপতি মুর্ত্তজা ফামিন ও সাধারণ খন্দকার মাকসুদুর রহমান স্বাক্ষরিত দলীয় প্যাডে কলেজের মুসলিম ছাত্রাবাস শাখা ছাত্রদলের ৮ সদস্যের একটি কমিটি ঘোষণা করা হয়। ওই কমিটির ৬নং যুগ্ম-সম্পাদক করা হয় সাকিবুল ইসলাম রানাকে। রানা ওই সময় কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র ছিলেন। মুসলিম ছাত্রাবাস শাখা ছাত্রদলের ঘোষিত কমিটির নেতারাসহ কলেজ শাখা ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা তৎকালীন মহানগর বিএনপির সভাপতি ও সাবেক মেয়র মিজানুর রহমান মিনুর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। ছবিটিতে রাজশাহী কলেজ শাখা ছাত্রদলের অন্য নেতাদের সঙ্গে মিনুর পেছনে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায় বর্তমান ছাত্রলীগ সভাপতি রানাকেও।

দলীয় নেতাকর্মী সূত্রে জানা যায়, মুসলিম ছাত্রাবাস শাখা ছাত্রদলের ওই কমিটিটি ৪ বছর কার্যকর ছিল। ২০২০ সালের ৩১ আগস্ট ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটির নির্দেশনা অনুযায়ী রাজশাহী মহানগরের সব শাখা ইউনিট কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়। সেই বিলুপ্ত কমিটিগুলোর তালিকায় ছিল রাজশাহী কলেজ মুসলিম ছাত্রাবাস ছাত্রদলের কমিটিও। তবে কমিটি বিলুপ্তির আগ পর্যন্ত সাকিবুল ইসলাম রানা ছাত্রদলের রাজনীতিতে সক্রিয় ছিলেন। রানা সক্রিয়ভাবে অংশ নিয়েছেন ছাত্রদলের দলীয় বিভিন্ন কর্মসূচিতে। এদিকে ছাত্রদলের রাজনীতিতে সক্রিয় থাকার মধ্যেই ২৪ ফেব্রুয়ারি ছাত্রদল নেতা রানা রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি হয়ে যান।

রাজশাহী কলেজ শাখা ছাত্রদলের তৎকালীন সভাপতি মুর্ত্তজা ফামিন বলেন, সাকিবুল ইসলাম রানা ছাত্রদল নেতা। আমরা আশ্চর্য হয়েছি তখন, যখন দেখলাম রানা রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি হয়ে গেছেন। রানা ২০২০ সাল পর্যন্ত ছাত্রদলের রাজনীতিতে সক্রিয় ছিল। মিছিল, মিটিং, বিক্ষোভ সবকিছুতেই সামনে থেকেছে। দীর্ঘ সময় ছাত্রদলের রাজনীতিতে সক্রিয় থাকায় দলের সুযোগ-সুবিধাও পেয়েছে। মুসলিম ছাত্রাবাস শাখা ছাত্রদলের কমিটি বিলুপ্ত করা হলেও সে ছাত্রদল থেকে অব্যাহতি নেয়নি।

এ বিষয়ে রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাকিবুল ইসলাম রানা বলেন, আমার বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ আনা হচ্ছে তা একেবারেই মিথ্যা ও বানোয়াট। আমি কখনো ছাত্রদলের রাজনীতিতে জড়িত ছিলাম না। এর মাধ্যমে আমাকে রাজনৈতিকভাবে হেয়প্রতিপন্ন করার চেষ্টা চালাচ্ছে একটি মহল।

সূত্র : যুগান্তর

Related Articles

Latest Articles