8.6 C
Toronto
বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২২

তালাকের পর আমি বিয়ে করেছি, আমার প্রাক্তনও করেছে: ন্যান্সি

- Advertisement -
নাজমুন মুনিরা ন্যান্সি

গত বছরের আগস্টের শেষ সপ্তাহে পারিবারিক আয়োজনে গীতিকার মহসিন মেহেদীকে বিয়ে করেন নাজমুন মুনিরা ন্যান্সি। স্বামী মহসিন মেহেদী বর্তমানে দেশের অন্যতম একটি শীর্ষস্থানীয় অডিও প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের কর্তাব্যক্তি।
তালাকের পর আমি বিয়ে করেছি, আমার প্রাক্তনও করেছে: ন্যান্সি

গত ২৯ জুন রাজধানীর একটি হাসপাতালে কন্যাসন্তানের জন্ম দিয়েছেন এ শিল্পী। জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত এ সংগীত শিল্পীর তৃতীয় সন্তান এটি।

তৃতীয় সংসার শুরু করায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নেটিজেনদের বেশ কটাক্ষের শিকার হতে হয় এই শিল্পীকে। ‘নোংরা’ মন্তব্যের শিকার হওয়ার পাশাপাশি কেন বারবার সংসার ভাঙছে–এ প্রশ্নও করেন অনেকেই।

এবার সেসব প্রশ্নের জবাব নিয়েই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে হাজির হয়েছিলেন গায়িকা। শনিবার (১০ সেপ্টেম্বর) রাতে ফেসবুক লাইভে আসেন ন্যান্সি।

লাইভে ন্যান্সি বলেন, ‘অনেক দিন ধরে এসব প্রশ্ন শুনছি। কিন্তু আমার স্বামী (মেহেদী) এসব পছন্দ করেন না। তিনি মনে করেন, ব্যক্তিগত ও শিল্পীজীবন দুটো আলাদা। কিন্তু কিছু মানুষের এত বেশি আগ্রহ যে কিছু প্রশ্নের উত্তর না দিলেই নয়।’

তিনি বলেন, ‘আমার যিনি প্রাক্তন ছিলেন, যিনি আমার সন্তানের পিতা; তার প্রতি আমি যেমন শ্রদ্ধাশীল, তিনিও আমার প্রতি শ্রদ্ধাশীল। কিন্তু জীবনে চলার পথে যখন আমাদের মনে হয়েছে কোথাও আমাদের ঘাটতি রয়েছে, তখন আমরা আলাদা হয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিই। আর এই সিদ্ধান্ত আমরা বুঝেশুনেই নিয়েছি। আমি বিয়ে করে সংসার করছি আর আমার প্রাক্তন একা জীবনযাপন করছেন—এমনটা অনেকে ভাবছেন! তাদের অবগতির জন্য জানাচ্ছি, আপনারা এত বোকা কেন? আমার প্রাক্তনও সংসার করছেন, সুখে আছেন। যার সঙ্গে দীর্ঘদিন প্রণয়ে ছিলেন, তাকে বিয়ে করেছেন। তারা ভালোবেসে ঘর বেঁধেছেন।’

ন্যান্সি বলেন, ‘আমি মেহেদীকে ভালোবেসে বিয়ে করেছি। আমার মনে হয়, ভালোবাসা ও প্রণয়ের মধ্যে কিছুটা তফাত রয়েছে। প্রণয়ের চেয়ে ভালোবাসার গভীরতা অনেক বেশি। মেহেদীর প্রতি আমার অনেক আস্থা। এই আস্থা ও ভালোবাসার জায়গা থেকে আমরা একে অপরকে বিয়ে করি। আল্লাহর অশেষ রহমতে আমাদের একটি কন্যাসন্তানও আছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘মেহেদীর চেয়ে আমি নয় বছরের ছোট। আমার মনে হয়, এতটুকু ছোট-বড় হওয়াটা পারফেক্ট। এতে পথচলাটা মসৃণ হয়।’

২০০৬ সালে হৃদয়ের কথা ছবির গানে কণ্ঠ দিয়ে মিডিয়ায় যাত্রা শুরু হয় ন্যান্সির। একই বছর বিজ্ঞাপনের জিঙ্গেলেও অভিষেক হয় তার। পরের বছরে ২০০৮ সালে আকাশছোঁয়া ভালোবাসা ছবির পৃথিবীর যত সুখ যত ভালোবাসা গানটির মাধ্যমে রাতারাতি আলোচনায় আসেন ন্যান্সি। আমার আছে জল এবং চন্দ্রগ্রহণ চলচ্চিত্রের গানেও কণ্ঠ দেন তিনি। ২০০৯ সালে সংগীতা থেকে বের হয় ন্যান্সির প্রথম একক অ্যালবাম ভালোবাসা অধরা।

এ ছাড়া থার্ড পারসন সিঙ্গুলার নাম্বার চলচ্চিত্রে হাবিব ওয়াহিদের সংগীত পরিচালনায় তার সঙ্গে দ্বৈত দ্বিধা গানটি শ্রোতাপ্রিয়তা লাভ করে। এ গানের জন্য তিনি প্রথমবার মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার-এ তারকা জরিপে শ্রেষ্ঠ কণ্ঠশিল্পী বিভাগে পুরস্কার লাভ করেন। ২০১০ সালে হাবিবের সংগীত পরিচালনায় খোঁজ: দ্য সার্চ চলচ্চিত্রে এত দিন কোথায় ছিলে এবং ভালোবাসলেই ঘর বাঁধা যায় না চলচ্চিত্রে বুকের ভিতর গানে কণ্ঠ দেন। ২০১৪ সালের ১১ সেপ্টেম্বর ন্যান্সি বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি)-এর অঙ্গসংগঠন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী সাংষ্কৃতিক সংস্থা (জাসাস)-এর ঢাকা মহানগর দক্ষিণ শাখার সহসভাপতিত্ব গ্রহণ করেন।

Related Articles

Latest Articles