10.6 C
Toronto
শনিবার, অক্টোবর ১৬, ২০২১

আয় করা যাবে বাড়িতে পড়ে থাকা স্বর্ণ থেকেও!


বাসায় পড়ে থাকা স্বর্ণের গহনা আদতে কোনও কাজেই আসে না। কেউ বা আবার নিরাপত্তার জন্য ব্যাংকের লকারে রেখে দেন এসব গহনা। এতে গুণতে হয় ভাড়াও। শখের এসব গহনা অনেকেই পরতে পারেন না বিপদের আশঙ্কায়। তাই তো এসব মানুষের কথা মাথায় রেখেই নতুন এক প্রকল্প হাতে নিয়েছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার।

রিভ্যাম্পড গোল্ড ডিপোজিট স্কিম (আর-জিডিএস) একটি প্রকল্প হাতে নিয়েছে স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া। এর মাধ্যমে ঘরে পড়ে থাকা অলস স্বর্ণের গহনা থেকেও এখন আয় করতে পারবেন ভারতীয়রা। দেশের মানুষের কাছে গচ্ছিত থাকা স্বর্ণ যাতে কাজে লাগে তাই কেন্দ্রীয় সরকারের এই প্রকল্প স্বর্ণ নগদীকরণের লক্ষ্যে চালু করা হয়েছে।

আর-জিডিএস-এ তিনভাবে বিনিয়োগ করার সুযোগ রয়েছে। এতে তিনটি আলাদা ধাপে আলাদা তিনটি হারে সুদ বাবদ আয় করতে পারবেন গ্রাহকরা। স্বল্পকালীন মেয়াদে ১ থেকে ৩ বছর, মধ্যমেয়াদী ৫ থেকে ৭ বছর এবং দীর্ঘমেয়াদি ১২ থেকে ১৫ বছরের জন্য বিনিয়োগ করা যাবে।

সবচেয়ে কম ১০ গ্রাম স্বর্ণ বিনিয়োগ করার সুযোগ থাকবে নতুন এই প্রকল্পে। এক্ষেত্রে বার কিংবা গয়না দুই ধরণের স্বর্ণ রেখেই এই সুবিধা পাওয়া যাবে। সর্বনিম্ন সীমা নির্ধারিত হলেও বিনিয়োগের কোনো সর্বোচ্চ সীমা রাখা হয়নি। বিনিয়োগকারী এর জন্য রাখতে পারবেন একজন নমিনিও।

গ্রাহকরা এক বছরের জন্য বছরে ০.০৫ শতাংশ সুদ পাবেন স্বল্পকালীন বিনিয়োগের জন্য। এ ছাড়া ০.৫৫ শতাংশ সুদ দুই বছর পর্যন্ত এবং ০.৬০ শতাংশ হারে সুদ পাওয়া যাবে তার বেশি হলে। মধ্যমেয়াদী বিনিয়োগে বছরে ২.২৫ হারে ও দীর্ঘমেয়াদির ক্ষেত্রে ২.৫০ শতাংশ হারে সুদ পাবেন গ্রাহকরা।

আর-জিডিএস নামের ওই প্রকল্পে গ্রাহকরা যখন অংশ নেবেন সেই সময়ের স্বর্ণের দর অনুযায়ী বিনিয়োগের মোট পরিমাণ নির্ধারণ করা হবে। এর উপরেই নির্ধারণ করা হবে সুদও। প্রতি আর্থিক বছরের সমাপ্তিতে ৩১ মার্চ সংশ্লিষ্ট ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে জমা পড়বে সুদ। প্রতি বছর সরল সুদ অথবা একবারে মেয়াদের শেষে সমষ্টিগত সুদ নিতে পারবেন গ্রাহকরা।

সূত্র: আনন্দবাজার

- Advertisement - Visit the MDN site

Related Articles

- Advertisement - Visit the MDN site

Latest Articles