22 C
Toronto
বুধবার, আগস্ট ১০, ২০২২

শাবি শিক্ষার্থী খুন: হাসপাতাল থেকে ‘উধাও’ বুলবুলের বান্ধবী

- Advertisement -

সিলেট শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী বুলবুল আহমেদ হত্যাকাণ্ডের সময় টিলায় অবস্থান তার বান্ধবী মার্জিয়া ঊর্মি হাসপাতাল থেকে ‘উধাও’ হয়েছেন। বুলবুলকে হত্যাকাণ্ডের পর বার বার অজ্ঞান হওয়া ঊর্মিকে হাসপাতালে ভর্তি করা হলে মঙ্গলবার বিকালে কাউকে না জানিয়ে হাসপাতাল ছেড়ে চলে যান তিনি। খবর পেয়ে তার সন্ধান পেতে মাঠে নেমেছে পুলিশ।

সিলেট মহানগর পুলিশের উপ-কমিশনার আজবাহার আলী শেখ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আজবাহার আলী জানান, ‘হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন ঊর্মি। তিনি হুট করে হাসপাতাল থেকে চলে গেছেন। কী কারণে তিনি চলে গেছেন সেটা জানার জন্য তার খোঁজ করা হচ্ছে।’

জানা যায়- সোমবার (২৫ জুলাই) সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশে গাজিকালুর টিলার পাশে ছুরিকাঘাতে আহত হন ২২ বছর বয়সী শাবিপ্রবি শিক্ষার্থী বুলবুল আহমেদ। বিশ্ববিদ্যালয়ের লোক প্রশাসন বিভাগের তৃতীয় বর্ষের এই শিক্ষার্থীকে যখন ছুরিকাঘাত করা হয় তখন টিলায় তার সঙ্গে ছিলেন বান্ধবী ঊর্মি।

ছুরিকাঘাতে আহত বুলবুলকে ওসমানী হাসপাতালে আনা হলে ঊর্মির সেখানে যান। বার বার অজ্ঞান হয়ে যাচ্ছিলেন তিনি। পরে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সোমবার রাতেই নগরীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে তাকে ভর্তি করান। তবে মঙ্গলবার বিকেলের দিকে তিনি হুট করে হাসপাতাল থেকে ‘উধাও’হয়ে যান। তাকে খুঁজে বের করার জন্য পুলিশ চেষ্টা চালাচ্ছে।

শাবি শিক্ষার্থী বুলবুল হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় জালালাবাদ থানায় একটি মামলা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ইশফাকুল হোসেনের করা মামলায় অজ্ঞাতনামা কয়েকজনকে আসামি করা হয়েছে।

পুলিশের অভিযানে সন্দেহভাজন তিন জন বহিরাগত আটক হয়েছেন।

হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটনে ৫ সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। কমিটির আহ্বায়ক করা হয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক আখতারুল ইসলামকে।

সূত্র : ঢাকাটাইমস

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles