19.6 C
Toronto
সোমবার, জুন ২৭, ২০২২

স্বামীকে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে ছাত্রলীগ নেতার সঙ্গে অবৈধ মেলামেশা গৃহবধূর!

- Advertisement -
স্বামীকে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে ছাত্রলীগ নেতার সঙ্গে অবৈধ মেলামেশা গৃহবধূর! - The Bengali Times
অভিযুক্ত প্রেমিক ও গৃহবধূ

জামালপুরের মেলান্দহ উপজেলার শ্যামপুর ইউনিয়নের ২ নম্বর চর গ্রামে গৃহবধূর সঙ্গে পরকীয়া করতে গিয়ে স্থানীয়দের হাতে আটক হয়েছেন এক ছাত্রলীগ নেতা।

এ ঘটনাটি প্রায় ২ দিন চাপা থাকলেও শনিবার (২৩ এপ্রিল) সকাল থেকে এটি প্রকাশ পায়। এর আগে বুধবার (২০ এপ্রিল) দিনগত রাতে ওই গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ওই গৃহবধূকে তালাক দিয়েছেন তার স্বামী।

আটককৃত ব্যক্তি উপজেলার ২ নম্বর চর গ্রামের জহুরুল ইসলামের ছেলে আমিনুল ইসলাম। তিনি উপজেলার ১১ নম্বর শ্যামপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের উপ ও ত্রাণবিষয়ক সহসম্পাদক।

জানা গেছে, ছাত্রলীগ নেতা আমিনুল গৃহবধূর সঙ্গে পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন। বুধবার (২০ এপ্রিল) দিনগত রাতে স্বামীকে ঘুমের ওষুধ খাওয়ান ওই গৃহবধূ। পরে ছাত্রলীগ নেতার সঙ্গে অবৈধ মেলামেশার প্রস্তুতি নেন। এ সময় তারা স্থানীয়দের হাতে আটক হন। পরেরদিন বিষয়টি জানাজানি হলে গ্রামের প্রায় চার থেকে পাঁচশ লোকের উপস্থিতিতে স্বামী ওই গৃহবধূকে তালাক দেন।

আটককৃত আমিনুল ইসলাম আমিন খাঁন বলেন, দীর্ঘদিন ধরে মোবাইলে ওই নারীর সঙ্গে তার যোগাযোগ ছিল। এছাড়া তাদের মধ্যে অন্য কোনো সম্পর্ক ছিল না।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত নারীর ভাষ্য, প্রায় ৭ মাস আগে আমার পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। বিয়ের ২ মাস পর আমিনুলের সঙ্গে পরিচয় হয়। এরপর মাঝে মধ্যেই আমিনুল বাসায় আসতেন এবং অবৈধ মেলামেশা করতেন।

শ্যামপুর ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার শাহজাহান এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনার পরদিন ছেলে ও মেয়ে পক্ষের লোকজন আমার কাছে এসেছিল। পরে গ্রাম্য সালিশে গৃহবধূর তালাক হয়।

এ বিষয়ে কাজী ও মেলান্দহ পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হযরত বলেন, সালিশের শেষ পর্যায়ে ১১ নম্বর শ্যামপুর ইউনিয়নের কাজী তোফায়েল তাকে ঘটনাস্থলে নিয়ে যান। পরে ঘটনার বিস্তারিত তিনি লোকমুখে শুনতে পান। গ্রামের চার- পাঁচশ লোকের সামনে স্বামী ওই গৃহবধূকে তালাক দেন। তবে তালাকের পর গৃহবধূর সঙ্গে ওই ছেলের বিয়ে হয়নি।

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles