21.5 C
Toronto
শনিবার, মে ২৮, ২০২২

‘প্রধানমন্ত্রী আমার রুবেলের জন্য কি একটু মাটি দেবেন না’?

- Advertisement -
‘প্রধানমন্ত্রী আমার রুবেলের জন্য কি একটু মাটি দেবেন না’? - The Bengali Times
রুবেলের স্ত্রী চৈতি ফারহানা রুপা

সব চেষ্টা ব্যর্থ করে দিয়ে না-ফেরার দেশে পাড়ি জমিয়েছেন জাতীয় দলের সাবেক স্পিন অলরাউন্ডার মোশাররফ হোসেন রুবেল। গত ১৯ এপ্রিল সন্ধ্যায় পুরো ক্রিকেটবিশ্বকে কাঁদিয়ে প্রাণঘাতী ক্যান্সারের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে তিনি হেরে যান। সেদিনই রাতে বনানী কবরস্থানে দাফন করা হয় এই ক্রিকেটারকে। বনানী কবরস্থানে প্রতিটি কবরের স্থায়িত্ব দুই বছর।

এই সময়ের পর সেই জায়গাই হয়ে যাবে অন্য কারো। তাই রুবেলের কবরটি স্থায়ী করার অনুরোধ জানালেন তার স্ত্রী চৈতি ফারহানা রুপা।

- Advertisement -

আজ শুক্রবার একমাত্র সন্তান রুশদানকে নিয়ে চৈতি বনানী করবস্থানে এসেছিলেন মোশাররফ হোসেন রুবেলের কবর জিয়ারত করতে। কবর জিয়ারত শেষে তিনি সাংবাদিকদের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর কাছে এই অনুরোধ জানান। বনানী কবরস্থানে স্থায়ীভাবে জায়গা রাখতে হলে প্রায় এক কোটি টাকা প্রয়োজন। কিন্তু তিন বছর ধরে ক্যান্সারের বিরুদ্ধে লড়াই করতে করতে প্রয়াত মোশাররফের পরিবার এখন নিঃস্বপ্রায়! সেখানে এক কোটি টাকা কোথায় পাবেন চৈতি?

তাই কাঁদতে কাঁদতে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘রুবেল তো আসলে আমাদের সবার, তাই না? রুবেল তো দেশের জন্য খেলেছে। সত্যি কথা বলতে, এখানে স্থায়ী করতে হলে অনেক টাকা লাগে, প্রায় এক কোটি টাকা। আমার কাছে তো এত টাকা নেই। আমি চাই, রুবেলের কবরটা স্থায়ী হোক। রুবেল যেন একটু মাটি পায়। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমার একটাই চাওয়া, উনি তো অনেককে অনেক কিছু দেন। তিনি তো আমাদের ক্রিকেটারদের জন্য অনেক কিছু করেন। জীবিত ক্রিকেটারদের জন্য তো ওনার অনেক কিছু…আমার রুবেলের জন্য কি একটু মাটি তিনি দেবেন না? রুবেলের জন্য একটা স্থায়ী ঠিকানা, যাতে আমার ছেলেটা দেখতে পারে। দুই বছর পর আমরা তো পারব না রুবেলকে দেখতে। রুবেল তো কোথাও নেই, শুধু এখানে আছে। ‘

kalerkantho

 

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles