16.8 C
Toronto
মঙ্গলবার, মে ২৪, ২০২২

সাত অভ্যাসেই বদলে যেতে পারে জীবন

- Advertisement -
সাত অভ্যাসেই বদলে যেতে পারে জীবন - The Bengali Times
প্রতীকী ছবি

আমাদের দৈনন্দিন জীবন সুস্থ ও সুন্দর রাখতে কিছু অভ্যাস তৈরি করা উচিত। ছোট ছোট সাতটি অভ্যাস যদি আপনি অনুশীলন করতে পারেন, তাহলে আপনার জীবন ইতিবাচকভাবে বদলে যাবে, যা নিজেই অনুভব করতে পারবেন। তবে শর্ত হলো, টানা এক মাস এই অভ্যাসগুলো অনুসরণ করতে হবে। আসুন জেনে নিই, যে সাত অভ্যাসে বদলে যেতে পারে জীবন।

১. দিনে অন্তত আট ঘণ্টা ঘুম শরীরের জন্য খুব জরুরি। সেটা ৬-৭ ঘণ্টা হলেও ক্ষতি নেই। তবে প্রতিদিন এই সময়টুকু ঘুমানোর চেষ্টা করতে হবে। নিয়মিত একই সময়ে ঘুমাতে যাবেন। দেখবেন একই সময়ে ওঠার অভ্যাসও হয়ে যাবে। আমাদের দেহঘড়ি সেটা নিয়ন্ত্রণ করে। এভাবে অনুশীলন করলে শরীর সুস্থ ও সবল থাকবে।

- Advertisement -

২. একটা সুস্থ মানুষের প্রতিদিন অন্তত তিন লিটার পানি পান করা উচিত। তা-ও না পারলে ৮-১০ গ্লাস পানি পান করবেন। বাইরে বের হলে সঙ্গে পানির বোতল রাখতে পারেন। নির্দিষ্ট সময় পরপর পানি পান করুন। এতে শরীর সারাক্ষণ আর্দ্র থাকবে। এভাবে এক মাস পানি পান করলে সেটা শরীর তার নিজস্ব দেহগড়ির সাহায্যে তা অভ্যাসে পরিণত করে নেবে। তখন আপনার শরীরই মনে করিয়ে দেবে পানি পান করার কথা।

৩. সূর্যালোকের সঙ্গে আমাদের মানসিক স্বাস্থ্যের গভীর সম্পর্ক আছে। এক গবেষণায় দেখা গেছে, আমাদের শরীরে প্রতিদিন অন্তত ১০ মিনিট সূর্যের আলোর দরকার আছে। তাই দিনে ১০-৩০ মিনিট রোদে থাকার অভ্যাস করুন। বিশেষ করে ভোর ৬টা থেকে সকাল ৯টা—এই তিন ঘণ্টা সবচেয়ে ভালো। আলট্রাভায়োলেট রশ্মি এড়িয়ে শুধু ভিটামিন ডি উৎপন্ন করতে সক্ষম–এমন উপকারী আলো পাওয়া যাবে। এক মাস অভ্যাস করে এটাকে জীবনযাপনের সঙ্গী করে নিন।

৪. চিনি থেকে মুক্ত থাকুন। যেসব খাবারে চিনি আছে, তা পরিহারের চেষ্টা করুন। আলাদা করে চিনি ও চিনিজাতীয় খাবার খাওয়ার দরকার নেই। এমনকি অন্তত এক মাস চিনি ছাড়া চা, কফি খান। প্রথম প্রথম কষ্ট হবে। পরে দেখবেন অভ্যাস হয়ে যাবে। চিনি শরীর বা ত্বকের জন্য ক্ষতিকর। চিনির সঙ্গে বাইরের ভাজাপোড়া খাবারও বাদ দিন।

৫. ব্যায়াম শরীরকে সুস্থ রাখতে সবচেয়ে বড় ভূমিকা পালন করে। সপ্তাহে অন্তত তিন দিন নিয়মিত ব্যায়াম করুন। দেখুন, ঘরের আশপাশে জিম বা যোগব্যায়ামের জায়গা আছে কি না। না থাকলে ঘরেই ম্যাট কিনে বসে পড়তে পারেন। ঘর বা বারান্দার একটা পাশেও বানিয়ে নিতে পারেন ছোট্ট জিম। কিছুই যদি না পারেন, তাহলে অন্তত হাঁটতে বেরিয়ে পড়ুন। সেই অবস্থাও না থাকলে বাসার ছাদে হাঁটুন। ছাদ না থাকলে ঘরেই হাঁটুন। তবে জোরে জোরে অন্তত আধা ঘণ্টা হাঁটতে হবে, যাতে গায়ে ঘাম হয়।

৬. প্রতিদিন আধা ঘণ্টা পড়ার অভ্যাস করুন। সেটি হতে পারে পত্রিকা, অনলাইন পত্রিকা, কোনো বিশেষ লেখা, ছোটগল্প, উপন্যাস, ভ্রমণকাহিনি বা প্রবন্ধ। সে যা-ই হোক না কেন, দিনে আধা ঘণ্টা পড়ার অভ্যাস আপনার মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা সচল রাখতে সহায়তা করবে।

৭. দিনে ১০ মিনিট মেডিটেশন করুন। ঘরের ভেতরে নিরিবিলি কোনো জায়গায় মেডিটেশন করতে পারেন। ঘুম থেকে উঠেই সেরে ফেলতে পারেন এটি। কিছুই না পারলে একটা জায়গায় পিঠ টানটান করে চুপচাপ বসে বুক ভরে শ্বাস নিন। শরীরের ভেতর বাতাসটা অনুভব করুন। ধীরে ধীরে নিশ্বাস ছেড়ে দিন। এভাবে আপনার শরীর আর মনকে সারা দিনের জন্য তৈরি করুন।

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles