18.9 C
Toronto
বৃহস্পতিবার, জুলাই ২৫, ২০২৪

ইউক্রেন ৪ শর্ত মানলে ‘মুহূর্তেই’ থামবে রাশিয়া

ইউক্রেন ৪ শর্ত মানলে ‘মুহূর্তেই’ থামবে রাশিয়া - the Bengali Times

ইউক্রেন চারটি শর্ত মেনে নিলে ‘এক মুহূর্তের মধ্যে’ সামরিক অভিযান বন্ধ করতে প্রস্তুত রাশিয়া। সোমবার (৭ মার্চ) ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ এ তথ্য জানান।

- Advertisement -

শর্তগুলো পুনর্ব্যক্ত করে পেসকভ বলেন, মস্কো ইউক্রেনের সামরিক কার্যক্রম বন্ধ করার দাবি জানিয়ে আসছে, নিরপেক্ষতা নিশ্চিত করতে দেশটির সংবিধান পরিবর্তন করতে হবে, ক্রিমিয়াকে রাশিয়ার ভূখণ্ড হিসেবে স্বীকৃতি দিতে হবে এবং বিচ্ছিন্নতাবাদী দোনেৎস্ক এবং লুহানস্ক প্রজাতন্ত্রকে স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দিতে হবে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে টেলিফোনে দেওয়া সাক্ষাৎকারে পেসকভ বলেন, ইউক্রেন শর্তগুলো সম্পর্কে অবগত এবং ‘তাদেরকে বলা হয়েছে-সব কিছু মুহূর্তের মধ্যে বন্ধ করা যেতে পারে’।

ইউক্রেনের পক্ষ থেকে এ বিষয়ে তাৎক্ষণিক কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

এদিকে, ইউক্রেন ও রাশিয়ার প্রতিনিধি দলের মধ্যে তৃতীয় দফা বৈঠক শুরু হয়েছে। তবে বৈঠকের স্থান প্রকাশ করা হয়নি।

গত ২৮ ফেব্রুয়ারি প্রথম দফার বৈঠক এবং ৩ মার্চ দ্বিতীয় দফার বৈঠক বেলারুশে অনুষ্ঠিত হয়।

আলোচনা শুরু হওয়ার কিছুক্ষণ আগে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্টের উপদেষ্টা মিখাইলো পোদোলিয়াক বেসামরিক মানুষের বিরুদ্ধে রাশিয়ান বাহিনীর বড় আকারের সহিংসতা থামানোর জন্য মস্কোর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

এক টুইটার পোস্টে পোদোলিয়াক বলেন, কয়েক মিনিটের মধ্যে আমরা একটি দেশের প্রতিনিধিদের সঙ্গে কথা বলা শুরু করব, যারা বিশ্বাস করে বেসামরিক নাগরিকদের বিরুদ্ধে বড় আকারের সহিংসতা একটি বিতর্ক। প্রমাণ করুন যে বিষয়টি এমন নয়।

এদিকে, রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ ও ইউক্রেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী দিমিত্রো কুলেবা বৈঠকে বসতে যাচ্ছেন। বৃহস্পতিবার (১০ মার্চ) তুরস্কের আনাতলিয়ায় এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে।

এর আগে বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় দফার বৈঠকে উভয়পক্ষ বেসামরিক নাগরিকদের সরিয়ে নিতে ‘মানবিক করিডোর’ তৈরির জন্য একটি অস্থায়ী পরিকল্পনায় সম্মত হয়।

উল্লেখ্য, গত ২৪ ফেব্রুয়ারি রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিনের সামরিক অভিযান ঘোষণার কয়েক মিনিট পরেই ইউক্রেনে বোমা ও ক্ষেপণাস্ত্র হামলা শুরু করে রুশ সেনারা। এরপর থেকে ইউক্রেন ও রাশিয়ার মধ্যে যুদ্ধ চলছে। ইতোমধ্যে ইউক্রেনের প্রায় ১৫ লাখ মানুষ বাস্তুচ্যুত হয়েছেন। এ ছাড়া দেশটির দুই হাজারের বেশি বেসামরিক নাগরিক নিহত এবং রাশিয়ার ১১ হাজার সৈন্য নিহত হয়েছে বলে দাবি করেছে ইউক্রেন।

অন্যদিকে রাশিয়া দাবি করেছে, যুদ্ধে তাদের ৪৯৮ সৈন্য নিহত এবং ইউক্রেনের ২ হাজার ৮৭০ জনের বেশি ইউক্রেনীয় সেনা নিহত হয়েছেন। এ ছাড়া জাতিসংঘ জানিয়েছে, রুশ হামলায় এখন পর্যন্ত ইউক্রেনের ৩৬৪ বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছেন। যদিও সংস্থাটি বলেছে, এটি নিশ্চিত যে প্রকৃত হতাহতের সংখ্যা হয়তো অনেক বেশি।

সূত্র : আলজাজিরা, সিএনএন

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles