21.7 C
Toronto
মঙ্গলবার, আগস্ট ৯, ২০২২

আইসিসির বর্ষসেরা ওয়ানডে ক্রিকেটারের দৌড়ে সাকিব

- Advertisement -
সাকিব আল হাসান।পুরোনো ছবি

নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরেই চমক দেখিয়েছেন সাকিব আল হাসান। আইসিসির বর্ষসেরা ওয়ানডে ক্রিকেটারের মনোনয়ন পেয়েছেন তিনি। আজ বৃহস্পতিবার আইসিসির এই বছরের সেরা ওয়ানডে ক্রিকেটার নির্বাচনে মনোনীত চারজনের তালিকায় জায়গা করে নেন বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডার।

এই তালিকায় বর্ষসেরা সেরা হওয়ার দৌড়ে সাকিব ছাড়াও আরো তিনজন হলেন, বাবর আজম, জান্নেমান মালান ও পল স্টার্লিং। চলতি বছরে সাকিব ব্যাট ও বল হাতে ৯ ওয়ানডে খেলেছেন। দুটি ফিফটির সঙ্গে ৩৯.৫৭ গড়ে মোট রান ২৭৭। এছাড়া ১৭.৫২ গড়ে উইকেট নিয়েছেন ১৭টি।

বর্ষসেরার দৌড়ে তার প্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানের অধিনায়ক বাবর ৬ ম্যাচে ৬৭.৫০ গড়ে দুটি সেঞ্চুরিসহ ৪০৫ রান করেন। এই বছর মাত্র ৬ ম্যাচ খেললেও দুটি সিরিজে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখেন। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ২-১ এ সিরিজ নিশ্চিতে দুটি জয়ের ম্যাচেই সেরা খেলোয়াড় হন পাকিস্তানের অধিনায়ক। ২২৮ রান করে সিরিজের দ্বিতীয় শীর্ষ ব্যাটসম্যান ছিলেন।

ইংল্যান্ডের কাছে ৩-০ তে হারার সিরিজে পাকিস্তানের একক যোদ্ধা ছিলেন বাবর। তিন ম্যাচে ১৭৭ রান করেন, কিন্তু সমর্থন পাননি অন্য প্রান্তের ব্যাটসম্যানদের। অন্য কোনো ব্যাটসম্যানই তিন ম্যাচ মিলিয়ে ১০০ করতে পারেননি।

দক্ষিণ আফ্রিকার জান্নেমান মালান আট ম্যাচে দুটি সেঞ্চুরি ও দুটি হাফ সেঞ্চুরিতে ৮৪.৮৩ গড়ে ৫০৯ রান করেন। গত বছর ফেব্রুয়ারিতে ওয়ানডে অভিষেকের পর দক্ষিণ আফ্রিকার ৫০ ওভারের সেট আপে দ্রুত নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেন তিনি।

মালান এই বছর প্রথম ম্যাচ খেলেন পাকিস্তানের বিপক্ষে তৃতীয় ওয়ানডেতে, যখন সিরিজ ১-১ এ সমতায় ছিল। ওই ম্যাচটি হেরে গেলেও মালান ৭০ রান করে আলো ছড়ান। আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে দুই ম্যাচে ২৬১ রান করে শীর্ষ স্কোরার ছিলেন, তিন ম্যাচের ওই সিরিজে হন সেরা খেলোয়াড়। দ্বিতীয় ওয়ানডেতে তার ৮৪ রান বিফলে যায় দলের হারে। তবে শেষ ম্যাচে ১৭৭ রানের অবিশ্বাস্য এক ইনিংস খেলেন মালান, দলের স্কোর দাঁড়ায় ৪ উইকেটে ৩৪৬ রান।

ওই ফর্মের ধারাবাহিকতা দেখা যায় শ্রীলঙ্কার বিপক্ষেও। সিরিজে ১৬২ রান করে দক্ষিণ আফ্রিকার শীর্ষ ব্যাটসম্যান ছিলেন তিনি। সিরিজে প্রোটিয়াদের একমাত্র জয়ের ম্যাচে মালান কলম্বোর কঠিন ব্যাটিং ট্র্যাকে ১৩৫ বলে ১২১ রান করেন। এই বছর ওয়ানডেতে শীর্ষ ব্যাটসম্যানের তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে তিনি।

আয়ারল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক স্টার্লিং খেলেছেন ১৪ ওয়ানডে। তিন সেঞ্চুরি ও দুটি হাফ সেঞ্চুরিতে ৭৯.৬৬ গড়ে ৭০৫ রান করেছেন। এই বছর ওয়ানডেতে রানের হিসাবে তিনিই সবার উপরে।

স্মরণীয় ইনিংসে বছর শুরু করেন স্টার্লিং। সংযুক্ত আরব আমিরাতের কাছে হারের ম্যাচে সেঞ্চুরি হাঁকান। আফগানিস্তানের বিপক্ষে ৩-০ তে হারা সিরিজে আয়ারল্যান্ডের হয়ে সর্বোচ্চ ২৮৫ রান করেন। তিন ম্যাচে ছিল দুটি সেঞ্চুরি। তারপর নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষেও তিন ম্যাচের সিরিজে সবচেয়ে উজ্জ্বল ছিলেন তিনি। কিন্তু এই সিরিজও আইরিশরা হারে ২-১ এ।

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে তিন ওয়ানডেতে মাত্র ৫১ রান করেন স্টার্লিং। তবে বছরের শেষ দিকে ফের ফর্মে ফেরেন। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ড্র সিরিজে তিন ম্যাচে করেন মোট ১০৮ রান।

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles