-6.7 C
Toronto
মঙ্গলবার, জানুয়ারী ১৮, ২০২২

শুভ মা দিবস

- Advertisement -
পৃথিবীর সমস্ত মায়েদের প্রতি অফুরন্ত ভালোবাসা

শুধু মাত্র দোয়া করাতেই মায়ের প্রতি ভালোবাসা বা কর্তব্য শেষ হয় না !!!

বরাবরের মত আবারো একটু ক্লারিফাই করতে চাই যে মাদিবস মানে যে শুধু এই একটি মাত্র দিন মাকে শুভেচ্ছা দিতে হবে, তাকে ভালো বাসতে হবে বা তাকে স্মরণ করতে হবে অথবা তার জন্য দোয়া করতে হবে, তা ঠিক নয়। এই দিনটিকে সমস্ত মায়েদের সম্মানার্থে মাদিবস হিসাবে ঘোষণা করা হয়েছে। মায়ের প্রতি দায়িত্ব, কর্তব্য, ভালোবাসা এবং দোয়া প্রতিটি মুহূর্তের এবং প্রতিটি দিনের জন্য। এবং এই প্রতিদিন, প্রতিমুহূর্ত বা আমৃত্যু মায়ের জন্য দোয়া, তার প্রতি কর্তব্য করে গেলেও কখনো শেষ হবে না, কারণ তার অবদান আপনার আমার জীবনে সীমাহীন !!!!

- Advertisement -

অন্যান্য দিনের মত আজকের দিনেও আমি তাই স্মরণ করতে চাই আমার প্রয়াত মা রিজিয়া বেগমকে। উনি ছিলেন খুবই সাধারণ এবং সাদা-মাঠা। উনাকে এই মাদিবসের শুভেচ্ছা দিতে হলে আগে তাকে বোঝাতে হতো এইটা আবার কিসের দিন, তাহলে বুঝুন কিরকম সাদামাঠা ছিলেন। উনার সাথে সাথে আমি বিশেষ ভাবে স্মরণ করতে চাই আমার মায়ের মত বড়বোন কামরুন নাহারকে। আমাদের মা গত হয়েছেন অনেক আগে, কিন্তু মায়ের অভাবের শতভাগ কষ্ট এখনো পাইনি শুধু তার কারণেই।

সেও খুব সাদামাঠা এক বোন এবং এক মা। সে তার একমাত্র ছেলে অনিকের জননী। মা গত হওয়ার পরে এখানে বা দেশে যত মানুষকে ফোন করিনা কেন সেই একমাত্র ব্যাক্তি যে প্রতিবারই জিজ্ঞেস করে, “আজকে খেয়েছিস, কি খেয়েছি”. সে এমনিই লোক ছোটবেলা দেখেছি কোথাও বেড়াতে গেলে, কেউ কিছু খেতে দিলে বা ইস্কুলে টিফিন দিলে সে তার থেকে কিছুটা আঁচলে বেঁধে আমাদের বা আমাদের চাস্ত ভাইবোনের জন্য নিয়ে আসতো। বাড়িরই পাশ দিয়ে যদি পাড়ার কোনো মৃত ব্যাক্তির লাশ নিয়ে যেত, সে অপরিচিত হলেও কেঁদে ফেলতো। আমাদের প্রতি এবং তার সন্তানের প্রতি তার ভালোবাসার কোনো তফাৎ নেই, অন্য ছেলেমেয়েদের প্রতিও একই রকম।

আল্লাহর অশেষ রহমতে গতবছর করোনা আক্রান্ত হয়ে আপাত সুস্থ আছে। সবাই তার এবং আমার প্রয়াত মায়ের জন্য দোয়া করবেন। আমরাও আপনাদের সবার মায়ের জন্য দোয়া করবো।

আর আমি মনে করি বাবামায়ের জন্য শুধু দোআ করাটাই যথেষ্ট নয়, তাদের আদর্শ বা তারা আপনার মধ্যে কি জিনিস দেখলে খুশি হন বা হতেন সেই জিনিষগুলি খুঁজে বের করে সেগুলি কন্টিনিউ করে গেলেই হবে তাদের প্রতি যথাযত সম্মান প্রদর্শন। আর আমাদের সবার খেয়াল রাখতে হবে যাতে করে আমাদের কোনো কারণে আমাদের মা যেন কষ্ট না পান। ইদানিং এই যান্ত্রিক জীবনে আমরা বাস্তবতায় পড়ে মায়ের কষ্টের কারণ হই, সে হতে পারে সম্পত্তির ভাগা-ভাগি, পছন্দ অপছন্দের ব্যাপার, বা তাদের আদর্শের বিপরীতে কাজ করা ইত্যাদি আরো অনেক কারণে। আমি যত বড়ো, যত ধনী বা যত ফরেজগারই হই না কেন আমার কারণে আমার মা কষ্ট পেলে বা তার চোখে পানি এলে তার থেকে দুর্ভাগা এই পৃথিবীতে আর কেউ নেই। তাই আসুন মাকে কিছু দিতে পারি আর নাই পারি, কিন্তু যেন কষ্ট না দেই।

আবারো আমার মা, এবং পৃথিবীর সমস্ত মায়েদের প্রতি অফুরন্ত ভালোবাসা আর শ্রদ্ধা জানিয়ে আমার খুব প্রিয় Matthew Barreyর ” I am your child গানটি দিয়ে শেষ করছি।

 

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles