18.5 C
Toronto
বুধবার, জুন ১২, ২০২৪

‌’এক শিক্ষক জোরপূর্বক প্রভা আপুর ভাইরাল ভিডিও দেখি খারাপ প্রস্তাব দিয়েছিল’

‌'এক শিক্ষক জোরপূর্বক প্রভা আপুর ভাইরাল ভিডিও দেখি খারাপ প্রস্তাব দিয়েছিল'
<br >মিষ্টি জান্নাত ফাইল ছবি

জান্নাতুল ফেরদৌস মিষ্টি। যিনি সিনেমায় মিষ্টি জান্নাত নামেই পরিচিত। একাধারে অভিনেত্রী, প্রযোজক, ব্যবসায়ী ও দন্ত চিকিৎসকও তিনি। ২০১৪ সালে বড়পর্দায় পা রাখেন এই অভিনেত্রী।
গত এক দশকে কাজের মাধ্যমে যতটা না আলোচনায় এসেছেন, তার থেকে বেশি আলোচিত হয়েছেন ঢালিউড সুপারস্টার শাকিব খানের তৃতীয় বউ হওয়ার গুঞ্জনে। তাছাড়া তর্মা মির্জা ও শাহরিয়ার নাজিম জয়ের সঙ্গে দ্বন্দ্বের জেরে আলোচনায় আসেন নতুনভাবে। সম্প্রতি ঘটে যাওয়া নানা বিষয় নিয়ে মিডিয়ার সঙ্গে খোলামেলা কথা বলেছেন চিত্রনায়িকা মিষ্টি জান্নাত।

শাকিব খানের তৃতীয় বউ হচ্ছেন, এই গুঞ্জন কি সঠিক?
মিষ্টি জান্নাত বলেন, বিষয়টি যেহেতু গুঞ্জনের মধ্যে আছে, সেহেতু এর মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাক। এখনই জানাতে চাচ্ছি না। সময় হলে সব নিজে থেকেই ভক্তদের জানিয়ে দেব।

- Advertisement -

একাধিক ব্যক্তির সঙ্গে প্রেমেরও গুঞ্জন সম্পর্কে মিষ্টি জান্নাত বলেন, অনেক প্রেমের প্রস্তাব পেয়েছি; কিন্তু ‘গিভ অ্যান্ড টেক’ করতে হলে তো সমপর্যায়ে আসতে হবে। সমপর্যায়ে তেমন কাউকে পাইনি। শুধু প্রেমের প্রস্তাব কেন? খারাপ প্রস্তাবও পেয়েছি। অনেক বড় বড় অ্যামাউন্ট অফার করা হয়েছে; কিন্তু আমি রাজি হইনি। সত্যি কথা বলতে, সমপর্যায়ের কাউকে না পাওয়ার কারণে কারও সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক হয়ে উঠেনি। বিয়ের ব্যাপাের মিষ্টি জান্নাত বলেন, লাইফ পার্টনারের জন্য তো সমপর্যায়ের কাউকে পেতে হবে। সমপর্যায়ে কাউকে পাইনি এজন্য বিয়ে করা হয়নি। পেলে বিয়ে করে ফেলব। শাকিবও তো আমার থেকে শিক্ষার দিক দিয়ে পিছিয়ে আছে। অন্য সাইডগুলো মোটামুটি ঠিক আছে। তবে এ বিষয়টি পরিবার সিদ্ধান্ত নেবে।

শাকিবের তৃতীয় বউ হিসেবে গুঞ্জনে কেমন অনুভব করেন জানতে চাইলে জান্নাত বলেন, শুরু থেকেই গুঞ্জনের বিষয়টি এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেছি। তবে এই ইস্যুতে যেমন ভাইরাল হয়েছি, তেমনি সমালোচিতও হয়েছি। আগে যত মানুষ আমাকে চিনত না, তার থেকে এখন বেশি চেনে। এখন আবার শত্রুও বেড়ে গেছে। অধিকাংশ মেয়েরা ঈর্ষা থেকেই শত্রুতা করছে। তবে ছেলেরা আমার ক্রাস খাচ্ছে আর বলছে- এত দিন এই সুন্দর মেয়েটা কোথায় ছিল?

চলচ্চিত্রে ‘গিভ অ্যান্ড টেকের’ পরিস্থিতির সম্মুখীন হয়েছেন কিনা জানতে চাইলে তিনি বেলন, অবশ্যই, ফেইস করেছি। যেগুলোতে ফেইস করেছি সেগুলো সিনেমায় কাজ করিনি। এজন্য কাজের সংখ্যাও কম। যেগুলো ফেইস করিনি সেগুলো কাজ করার চেষ্টা করিছি। আমি আগে জানতাম না যে মিডিয়াতে এ ধরনের প্রস্তাব দেওয়া হয়। প্রযোজকরা সুন্দরী নায়িকাদের বিভিন্ন প্রস্তাব দেয়। প্রেমও শুরু করে। আমি প্রস্তাবে রাজি হইনি, প্রেমও করিনি; ওই সব সিনেমায় কাজও বাতিল করে দিয়েছি।

এগুলো যে শুধু মিডিয়াতে হয় এমন না, এগুলো অন্য সেক্টরেও হয়। যদি মেডিকেল সেক্টরের কথা বলি, আমি যখন প্রথম বর্ষে পড়ি তখন এক শিক্ষক রুমে জোরপূর্বক ডেকে নিয়ে প্রভা আপুর একটি ভাইরাল ভিডিও আমাকে দেখিয়েছিল এবং খারাপ প্রস্তাবও দিয়েছিল। আমি রাজি হইনি। ফলে আমাকে ৩ বার ফেল করানো হয়েছে। এ ঘটনায় প্রিন্সিপালের কাছে নালিশও করেছিলাম। কোনো প্রতিকার পাইনি।
শুধু তাই নয়, অন্য শিক্ষকরাও ডিস্টার্ব করেছে। আমার পোশাক নিয়ে কটু কথা বলত। এক শিক্ষক আমার ওয়াশরুমেও ঢুকে পড়েছিল। এ ঘটনায় ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থাও নিয়েছিল কর্তৃপক্ষ।

 

 

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles