22.9 C
Toronto
বৃহস্পতিবার, জুন ২০, ২০২৪

পানির নিচে ৯৩ দিন থেকে বয়স কমেছে ১০ বছরের সমান

পানির নিচে ৯৩ দিন থেকে বয়স কমেছে ১০ বছরের সমান

নৌবাহিনী থেকে অবসর নিয়েছেন ৫৬ বছর বয়সী জোসেফ দিতুরি। তবে পানির নিচে জীব বৈচিত্র্য পর্যবেক্ষণের জন্য অধ্যয়নের প্রয়োজন হিসাবে তিন মাসের বেশি পানির নিচে থাকতে বলা হয়েছিল। করলেনও তাই!

- Advertisement -

জানা গেছে, আটলান্টিক মহাসাগরের তলদেশে একটি সাবমেরিনের সাহায্যে পানির নিচে টানা ৯৩ দিন অবস্থান করে নতুন বিশ্ব রেকর্ড গড়েছেন তিনি। তবে সবচেয়ে আশ্চর্যের বিষয় হলো, অভিযান শেষ করার পর দিতুরির শারীরিক অনুভূতি এমন হয়েছে যে, মনে হচ্ছে বয়স অনেক কমে গেছে। স্থলে ফিরে আসার পর চিকিৎসকেরাও তার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে আশ্চর্যরকম উন্নতির কথা জানিয়েছেন।

তারা জানিয়েছেন, মানুষের শরীরে প্রতিরক্ষামূলক ডিএনএ ক্যাপ হিসেবে পরিচিত যে টেলোমেরেস থাকে, সেটি বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সংকুচিত হতে থাকে। কিন্তু দিতুরির ক্ষেত্রে হয়েছে উল্টো। পানির নিচে যাওয়ার আগে দিতুরির টেলোমেরেস যে অবস্থায় ছিল, অভিযান শেষ করার পর সেটি এখন ২০ শতাংশ দীর্ঘ হয়ে গেছে। টেলোমেরেসের এই উল্টোযাত্রা তুলনা করে দেখা যায়—দিতুরির বয়সও উল্টো পথে ১০ বছরের সমান এগিয়ে এসেছে।

এ বিষয়ে মিররের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, টেলোমেরেস দীর্ঘ হওয়া ছাড়াও দিতুরির স্টেম সেলের সংখ্যাও বেড়ে গিয়েছিল। আগের তুলনায় ভালো ঘুমও হচ্ছিল তার। আর কোলেস্টেরলের মাত্রা ৭২ পয়েন্ট কমে তার শরীরে প্রদাহ সৃষ্টিকারী পদার্থের পরিমাণও অর্ধেক হয়ে গিয়েছিল।

চিকিৎসকেরা ধারণা করছেন, পানির নিচে চাপের প্রভাবেই দিতুরির শরীরে ইতিবাচক ওই পরিবর্তনগুলো দেখা গেছে। মানবদেহ দীর্ঘ সময় ধরে চাপের পরিস্থিতিতে থাকলে সাড়া দিতে শুরু করে বলেও জানান চিকিৎসকেরা।

অভিযানের বিষয়ে ডেইলি মেইলের সঙ্গে একটি সাক্ষাৎকারে দিতুরি জানিয়েছিলেন, পানির নিচে থাকার সময় তিনি সপ্তাহে পাচ দিন এক ঘণ্টার বেশি ব্যায়াম করতেন। ৯৩ দিনের অভিযান শেষে তিনি আরো একটি বড় সুবিধা অনুভব করেছিলেন। তিনি দেখতে পেয়েছিলেন, আগের তুলনায় তার বিপাকক্রিয়ারও উন্নতি হয়েছে।

তবে মজার বিষয় হলো,সবকিছুর উন্নতি হলেও একটি বিষয়ে অবনতি হয়েছিল জোসেফ দিতুরির। অভিযান শেষে দেখা যায়, তার উচ্চতা কমে গেছে প্রায় আধা ইঞ্চির মতো।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles