22.9 C
Toronto
বৃহস্পতিবার, জুন ২০, ২০২৪

সহকর্মীকে মনে ধরেছে, কী করবেন

সহকর্মীকে মনে ধরেছে, কী করবেন
<br >প্রতীকী ছবি

চাকরিজীবীদের দিনের বেশির ভাগ সময়ই কাটে অফিসে। বলতে গেলে পরিবারের মানুষদের থেকে সহকর্মীদের সঙ্গেই বেশি সময় কাটে।আর অফিসে একসঙ্গে কাজের সুবাদে সহকর্মীর সঙ্গে বন্ধুত্ব হওয়াটাই স্বাভাবিক। তবে অনেক সময় সেই বন্ধুত্ব আর বন্ধুত্ব থাকে না, প্রেমে গড়ায়। কখনো কখনো আবার তা বিয়ে পর্যন্ত গড়ায়। কিন্তু এই প্রেম কি ঠিক?

এ ক্ষেত্রে বিশেষজ্ঞরা বলেন, ‘অফিস প্রেমের বিষয়টি কিন্তু বেশ ঝামেলার। এখানে প্রতি পদে সংকট অপেক্ষায় থাকে। আপনার পাশে বসা সহকর্মীরা যখন তখন সমস্যা তৈরি করতে পারেন। এমনকি আপনার পেছনে নানা গসিপ তৈরি হতে পারে। সোজা ভাষায় এক অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ তৈরি হওয়ার আশঙ্কা থাকে বৈকি!

- Advertisement -

বিশেষজ্ঞরা আরও বলেন, অফিস হলো একটা পেশাদারি জায়গা। এখানে কাজ করে মানুষ বেতন পান। তাই কাজ বাদে এখানে মন দেওয়া-নেওয়া করার বিষয়টিকে বেশির ভাগ সময়ই বাঁকা চোখে দেখা হয়।

তবে মন এতশত বোঝে না। মন চায় পছন্দের মানুষের কাছে যেতে। কিন্তু এরপরও অফিসে সহকর্মীকে পছন্দ হলে একটু ধৈর্য ধরুন। আগে ভালোভাবে বুঝে নিন অফিসে প্রেমের সম্পর্কে জড়ালে কী কী সমস্যা হতে পারে। এরপর কাজে নেমে পড়ুন।

ক্যারিয়ারে বিপদ

মনে রাখবেন, এখনো বহু অফিসে বিষয়টাকে ভালো চোখে দেখা হয় না। অফিস কর্তৃপক্ষ মনে করেন, অফিসে প্রেম করলে আদতে সমস্যা বাড়ে, সেই জায়গার সংস্কৃতি নষ্ট হয়। হয়তো তারা সরাসরি আপনাকে এই কথাটা বলবেন না, তবে পেছনে কলকাঠি নাড়া শুরু হয়ে যাবে। অনেক সময় এই কারণে আপনার পেছনে লেগে যতে পারে ম্যানেজমেন্ট। এমনকি ভালোবাসার অপরাধে চাকরি যাওয়ার ঘটনাও ঘটতে পারে।

হিতে বিপরীত

এটা স্কুল, কলেজ নয়। আপনি চাইলেই এখানে কাউকে প্রেম নিবেদন করতে পারেন না। তাই কাউকে প্রোপোজ করার আগে কয়েকশবার ভাবতে হবে। কারণ, তিনি যদি আপনার প্রেম নিবেদনের বিষয়টি অফিসে সরাসরি অভিযোগের সুরে জানান, তখন ফেঁসে যাবেন। তাই সবার প্রথমে সহকর্মীর মন বুঝে নেওয়ার চেষ্টা করুন। তারপর এগিয়ে যান। নইলে বড় ঝামেলা অপেক্ষা করছে আপনার জন্য।

ঢাক ঢোল পেটালেই মুশকিল

কিছু ক্ষেত্রে সম্পর্ক লুকিয়ে রাখাটাই বুদ্ধিমানের কাজ। আপনি যদি কাউকে কিছু না জানিয়ে প্রেম করতে পারেন, তবে সমস্যা হয় না। কারণ, অফিসে কাঠি করার লোকের শেষ নেই। তখন শুধু আপনার ক্যারিয়ার নয়, বরং প্রেমেও ফুলস্টপ লেগে যেতে পারে। অনেকে প্রেমিকাকে আপনার সম্পর্কে যাতা বলতে পারেন। তাই কাউকে সম্পর্কের কথা জানিয়ে নিজেকে বিপদে ফেলবেন না,বরং চুপ থাকাটাই শ্রেয়।

তার বয়ফ্রেন্ড নেই তো?

প্রেম নিবেদন করার আগে সহকর্মী সম্পর্কে ভালো করে জেনে নিতে হবে। তার কোনো বয়ফ্রেন্ড রয়েছে কিনা, এই বিষয়টি সবার প্রথমে দেখা দরকার। বয়ফ্রেন্ড থাকলে আপনি আর সেই পথে পা বাড়িয়ে কী করবেন বলুন! বরং চেষ্টা করুন নিজেকে আটকে রাখার। এ ছাড়া তার আচরণ সম্পর্কেও আপনাকে জানতে হবে। নইলে ভবিষ্যতে আপনাকে কষ্ট পেতে হবে।

আপনি তৈরি তো?

এই বয়সে প্রেম করলে সহকর্মীরা বিয়ের কথাই ভাবেন। তাই অফিসে প্রেম করলে বিয়ের কথাটা মাথায় ঢুকিয়ে নিন। কারণ, এই বয়সে এসে কেউ এমনি এমনি প্রেম করবেন না। বরং প্রেমযাপনের কিছুদিনের মধ্যেই বিয়ের কথা বলবেন। তাই অফিসে প্রেমের সম্পর্কের ফাঁদে পড়ার আগে এই বিষয়গুলো নিয়ে অবশ্যই ভাবুন। তবেই আগামীর পথ হবে সুগম।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles