27.7 C
Toronto
বৃহস্পতিবার, জুন ২০, ২০২৪

পপির সেই কথিত স্বামী বললেন, ‘পপি আমার স্ত্রী নয়, পারিবারিক বন্ধু’

পপির সেই কথিত স্বামী বললেন, ‘পপি আমার স্ত্রী নয়, পারিবারিক বন্ধু’
জাহাজ ব্যবসায়ী আদনান কামাল ও চিত্রনায়িকা পপি

গোপনে বিয়ে করেছেন চিত্রনায়িকা পপি এবং তার ছেলে সন্তানও রয়েছে—এমন খবরে সয়লাব সোশ্যাল মিডিয়া। এরমধ্যেই গতকাল বিভিন্ন গণমাধ্যমে নায়িকার স্বামী ও সন্তানের পরিচয় প্রকাশ করে। সেখানে বলে হয়, পপির স্বামীর নাম আদনান কামাল একজন জাহাজ ব্যবসায়ী এবং দুই বছর বয়সী ছেলে সন্তানের নাম আয়াত।

তবে এই খবরটিকে ভুয়া বললেন পপির সেই কথিত স্বামী। সেই জাহাজ ব্যবসায়ী আদনান কামাল জানান, পপির সঙ্গে তার বিয়ের প্রশ্নই আসে না। নায়িকা তার পারিবারিক বন্ধু।

- Advertisement -

তিনি বলেন, ‘গতকাল সারা দিন আমার কাছে কয়েক হাজার ফোন এসেছে। আমি বিরক্ত। আমাকে এমনভাবে প্রশ্ন করতেছে, যেন আমি রিমান্ডে আছি। অনেকে এমনও লিখেছে, আমার সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করা হয়েছে। কিন্তু মুঠোফোন বন্ধ পাওয়া গেছে। আমাকে এসব করে রীতিমতো ভাইরাল করে দিয়েছে। আমার ওয়াইফও বিষয়টি বেশ উপভোগ করছে।’

আদনান কামালের ভাষ্য, ‘আমি পুরোনো ঢাকার ছেলে। মানুষের ইজ্জত–সম্মান অনেক বড় জিনিস। নিশ্চিত না হয়ে কারও ছবি এভাবে দেওয়া উচিত নয়। পুরো ব্যাপারে আমি খুব সারপ্রাইজড।’

তিনি আরও বলেন, ‘পপি ম্যাডাম আমাদের পারিবারিক বন্ধু। আমার ওয়াইফের বড় বোনের ফ্রেন্ড। ২০১৮ সালে আমার ছোটবোনের বিয়েতেও এসেছিলেন। গায়েহলুদের অনুষ্ঠানে এসেছিলেন। আমাদের শো করেছেন। শাহরুখ খানও বিয়েতে নাচতে যান, তাই বলে কি শাহরুখ খানের লগে ওই মেয়ের বিয়ে হয়ে যায়? আমরা ঢাকাইয়া মানুষ। খাওন-দাওনের মানুষ। কেউ আসলে খাওন-দাওন না করে ছাড়ি না। এখন সবাই মিলে যদি আমাদের ফ্যামিলি ফ্রেন্ডশিপ নিয়ে কিছু বলে, তাহলে কী বলব! জানেন, আমার ওয়াইফকেও জিজ্ঞেস করেছি, পপির সঙ্গে তাদের পরিচয় কবে থেকে। সে জানিয়েছে, ২০০৪ থেকে তাদের পরিচয়। বাসায় যাওয়া-আসা। তখন তো আমার বিয়েও হয়নি। আমার বিয়ে হয়েছে ২০১১ সালে।’

একপর্যায়ে আদনান কামাল পাল্টা প্রশ্ন করে বলেন, ‘পপি ম্যাডাম কি কোথাও বলছেন, আমি তার হাজবেন্ড?’ এরপর আদনান কামালের কাছে প্রশ্ন ছিল তাহলে আপনার সঙ্গে বিয়ের কথা উঠল কেন? এমন প্রশ্নের উত্তরে বলেন, ‘আমার জীবনে এই ধরনের কথা কখনোই ওঠেনি। পারিবারিক বন্ধুত্বের কারণে পপি ম্যাডামের সঙ্গে সাক্ষাৎ হয়। তিনি আত্মীয়স্বজন, বন্ধুর মতো। তিনি আমাদের বাড়িতে আসছেন, আমরা তার বাড়িতে গেছি। কিন্তু এটাকে এভাবে বিয়ে পর্যন্ত নিয়ে যাওয়ার কোনো মানেই হয় না।’

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles